Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
Veena Nagda

আলিয়া, দীপিকার বিয়েতে মেহন্দি পরিয়েছেন, অম্বানীদের মেহন্দি এঁকে কত পারিশ্রমিক পেলেন বীণা?

সমাজমাধ্যমে অধিকাংশ সময় নিজের কাজ সংক্রান্ত ছবি ছাড়াও বলিপাড়ার তারকাদের সঙ্গে ছবি পোস্ট করেন বীণা। সমাজমাধ্যমেও জনপ্রিয় তিনি। ইতিমধ্যে ইনস্টাগ্রামের পাতায় বীণার অনুগামীর সংখ্যা ৯৩ হাজারের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ জুন ২০২৪ ১০:০০
Share: Save:
০১ ২৭
আলিয়া ভট্ট থেকে দীপিকা পাড়ুকোন, ক্যাটরিনা কইফ থেকে সোনম কপূর— বলিউডের একাধিক অভিনেত্রীর বিয়ের অনুষ্ঠানে পাত্রীর হাতে মেহন্দি পরিয়ে দেন বীণা নাগদা। অম্বানীদের হাত ধরেই পরিচিতি গড়ে তুলেছিলেন এই তরুণী। বর্তমানে তারকাদের পছন্দের শিল্পী তিনি। শুধুমাত্র আড়ম্বরে মোড়া অনুষ্ঠানেই নয়, হিন্দি ছবিতেও কাজ করতে দেখা গিয়েছে বীণাকে।

আলিয়া ভট্ট থেকে দীপিকা পাড়ুকোন, ক্যাটরিনা কইফ থেকে সোনম কপূর— বলিউডের একাধিক অভিনেত্রীর বিয়ের অনুষ্ঠানে পাত্রীর হাতে মেহন্দি পরিয়ে দেন বীণা নাগদা। অম্বানীদের হাত ধরেই পরিচিতি গড়ে তুলেছিলেন এই তরুণী। বর্তমানে তারকাদের পছন্দের শিল্পী তিনি। শুধুমাত্র আড়ম্বরে মোড়া অনুষ্ঠানেই নয়, হিন্দি ছবিতেও কাজ করতে দেখা গিয়েছে বীণাকে।

০২ ২৭
মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম বীণার। স্কুলের গণ্ডি কোনও রকমে পার করলেও উচ্চশিক্ষার জন্য পরিবারের তরফে অনুমতি পাননি তিনি। স্কুলের পড়াশোনা শেষ করে শাড়ির উপর নকশা বোনার কাজ শিখতে শুরু করেন তিনি।

মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম বীণার। স্কুলের গণ্ডি কোনও রকমে পার করলেও উচ্চশিক্ষার জন্য পরিবারের তরফে অনুমতি পাননি তিনি। স্কুলের পড়াশোনা শেষ করে শাড়ির উপর নকশা বোনার কাজ শিখতে শুরু করেন তিনি।

০৩ ২৭
শাড়িতে নকশা কাটার পাশাপাশি মেহন্দি পরানোও রপ্ত করে ফেলেন বীণা। মেহন্দি শিল্পী হিসাবে বীণা এতটাই পরিচিতি পেয়ে যান যে, খ্যাতনামীদের ঘরোয়া অনুষ্ঠানেও তাঁকে দেখা যেতে থাকে।

শাড়িতে নকশা কাটার পাশাপাশি মেহন্দি পরানোও রপ্ত করে ফেলেন বীণা। মেহন্দি শিল্পী হিসাবে বীণা এতটাই পরিচিতি পেয়ে যান যে, খ্যাতনামীদের ঘরোয়া অনুষ্ঠানেও তাঁকে দেখা যেতে থাকে।

০৪ ২৭
বলিপাড়া সূত্রে খবর, মুকেশ অম্বানীর বাড়ির একটি অনুষ্ঠানে মেহন্দি পরানোর জন্য ডাক পান বীণা। সেই সূত্রে বলিপাড়ার তারকাদের সঙ্গে পরিচিতি হয়ে যায় তাঁর।

বলিপাড়া সূত্রে খবর, মুকেশ অম্বানীর বাড়ির একটি অনুষ্ঠানে মেহন্দি পরানোর জন্য ডাক পান বীণা। সেই সূত্রে বলিপাড়ার তারকাদের সঙ্গে পরিচিতি হয়ে যায় তাঁর।

০৫ ২৭
হিন্দি ফিল্মজগতের বর্ষীয়ান অভিনেতা সঞ্জয় খান। তাঁর কন্যা ফারাহ খান আলির বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের হাতে মেহন্দি পরানোর সুযোগ পান বীণা। তাঁর নকশা সকলের প্রশংসা পায়। রাতারাতি বলিমহলে জনপ্রিয়তা পেয়ে যান তিনি।

হিন্দি ফিল্মজগতের বর্ষীয়ান অভিনেতা সঞ্জয় খান। তাঁর কন্যা ফারাহ খান আলির বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের হাতে মেহন্দি পরানোর সুযোগ পান বীণা। তাঁর নকশা সকলের প্রশংসা পায়। রাতারাতি বলিমহলে জনপ্রিয়তা পেয়ে যান তিনি।

০৬ ২৭
ফারাহ খান থেকে শিল্পা শেট্টি, করিশ্মা কপূর, দীপিকা পাড়ুকোন, কিয়ারা আডবাণী, ক্যাটরিনা কইফ, সোনম কপূরের বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের হাতে মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা।

ফারাহ খান থেকে শিল্পা শেট্টি, করিশ্মা কপূর, দীপিকা পাড়ুকোন, কিয়ারা আডবাণী, ক্যাটরিনা কইফ, সোনম কপূরের বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের হাতে মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা।

০৭ ২৭
২০২১ সালে দীর্ঘকালীন প্রেমিকা নাতাশা দলালের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন বলি অভিনেতা বরুণ ধওয়ান। বিয়ের অনুষ্ঠানে নাতাশার হাতে মেহন্দির নকশা কাটেন বীণা।

২০২১ সালে দীর্ঘকালীন প্রেমিকা নাতাশা দলালের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন বলি অভিনেতা বরুণ ধওয়ান। বিয়ের অনুষ্ঠানে নাতাশার হাতে মেহন্দির নকশা কাটেন বীণা।

০৮ ২৭
বীণাকে পছন্দ করেন মুকেশ অম্বানীর স্ত্রী নীতা অম্বানীও। তাই তাঁদের বাড়ির সমস্ত ঘরোয়া অনুষ্ঠানে ডাক পড়ে বীণার। শোনা যায়, মুকেশ-কন্যা ইশা অম্বানীর বিয়েতে কনেকে মেহন্দি পরিয়েছিলেন তিনি। নীতা এবং অম্বানীদের পুত্রবধূ শ্লোক মেহতাও মেহন্দি পরেছিলেন বীণার কাছে।

বীণাকে পছন্দ করেন মুকেশ অম্বানীর স্ত্রী নীতা অম্বানীও। তাই তাঁদের বাড়ির সমস্ত ঘরোয়া অনুষ্ঠানে ডাক পড়ে বীণার। শোনা যায়, মুকেশ-কন্যা ইশা অম্বানীর বিয়েতে কনেকে মেহন্দি পরিয়েছিলেন তিনি। নীতা এবং অম্বানীদের পুত্রবধূ শ্লোক মেহতাও মেহন্দি পরেছিলেন বীণার কাছে।

০৯ ২৭
জুলাই মাসে মুম্বইয়ে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন মুকেশ-পুত্র অনন্ত অম্বানী এবং তাঁর দীর্ঘকালীন প্রেমিকা রাধিকা মার্চেন্ট। বিয়ের আগে খ্যাতনামীদের নিমন্ত্রণ জানিয়ে পর পর দু’বার প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন অম্বানীরা। মার্চ মাসে গুজরাতের জামনগরে এবং জুন মাসে ইটালির এক প্রমোদতরীতে হয় প্রাক্‌-বিবাহের অনুষ্ঠান।

