Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জুন ২০২২ ই-পেপার

PRESENTS
CO-POWERED BY

Mutual funds: বিদেশে বিনিয়োগ প্রকল্পে লগ্নি নেওয়া সাময়িক বন্ধ মিউচুয়াল ফান্ডগুলির

বহু ভারতীয় ফান্ড ইদানীং বিদেশে লগ্নি করছে, প্রধানত ‘ফান্ড অফ ফান্ড’-এর মাধ্যমে। এর ফলে দেশে বসে বিদেশি বাজারে বিনিয়োগ করা যেত।

নীলাঞ্জন দে
কলকাতা ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ১২:০২

বিদেশের বাজারে বিনিয়োগ করে এমন মিউচুয়াল ফান্ডে নতুন টাকা নেওয়া বন্ধ হল আপাতত। সেবির নির্দেশে বিদেশে বিনিয়োগের ঊর্ধসীমা ফান্ড পিছু ১০০ কোটি ডলারে বেঁধে দেওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মিউচুয়াল ফান্ড সংস্থাগুলি। তবে এই সীমা সাময়িক বলে মনে করা হচ্ছে।

এই সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে, বিদেশে বিনিয়োগে আগ্রহীরা যেন মনে রাখেন:

Advertisement

ক) নির্দিষ্ট করে দেওয়া ফান্ডে কোন নতুন এককালীন লগ্নি গ্রহণ করা হবে না।

খ) নতুন সিস্টেম্যাটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান চালু করা যাবে না।

গ) অন্য স্কিম থেকে আসা নতুন সিস্টেম্যাটিক ট্রান্সফার প্ল্যানের দরখাস্ত নেওয়া বন্ধ থাকবে।

তবে যে ফান্ডগুলি চালু রয়েছে, সেগুলি এর আওতার বাইরেই থাকবে।

এই নিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সেবি-র সাম্প্রতিক নির্দেশের প্রেক্ষিতে অ্যাসোসিয়েশন অব মিউচুয়াল ফান্ডস অব ইন্ডিয়া (অ্যামফি) ২ ফেব্রুয়ারি তাদের সদস্যদের এই জাতীয় ফান্ডে নতুন লগ্নি না নিতে বলেছে। সেবি-র নির্দেশে ফান্ডপিছু এবং গোটা শিল্পের জন্য বিদেশে লগ্নি করার উপর ঊর্ধ্বসীমা জারি করায় অ্যামফি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ব্যাবস্থাটি সাময়িক, ব্যাঙ্ক নিয়ন্ত্রক সংস্থা এ সীমা বাড়ালে এই নির্দেশও সংশোধিত হবে বলে ফান্ড হাউসগুলি লগ্নিকারীদের জানিয়েছে। তবে নতুন টাকা না এলে ফান্ডগুলির বিনিয়োগ সাময়িক হলেও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

প্রসঙ্গত, বহু ভারতীয় ফান্ড ইদানীং বিদেশে লগ্নি করছে, প্রধানত ‘ফান্ড অফ ফান্ড’-এর মাধ্যমে। এর ফলে লগ্নিকারীরাও দেশে বসেই তাঁদের পছন্দের বিদেশি বাজারে বিনিয়োগ করতে পারছিলেন। প্রথম বিশ্ব ছাড়াও গ্রেটার চায়না বা এশিয়া প্যাসিফিক বাজারেও আজ লগ্নি করা বেশ সুবিধাজনক। একাধিক ইনডেক্স-ভিত্তিক বিকল্পও রয়েছে।

উদাহরণ হিসাবে ‘মোতিলাল ওসওয়াল এস অ্যান্ড পি ৫০০ ফান্ড’টির কথা বলা যায়। পৃথিবী-খ্যাত সূচকটি অনেক দিন ধরেই বেশ জনপ্রিয়। মতিলাল অস্ওয়ালের স্কিমটি এতেই বিনিয়োগ করে ভারতীয় গ্রাহকদের জন্য।

অ্যামফির সাম্প্রতিক নির্দেশের প্রেক্ষিতে সংস্থাটি লগ্নিকারীদের জানিয়েছে যে তাদের মোট পাঁচটি ফান্ড এখন আর নতুন টাকা গ্রহণ করবে না। এখনও পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ইনভেস্কো, ফ্রাঙ্কলিন টেম্পলটন ইত্যাদি ফান্ড ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলি তাদের গ্রাহকদের বিনিয়োগ প্রকল্পের তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছে। সেই সঙ্গে সেবির নির্দেশিকার কথা উল্লেখ করে তাদের সংশ্লিষ্ট প্রকল্পগুলিতে বিনিয়োগ সাময়িক ভাবে স্থাগিত রাখার কথা জানিয়ে দিয়েছে তারা।

Advertisement