ডিফেন্স শক্তপোক্ত করে কাতারকে থামিয়ে দিয়েছিলেন ইগর স্তিমাচ। ‘এশিয়াসেরা’-র বিরুদ্ধে যে পদ্ধতি নিয়েছিল ভারত,আজ মঙ্গলবার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে সেই একই পদ্ধতি গ্রহণ করতে পারে বাংলাদেশ। নিজেদের রক্ষণে পায়ের সংখ্যা বাড়িয়ে দিয়ে ভারতের আক্রমণকে নির্বিষ করার পরিকল্পনা নিতে পারেন বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে। কড়া মার্কিংয়ে রাখা হবে ভারত অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীকে। সোমবারের সাংবাদিক বৈঠকে সুনীলকে ছুড়ে দেওয়া হয়েছিল প্রশ্ন, আপনার দিকে বিশেষ নজর রাখা হবে। কী ভাবে এড়াবেন? ভারত অধিনায়কের সাফ জবাব, তাঁকে যদি কড়া মার্কিংয়ে রাখাও হয়, তা হলেও কোনও সমস্যা নেই। বাকিরা গোল করতে দক্ষ।

কাতারের বিরুদ্ধে সুনীলকে ছাড়াই মাঠে নেমেছিল ভারত। সেই ম্যাচ ড্র করে এসেছিল স্তিমাচের দল। ভারত অধিনায়ক বলছেন, এই ভারতীয় দল আর সুনীল ছেত্রী নির্ভর নয়। তিনি না থাকলেও উদান্ত, বলবন্তরা গোল করতে পারবেন। সাম্প্রতিক কালে বাংলাদেশ হারাতে পারেনি ভারতকে। ২৮ বছর আগে কলম্বো সাফ গেমসের গ্রুপ পর্বে ভারতকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। যদিও তার পর গঙ্গা-পদ্মা দিয়ে গড়িয়ে গিয়েছে অনেক জল। এই মুহূর্তে ফিফা র‍্যাঙ্কিং-এ ভারতের থেকে ৮৩ ধাপ পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ ব্লু টাইগারদের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিল সেই ২০১৪ সালে। সে ম্যাচে সুনীল ছেত্রীর জোড়া গোলে ম্যাচ ড্র করে ভারত। সুনীলের শেষ মুহূর্তের গোলে সেদিন হার বাঁচিয়েছিল ভারত।

আরও পড়ুন: সৌরভের নেতৃত্বে উন্নতি করবে ভারতীয় ক্রিকেট, বলছেন লক্ষ্মণ

আরও পড়ুন: ভারত আর সুনীল নির্ভর নয়, বলছেন অধিনায়কই

আজ যুবভারতীতেও চোখ থাকবে ভারত অধিনায়কের দিকেই। বছরখানেক আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো আপলোড করেছিলেন সুনীল। সমর্থকদের মাঠে আসার অনুরোধ জানিয়েছিলেন সেই ভিডিয়োয়। মুহূর্তেই সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল।  তার পর থেকে দেশের যে প্রান্তেই সুনীলরা খেলতে নামেন, দর্শক উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো থাকে। যুবভারতীও ভরে উঠবে। আজ যুবভারতীর দর্শকরাই যে সুনীলদের দ্বাদশ ব্যক্তি।