জুলাই মাসে মুম্বইয়ে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন মুকেশ-পুত্র অনন্ত অম্বানী এবং তাঁর দীর্ঘকালীন প্রেমিকা রাধিকা মার্চেন্ট। বিয়ের আগে খ্যাতনামীদের নিমন্ত্রণ জানিয়ে পর পর দু’বার প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন অম্বানীরা। মার্চ মাসে গুজরাতের জামনগরে এবং জুন মাসে ইটালির এক প্রমোদতরীতে হয় প্রাক্‌-বিবাহের অনুষ্ঠান।

১০ ২৭
বলিপাড়া সূত্রে খবর, জামনগরে আয়োজিত অনন্ত-রাধিকার প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠানে রাধিকার পাশাপাশি অনন্তের হাতেও মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা।

বলিপাড়া সূত্রে খবর, জামনগরে আয়োজিত অনন্ত-রাধিকার প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠানে রাধিকার পাশাপাশি অনন্তের হাতেও মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা।

১১ ২৭
শুধু তা-ই নয়, অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে কারও ইচ্ছা করলে তাঁকেও মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা। সমাজমাধ্যমে সেই ছবি পোস্টও করেছেন তিনি। অতিথিদের হাতে মেহন্দি পরানোর সময় সাদা, গোলাপি, রুপোলি এবং সোনালি রঙের ব্যবহার করেছেন তিনি।

শুধু তা-ই নয়, অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের মধ্যে কারও ইচ্ছা করলে তাঁকেও মেহন্দি পরিয়েছেন বীণা। সমাজমাধ্যমে সেই ছবি পোস্টও করেছেন তিনি। অতিথিদের হাতে মেহন্দি পরানোর সময় সাদা, গোলাপি, রুপোলি এবং সোনালি রঙের ব্যবহার করেছেন তিনি।

১২ ২৭
২০২১ সালে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বীণা তাঁর পারিশ্রমিক নিয়ে জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘‘সাধারণত আমি বিয়ের অনুষ্ঠানে কনেকে মেহন্দি পরানোর জন্য তিন হাজার থেকে সাত হাজার টাকা নিই। এই টাকায় হাতে এবং পায়ে মেহন্দি পরিয়ে দিই আমি।’’

২০২১ সালে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বীণা তাঁর পারিশ্রমিক নিয়ে জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘‘সাধারণত আমি বিয়ের অনুষ্ঠানে কনেকে মেহন্দি পরানোর জন্য তিন হাজার থেকে সাত হাজার টাকা নিই। এই টাকায় হাতে এবং পায়ে মেহন্দি পরিয়ে দিই আমি।’’

১৩ ২৭
বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের হাতে মেহন্দি পরানোর জন্য আলাদা ভাবে পারিশ্রমিক নেন বীণা। দু’হাতে সামান্য পরিমাণ নকশা করতে ১০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা পারিশ্রমিক নেন তিনি।

বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের হাতে মেহন্দি পরানোর জন্য আলাদা ভাবে পারিশ্রমিক নেন বীণা। দু’হাতে সামান্য পরিমাণ নকশা করতে ১০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা পারিশ্রমিক নেন তিনি।

১৪ ২৭
তারকাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে ডাকা হলে সে ক্ষেত্রে কোনও বাঁধাধরা পারিশ্রমিক আদায় করেন না বীণা। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘‘তারকাদের বিয়ে হলে আমি কোনও পারিশ্রমিক চাই না। তাঁরা আমায় যা দেন, আমি তা-ই নিই। তবে আমি যা আশা করে থাকি, তার থেকে অনেক গুণ বেশি পারিশ্রমিক পাই।’’ কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, অম্বানীদের প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রচুর পারিশ্রমিক পেয়েছেন তিনি।

তারকাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে ডাকা হলে সে ক্ষেত্রে কোনও বাঁধাধরা পারিশ্রমিক আদায় করেন না বীণা। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘‘তারকাদের বিয়ে হলে আমি কোনও পারিশ্রমিক চাই না। তাঁরা আমায় যা দেন, আমি তা-ই নিই। তবে আমি যা আশা করে থাকি, তার থেকে অনেক গুণ বেশি পারিশ্রমিক পাই।’’ কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, অম্বানীদের প্রাক্-বিবাহ অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রচুর পারিশ্রমিক পেয়েছেন তিনি।

১৫ ২৭
শুধু কন্যার বিয়ের অনুষ্ঠানেই নয়, সোনমের মা সুনীতা কপূর প্রতি বছর তাঁদের বাড়িতে করবা চৌথের অনুষ্ঠানের সময় বীণাকে ডাকেন। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত মহিলাদের মেহন্দি পরিয়ে দেন বীণা।

শুধু কন্যার বিয়ের অনুষ্ঠানেই নয়, সোনমের মা সুনীতা কপূর প্রতি বছর তাঁদের বাড়িতে করবা চৌথের অনুষ্ঠানের সময় বীণাকে ডাকেন। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত মহিলাদের মেহন্দি পরিয়ে দেন বীণা।

১৬ ২৭
২০০০ সালে সুজ়ান খানকে বিয়ে করেন বলি অভিনেতা হৃতিক রোশন। তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানে সুজ়ানের হাতে মেহন্দি পরিয়েছিলেন বীণা।

২০০০ সালে সুজ়ান খানকে বিয়ে করেন বলি অভিনেতা হৃতিক রোশন। তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানে সুজ়ানের হাতে মেহন্দি পরিয়েছিলেন বীণা।

১৭ ২৭
বিয়েতে টুইঙ্কলকে মেহন্দি পরিয়েছিলেন বীণা। টুইঙ্কলের মা তথা বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ডিম্পল কাপাডিয়াও তাঁর কাছে মেহন্দি পরেছিলেন বলে বলিপাড়া সূত্রে খবর।

বিয়েতে টুইঙ্কলকে মেহন্দি পরিয়েছিলেন বীণা। টুইঙ্কলের মা তথা বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ডিম্পল কাপাডিয়াও তাঁর কাছে মেহন্দি পরেছিলেন বলে বলিপাড়া সূত্রে খবর।

১৮ ২৭
শুধুমাত্র আড়ম্বরপূর্ণ বিয়ের অনুষ্ঠানেই নয়, বড় পর্দার কোনও ছবিতে বিয়ের দৃশ্য শুট করার আগেও ডেকে পাঠানো হয় বীণাকে। চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে নায়িকা-সহ অন্যান্যদের মেহন্দি পরিয়ে দেন তিনি।

শুধুমাত্র আড়ম্বরপূর্ণ বিয়ের অনুষ্ঠানেই নয়, বড় পর্দার কোনও ছবিতে বিয়ের দৃশ্য শুট করার আগেও ডেকে পাঠানো হয় বীণাকে। চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে নায়িকা-সহ অন্যান্যদের মেহন্দি পরিয়ে দেন তিনি।

১৯ ২৭
বলিপাড়া সূত্রে খবর, ‘কভি খুশি কভি গম’, ‘কল হো না হো’, ‘হম তুম’, ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘ড্রিম গার্ল ২’, ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’র মতো হিন্দি ছবিতে মেহন্দি শিল্পী হিসাবে কাজ করেছেন বীণা।

বলিপাড়া সূত্রে খবর, ‘কভি খুশি কভি গম’, ‘কল হো না হো’, ‘হম তুম’, ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘ড্রিম গার্ল ২’, ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’র মতো হিন্দি ছবিতে মেহন্দি শিল্পী হিসাবে কাজ করেছেন বীণা।

২০ ২৭
‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহিনি’ ছবিতে কাজ করার পর পরিচালক কর্ণ জোহরের কাছে কটাক্ষের শিকার হন বীণা। সমাজমাধ্যমে কর্ণকে পাল্টা জবাব দিতেও পিছপা হননি তিনি।

‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহিনি’ ছবিতে কাজ করার পর পরিচালক কর্ণ জোহরের কাছে কটাক্ষের শিকার হন বীণা। সমাজমাধ্যমে কর্ণকে পাল্টা জবাব দিতেও পিছপা হননি তিনি।

২১ ২৭
২০২৩ সালে কর্ণের পরিচালনায় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহিনি’। এই ছবি মুক্তির সময় এক সাংবাদিক বৈঠকে কর্ণ দাবি করেছিলেন যে, আলিয়ার বিয়ের সময় ওর হাতে যে মেহন্দি আঁকা হয়েছিল, ছবিতে ওই একই মেহন্দি দেখা গিয়েছে। নকশার কোনও বদল হয়নি বলে দাবি করেন কর্ণ।

২০২৩ সালে কর্ণের পরিচালনায় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহিনি’। এই ছবি মুক্তির সময় এক সাংবাদিক বৈঠকে কর্ণ দাবি করেছিলেন যে, আলিয়ার বিয়ের সময় ওর হাতে যে মেহন্দি আঁকা হয়েছিল, ছবিতে ওই একই মেহন্দি দেখা গিয়েছে। নকশার কোনও বদল হয়নি বলে দাবি করেন কর্ণ।

২২ ২৭
কর্ণ বলেছিলেন, ‘‘এক সপ্তাহের মধ্যেই পর পর দু’বার বিয়ে করেছিল আলিয়া। ওর বিয়ের চার দিন পরেই শুটিং করতে এসেছিল আলিয়া। ওর হাতের মেহন্দি তখনও টাটকা। ছবির একটি গানের দৃশ্যে আলিয়ার বিয়ের শুটিং হওয়ার কথা ছিল। ওর বিয়ের পুরনো মেহন্দিই আরও গাঢ় করে দেওয়া হয়েছিল। নকশার কোনও পরিবর্তন হয়নি।’’ কর্ণের এই মন্তব্যে আপত্তি জানিয়ে সরব হয়েছিলেন বীণা।

কর্ণ বলেছিলেন, ‘‘এক সপ্তাহের মধ্যেই পর পর দু’বার বিয়ে করেছিল আলিয়া। ওর বিয়ের চার দিন পরেই শুটিং করতে এসেছিল আলিয়া। ওর হাতের মেহন্দি তখনও টাটকা। ছবির একটি গানের দৃশ্যে আলিয়ার বিয়ের শুটিং হওয়ার কথা ছিল। ওর বিয়ের পুরনো মেহন্দিই আরও গাঢ় করে দেওয়া হয়েছিল। নকশার কোনও পরিবর্তন হয়নি।’’ কর্ণের এই মন্তব্যে আপত্তি জানিয়ে সরব হয়েছিলেন বীণা।

২৩ ২৭
‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’ ছবিতে আলিয়ার মেহন্দির ছবি এবং আলিয়ার বিয়েতে পরা মেহন্দির ছবি সমাজমাধ্যমে পোস্ট করেছিলেন বীণা। দু’টি নকশার তুলনা করে বীণা সমাজমাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘‘আলিয়ার বিয়ের মেহন্দিতে কব্জির কাছে কোনও নকশা ছিল না। কিন্তু ছবিতে কব্জির তলায় ভাল ভাবে অনেকটা জায়গা জুড়ে নকশা করা হয়েছে। এমনকি, আঙুলের কাছে নকশাগুলিও ভিন্ন। সমগ্র নকশা জুড়েই ভিন্নতা ধরা পড়বে খালি চোখে।’’

‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’ ছবিতে আলিয়ার মেহন্দির ছবি এবং আলিয়ার বিয়েতে পরা মেহন্দির ছবি সমাজমাধ্যমে পোস্ট করেছিলেন বীণা। দু’টি নকশার তুলনা করে বীণা সমাজমাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘‘আলিয়ার বিয়ের মেহন্দিতে কব্জির কাছে কোনও নকশা ছিল না। কিন্তু ছবিতে কব্জির তলায় ভাল ভাবে অনেকটা জায়গা জুড়ে নকশা করা হয়েছে। এমনকি, আঙুলের কাছে নকশাগুলিও ভিন্ন। সমগ্র নকশা জুড়েই ভিন্নতা ধরা পড়বে খালি চোখে।’’

২৪ ২৭
বড় পর্দায় বীণার সঙ্গে কাজ করে তাঁর নকশা পছন্দ হয়ে গিয়েছিল দীপিকার। কথা দিয়েছিলেন যে, অভিনেত্রী বিয়ে করলে বীণার কাছেই মেহন্দি পরবেন। কথা দিয়ে তা রেখেওছিলেন অভিনেত্রী।

বড় পর্দায় বীণার সঙ্গে কাজ করে তাঁর নকশা পছন্দ হয়ে গিয়েছিল দীপিকার। কথা দিয়েছিলেন যে, অভিনেত্রী বিয়ে করলে বীণার কাছেই মেহন্দি পরবেন। কথা দিয়ে তা রেখেওছিলেন অভিনেত্রী।

২৫ ২৭
২০১৩ সালে ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ ছবির শুটিংয়ের জন্য ৪৫ দিন রাজস্থানের উদয়পুরে ছিলেন বীণা। ছবিতে একটি বিয়ের দৃশ্য থাকায় চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে সকলের হাতে মেহন্দি পরিয়েছিলেন তিনি। তাঁর নকশা দেখে মুগ্ধ হয়ে যান দীপিকা। বীণাকে তিনি ছবির সেটে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, অভিনেত্রী যখন বিয়ে করবেন তখন তিনি মেহন্দি পরানোর জন্য বীণাকেই ডাকবেন।

২০১৩ সালে ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ ছবির শুটিংয়ের জন্য ৪৫ দিন রাজস্থানের উদয়পুরে ছিলেন বীণা। ছবিতে একটি বিয়ের দৃশ্য থাকায় চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে সকলের হাতে মেহন্দি পরিয়েছিলেন তিনি। তাঁর নকশা দেখে মুগ্ধ হয়ে যান দীপিকা। বীণাকে তিনি ছবির সেটে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, অভিনেত্রী যখন বিয়ে করবেন তখন তিনি মেহন্দি পরানোর জন্য বীণাকেই ডাকবেন।

২৬ ২৭
যেমন কথা, তেমন কাজ। ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ মুক্তির পাঁচ বছর পর ২০১৮ সালে বলি অভিনেতা রণবীর সিংহকে বিয়ে করেন দীপিকা। পাঁচ বছর আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রেখে বিয়েতে বীণার কাছেই মেহন্দি পরেছিলেন তিনি।

যেমন কথা, তেমন কাজ। ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ মুক্তির পাঁচ বছর পর ২০১৮ সালে বলি অভিনেতা রণবীর সিংহকে বিয়ে করেন দীপিকা। পাঁচ বছর আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রেখে বিয়েতে বীণার কাছেই মেহন্দি পরেছিলেন তিনি।

২৭ ২৭
সমাজমাধ্যমে অধিকাংশ সময় নিজের কাজ সংক্রান্ত ছবি ছাড়াও বলিপাড়ার তারকাদের সঙ্গে ছবি পোস্ট করেন বীণা। সমাজমাধ্যমেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি। ইতিমধ্যে ইনস্টাগ্রামের পাতায় বীণার অনুগামীর সংখ্যা ৯৩ হাজারের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

সমাজমাধ্যমে অধিকাংশ সময় নিজের কাজ সংক্রান্ত ছবি ছাড়াও বলিপাড়ার তারকাদের সঙ্গে ছবি পোস্ট করেন বীণা। সমাজমাধ্যমেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি। ইতিমধ্যে ইনস্টাগ্রামের পাতায় বীণার অনুগামীর সংখ্যা ৯৩ হাজারের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

সব ছবি সংগৃহীত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE