• শুভজিৎ মজুমদার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মাছের উৎসব ইংল্যান্ডের, স্তব্ধ ব্রাজিল

Paulinho
প্রস্তুতি: বিশ্বকাপে হারের পরের দিন ঘুরে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেল ব্রাজিলের। টিম হোটেলের জিমে পাওলিনহোরা। ছবি: সিবিএফ

এক দিকে চলছে উৎসব! অন্য শিবিরে স্বপ্নভঙ্গের যন্ত্রণা।

রাজারহাটে একই হোটেলে রয়েছে ব্রাজিল ও ইংল্যান্ড। কিন্তু অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল শেষ হওয়ার পর যেন পৃথিবীটাই বদলে গিয়েছে দুই শিবিরে।

কলকাতায় পা দেওয়ার পর থেকেই ইংল্যান্ডের ফুটবলার ও সাপোর্ট স্টাফ ভেটকির ভেল্কিতে কুপোকাত। যুবভারতীতে বুধবার রাতে ব্রাজিলকে হারিয়ে প্রথমবার ফাইনালে ওঠার উৎসবে ভেটকি মাছ থাকবে না, তা কি হতে পারে? টিম হোটেলে ফিরে রিয়ান ব্রিউস্টার-রা নৈশভোজ সেরেছে বাঙালির প্রিয় মাছের বিভিন্ন পদ দিয়ে। 

কিন্তু বিধ্বস্ত পাওলো হেনরিক সাম্পাইও ফিলহো (পাওলিনহো), লিঙ্কন ডস স্যান্টোস-রা বুধবার রাতে নৈশভোজ না সেরেই শুয়ে পড়েছিল। ব্রাজিল শিবিরের অন্দরমহলের খবর, ম্যাচের পর ড্রেসিংরুমে কয়েক টুকরো পিৎজা শুধু খেয়েছিল তারা। পাওলিনহো-দের পরিকল্পনা ছিল, টিম হোটেলে ফিরে জয়ের উৎসব পালন করা হবে। কিন্তু একা ব্রিউস্টার-ই সব ভেস্তে দিয়েছিল।

চব্বিশ ঘণ্টা পরেও ব্রাজিল শিবিরে ব্রিউস্টার আতঙ্ক দূর হয়নি!

আরও পড়ুন: ফাইনালে ট্রফি নিয়ে মাঝমাঠে সুনীল

আগামী শনিবার মালির বিরুদ্ধে তৃতীয় ও চতুর্থ স্থান নির্ণায়ক ম্যাচ। তার প্রস্তুতিতে বৃহস্পতিবার অনুশীলন করার পরিকল্পনা ছিল ব্রাজিল দলের। শেষ মুহূর্তে তা বাতিল করে দেন কোচ কার্লোস আমাদেউ। বিকেলে হোটেলের জিমেই রিকভারি সেশন হয় ফুটবলার। সেখানেই মানসিক ভাবে ভেঙে পড়া ফুটবলারদের উজ্জীবিতও করেন কার্লোস। জানা গিয়েছে এ দিনও তিনি লিঙ্কনদের বলেছেন, সেমিফাইনালে হার অবশ্যই যন্ত্রণাদায়ক। কিন্তু তা নিয়ে পড়ে থাকলে চলবে না। খেতাবের দৌড় থেকে আমরা ছিটকে গিয়েছি ঠিকই। কিন্তু বিশ্বকাপ এখনও শেষ হয়নি। শনিবার মালির বিরুদ্ধে খেলা বাকি আছে। ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিপর্যয়ের কারণ খুঁজতে বুধবার রাত থেকেই ময়নাতদন্তে নেমে পড়েন কার্লোস। টিম হোটেলে ফিরে ফুটবলাররা যে যার ঘরে চলে যাওয়ার পর সমস্ত সাপোর্ট স্টাফের সঙ্গে বসে ফের ম্যাচের ভিডিও রেকর্ডিং দেখেন ব্রাজিল কোচ। এ দিন প্রাতরাশ ও মধ্যাহ্নভোজের সময় ফুটবলারদের সঙ্গে আলোচনা করেন তিনি।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারের কারণ কী? ব্রাজিল শিবিরের অন্দরমহলের খবর, ময়নাতদন্তে মূলত দু’টো কারণ উঠে এসেছে। এক) ইংল্যান্ড তাদের চিরাচরিত ঘরানা অনুযায়ী লং পাসে ফুটবল খেলবে, এই ধারণা নিয়েই প্রস্তুতি সেরেছিল ব্রাজিল দল। কিন্তু বুধবার দেখা গেল নিজেদের মধ্যে ছোট-ছোট পাস খেলে আক্রমণ তৈরি করে অ্যালেন সৌজা-দের ছন্দ নষ্ট করে দিয়েছিল ইংল্যান্ডের ফুটবলাররা। দুই) ব্রিউস্টারের বিধ্বংসী পারফরম্যান্স। অনূর্ধ্ব-২৩ লিভারপুল দলের স্ট্রাইকার ঘনঘন জায়গা বদল করে বিভ্রান্ত করে দিয়েছিল ব্রাজিলের ডিফেন্ডারদের।

যুবভারতীতে বুধবার রাতে হারের পর হতাশ অ্যালান বলেছিল, ‘‘চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে এসেছিলাম। নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু শেষরক্ষা হল না।’’ চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই  হারের ধাক্কা অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছে লিঙ্কন, অ্যালান-রা। টিম হোটেলের জিমে রিকভারি সেশনে চনমনে মেজাজেই ছিল তারা। ব্যতিক্রম পাওলিনহো। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারের পর বুধবার রাতে মাঠের মধ্যেই কেঁদে ফেলেছিল ভাস্কো দ্য গামা ক্লাবের এই প্রতিশ্রুতিমান স্ট্রাইকার। বলেছিল, ‘‘নিজেদের ভুলেই আমরা জয় হাতছাড়া করেছি। প্রচুর গোলের সুযোগ নষ্ট করেছি। ব্যর্থতার জন্য আমরা ফুটবলাররাই দায়ী।’’ তার রেশ এখনও কাটিয়ে উঠতে পারিনি ব্রাজিল স্ট্রাইকার। ব্রাজিল দলের এক সদস্য বলছিলেন, ‘‘পাওলিনহো হার মেনে নিতে পারছে না। আমরা চেষ্টা করছি, ওকে স্বাভাবিক করে তোলার।’’

ব্রাজিলের মতো ইংল্যান্ড শিবিরেও এ দিন বাতিল করে দেওয়া হয় অনুশীলন। টানা ম্যাচ খেলে ক্লান্ত ফুটবলারদের বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ইংল্যান্ড কোচ স্টিভ কুপার।

বিকেলে কয়েক জন সাপোর্ট স্টাফ রাজারহাটের রাস্তায় হাঁটতে বেরিয়েছিলেন। জানালেন, অনুশীলন না করালেও ফুটবলারদের সঙ্গে স্ট্র্যাটেজি নিয়ে আলোচনা করেছেন কুপার। ব্রাজিলের বিরুদ্ধে কার কী ভুলত্রুটি হয়েছে, তা ব্যাখ্যা করেছেন। সেই সঙ্গে কুপার উদ্বিগ্ন ফুটবলারদের যাতে আত্মতুষ্টি গ্রাস না করে, তা নিয়ে। বারবার তিনি ফিলিপ ফডেন, কার্টিস অ্যান্ডারসন-দের মনে করিয়ে দিয়েছেন, ইংল্যান্ড কখনও অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ জেতেনি। তাই এখন উচিত  ব্রাজিল ম্যাচ ভুলে ফাইনালের জন্য মনঃসংযোগ করা। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন