Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

চিংড়ি খিচুড়ি ও পেঁয়াজ রিং

ফেব্রুয়ারি এখনও শেষ হয়নি। শীত পাততাড়ি গুটিয়েছে কবেই। আর ফাল্গুনের অকালবৃষ্টিতে গরমটাও যেন জাঁকিয়ে বসতে পারছে না। তাই এই ভরা বসন্তে কোনও একট

রূম্পা দাস
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ১৪:২৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

ফেব্রুয়ারি এখনও শেষ হয়নি। শীত পাততাড়ি গুটিয়েছে কবেই। আর ফাল্গুনের অকালবৃষ্টিতে গরমটাও যেন জাঁকিয়ে বসতে পারছে না। তাই এই ভরা বসন্তে কোনও একটা ছুটির দিনে গরম গরম চিংড়ি খিচুড়ি বানালে জমবে ভালো! সঙ্গে থাকছে পেঁয়াজের রিং। আপনি চাইলেই বানিয়ে নিতে পারেন অমলেট বা মাছ ভাজা। বাংলাদেশে খিচুড়ির সঙ্গে জমিয়ে কষা মাংস খাওয়াটা একটা রীতি। তবে এই মরসুমে খুব বেশি তেলের খাবার না খেয়ে পেঁয়াজের রিং দিয়ে এক বার খিচুড়ি খেয়ে দেখতেই পারেন।!

চিংড়ি খিচুড়ি

উপকরণ:

Advertisement

ছোট চিংড়ি— ১০০ গ্রাম

বাসমতি চাল— ১ কাপ

মুগ ডাল— ১/২ কাপ

মুসুর ডাল— ১/২ কাপ

টোম্যাটো— ১ টি (বড়)

পেঁয়াজ— ১টি (বড়)

আদা— ১ ইঞ্চি টুকরো (বাটা)

কড়াইশুটি— এক মুঠো

কাঁচা লঙ্কা— ৪-৫টি

শুকনো লঙ্কা— ৩টি

শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো— ১/২ টেবিল চামচ

হলুদ গুঁড়ো— ১/২ চা চামচ

এলাচ— ৪-৬টি

দারচিনি— ১টি টুকরো (মাঝারি)

তেজপাতা— ২টি

সরষের তেল— পরিমাণ মতো

নুন— স্বাদ মতো

চিনি— সামান্য

প্রণালী:

চাল, ডাল ভালো করে ধুয়ে জল ঝরিয়ে রাখুন। চিংড়ি মাছের খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে ধুয়ে রাখুন। এ বার একটি পাত্রে সরষের তেল গরম করে তেজপাতা, দারচিনি, শুকনো লঙ্কা আর এলাচ ফোড়ন দিন। অল্প আদা বাটা, পেঁয়াজ কুচি আর টোম্যাটোর টুকরো ও কড়াইশুঁটি দিয়ে নাড়তে থাকুন। এক চিমটে হলুদ গুঁড়ো, নুন, শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো মেশান। অল্প চিনি দিন। এ বার চিংড়িগুলো দিয়ে হালকা কষতে থাকুন। তেল ছাড়তে শুরু করলে জল ঝরিয়ে রাখা চাল-ডাল দিয়ে দিন। এক সঙ্গে সমস্ত উপকরণ নাড়তে থাকুন। ৩-৫ মিনিট পরে চার কাপ মতো গরম জল ঢেলে পাত্রটি চাপা দিন। চাল সেদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে নিন। খিচুড়ি যদি বেশি শুকনো লাগে, তবে সামান্য গরম জল দিতে পারেন। গরম গরম চিংড়ি খিচুড়ি পরিবেশন করুন পেঁয়াজ রিং দিয়ে।

পেঁয়াজ রিং



বানাতে যা যা লাগবে:

পেঁয়াজ— ৩টি (বড়)

ময়াদ—- ১/২ কাপ

কর্ন ফ্লাওয়ার— ১/২ কাপ

নুন— স্বাদ মতো

গোলমরিচ গুঁড়ো— ১/২ চামচ

জিরে— দেড় টেবিল চামচ

শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো— ১/২ টেবিল চামচ

বেকিং সোডা— ১/২ চা চামচ

সাদ তেল— ভাজার জন্য

বানাবেন কী ভাবে:

প্রথমে পেঁয়াজগুলোকে গোল গোল করে কেটে নিন। প্রতিটা গোল আলাদা করে খুলে রাখুন। শুকনো খোলায় জিরে ভাজুন। ভাজা জিরে বেটে বা গুঁড়িয়ে নিন। এ বার একটি পাত্রে ময়দা, কর্নফ্লাওয়ার আর বেকিং সোডা ভালো করে মেশান। সামান্য নুন, শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো, ভাজা জিরে গুঁড়ো দিন। জল দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। কড়াইয়ে সাদা তেল গরম করুন। পেঁয়াজের রিংগুলো মিশ্রণে ডুবিয়ে ছাঁকা তেলে ভাজুন। পেঁয়াজগুলোয় সোনালি রং ধরতে শুরু করলে তুলে নিন। একটি পেপার টাওয়ালে ভাজা রিং গুলো রাখুন। এতে অতিরিক্ত তেল শুষে নেবে টাওয়েল। এ বার পরিবেশন করুন।

(খিচুড়িতে ইচ্ছে মতো মরসুমি সবজিও দিতে পারেন। পেঁয়াজের রিং বানানোর সময়ে মিশ্রণে জোয়ান গুঁড়ো দিলে অত্যন্ত সুস্বাদু হয়।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement