ভারতের মাটিতে এখন বিপন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ইতিমধ্যেই জিতে নিয়েছেন বিরাট কোহালিরা। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির শহরে অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টের বল গড়ানোর আগে প্রোটিয়া শিবির আরও সমস্যায়। ডান হাতের কব্জিতে চিড় ধরায় তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ থেকে ছিটকে গেলেন ওপেনার এইডেন মার্করাম। বৃহস্পতিবার সকালেই দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয় তাঁকে।

চোটের জন্য অবশ্য মার্করাম নিজেই দায়ী। পুণে টেস্টে দুই ইনিংসে শূন্য রানে ফিরেছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁকে এলবিডব্লিউ দেওয়া হয়। নন স্ট্রাইক প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকা অন্য ব্যাটসম্যান ডিন এলগারের সঙ্গে কথা বলেই রিভিউ নেননি মার্করাম। রিপ্লেতে অবশ্য দেখা গিয়েছে, লেগ স্টাম্পে বল আঘাত করত না। রান করতে ব্যর্থ মার্করাম হতাশায় ডান হাত দিয়ে কোনও কঠিন জিনিসে আঘাত করে চোট পান।

মার্করামের ডান কব্জিতে সিটি স্ক্যান করা হয়। স্ক্যান রিপোর্টে জানা যায় চিড় ধরেছে তাঁর ডান হাতের কব্জিতে। ২৫ বছর বয়সি ডান হাতি ব্যাটসম্যানের জন্য আরও সমস্যায় পড়ে গেল দেশ। এর জন্য দুঃখিত তিনি। মার্করাম বলেন, “এ ভাবে দেশে ফিরে যাওয়াটা খুবই দুঃখজনক ব্যাপার। আমি যা করেছি, তা ঠিক করিনি। এর দায় আমারই।” মার্করামের মতো ঠিক একই ভাবে চোট পান অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার মিচেল মার্শ। শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে আউট হওয়ার হতাশায় ড্রেসিং রুমের দেওয়ালে ঘুসি মেরে বসেন অজি তারকা। কতদিন মার্শকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে, তা এখনও জানা নেই। মার্করামও কতদিনের জন্য ছিটকে গেলেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়।  

আরও পড়ুন: ব্যাটিংয়ে তোমাকে প্রয়োজন দক্ষিণ আফ্রিকার, জন্টিকে খোঁচা ভাজ্জির

প্রোটিয়া তারকার চোট বড় সড় ধাক্কা দিল দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরকে। কেশব মহারাজ আগেই ছিটকে গিয়েছেন। এ বার ছিটকে গেলেন মার্করামও। সিরিজ শুরুর আগে প্রস্তুতি ম্যাচগুলোয় রান পাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু, টেস্ট সিরিজ শুরু হতেই বদলে যায় ছবিটা। বিশাখাপত্তনমে ৫ আর ৩৯ রান করেছিলেন। পুণেতে দুই ইনিংসেই খাতা খুলতে পারেননি। শুধু মার্করাম নন, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রায় সব ব্যাটসম্যানই ভারতের মাটিতে ডাহা ফেল। দু’টি টেস্টে হতশ্রী ব্যাটিং পারফরম্যান্সের জন্য ডুবতে হয়েছে ফ্যাফ ডু’প্লেসিদের। তৃতীয় টেস্টে অবশ্য মার্করামের বিকল্প হিসেবে কোনও ক্রিকেটারের নাম ঘোষণা করেনি প্রোটিয়া-শিবির। 

আরও পড়ুন: ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট কবে? সৌরভ বললেন...​