• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন মর্গ্যান

Trevor Morgan
ফাইল চিত্র

অসুস্থ হয়ে লন্ডনের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছেন তাঁর মা। অথচ মাকে দেখতে যাওয়ারও উপায় নেই ট্রেভর জেমস মর্গ্যানের। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে এই মুহূর্তে তিনি গৃহবন্দি অস্ট্রেলিয়ার পার‌্‌থে। 

শনিবার দুপুরে আনন্দবাজারকে ফোনে প্রাক্তন ইস্টবেঙ্গল কোচ মর্গ্যান বলছিলেন, ‘‘আমার মায়ের বয়স ৯৩ বছর। তার উপরে কোনও কিছুই মনে রাখতে পারেন না। এই অবস্থায়, ইনফ্লুয়েঞ্জায় আক্রান্ত হয়েছেন।’’ যোগ করলেন, ‘‘বয়সের কারণে এমনিতেই রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গিয়েছে মায়ের। ফলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এই কারণেই কোনও ঝুঁকি না নিয়ে আমার বোন ওর বাড়ির কাছে একটি নার্সিংহোমে মাকে ভর্তি করিয়েছে। অবশ্য ও নিজেও এখন গৃহবন্দি।’’ আরও  বললেন, ‘‘বোনের উপরে প্রচণ্ড চাপ পড়ে যাচ্ছে। লকডাউনের কারণে খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোনো বন্ধ। তার উপরে মা অসুস্থ। এই সময় ওদের পাশে থাকতে পারলে সাহায্য করতে পারতাম। কিন্তু তার কোনও সম্ভাবনাই দেখছি না এই মুহূর্তে।’’ 

অস্ট্রেলিয়ার কী পরিস্থিতি এই মুহূর্তে? মর্গ্যান বললেন, ‘‘আদৌ ভাল নয়। প্রায় প্রতি ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। সারা বিশ্বের মতো এখানেও মানুষ সর্বক্ষণ আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। সংক্রমণের ভয়ে সকলে গৃহবন্দি। মাঝেমধ্যে বেরোচ্ছি  প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে।’’ কী ভাবে সময় কাটাচ্ছেন? হতাশ মর্গ্যান বললেন, ‘‘দিনের বেশির ভাগ সময়টাই  চলে যাচ্ছে নিউজ চ্যানেল দেখতে। ইংল্যান্ডে আমার আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলছি।। আর টেলিভিশনে পুরনো খেলা দেখছি, বই পড়ছি। তবে সময় কাটানো খুবই কঠিন। ফুটবল নিয়ে আলোচনা করার পরিস্থিতি নেই।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন