• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কিবুর সঙ্গে হয়তো কেরলের পথে বেইতিয়ারাও

Kibu
দূরদর্শী: নতুন দল নিয়ে ভাবনা শুরু করলেন কিবু। ফাইল চিত্র

কিবু ভিকুনা থেকে মারিয়ো রিভেরা, ফ্রান গঞ্জালেস থেকে কাশিম আইদারা— করোনাভাইরাসের সংক্রমণে স্পেন এবং সেনেগালে থাকা তাঁদের পরিবারের মানুষদের নিয়ে চিন্তিত। প্রতি মুহূর্তে যোগাযোগ রাখছেন পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে। তেমনই তাঁরা চিন্তিত আই লিগ এবং নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়েও।

মোহনবাগানের স্পেনীয় কোচ প্রত্যেক দিনই ফুটবলারদের শারীরিক সক্ষমতা বজায় রাখতে নিজেদের কমপ্লেক্সে ট্রেনিং করাচ্ছেন। জোসেবা বেইতিয়াদের সঙ্গে ট্রেনিং-এ দেখা যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গলের অভিষেক আম্বেকরকেও। কিন্তু ট্রেনিং-র পরেই স্পেনে পরিবার এবং পোলান্ডে থাকা স্ত্রী-র সঙ্গে যোগযোগ শুরু করছেন তিনি। বলছিলেন, ‘‘স্পেনে আমার পরিবারের এমন কয়েকজন আছেন, যাঁদের বয়স সত্তরের বেশি। তাঁদের নিয়ে ভাবছি।’’ এটিকে কোচ আন্তোনিয়ো লোপেস হাবাস মাদ্রিদে গিয়ে বাধ্যতামূলক ভাবে পনেরো দিনের জন্য কোয়রান্টিনে চলে গিয়েছেন। ফেডারেশন লিগ বাতিল করে দিলেও কিবুদের দেশে ফেরার সুযোগ নেই। একই অবস্থা বেইতিয়া, মোরান্তেদের। বেইতিয়া বলছিলেন, ‘‘সকালে অনুশীলন ছাড়া বেশিরভাগ সময় বাড়িতেই থাকছি।’’ ইস্টবেঙ্গলের কোচ রিভেরার পাশাপাশি কাশিম আইদারা চিন্তিত সেনেগালে থাকা তাঁর পরিবারের জন্য।  বলেছেন, ‘‘ফ্রান্সের সীমান্তবর্তী অঞ্চলে আমার পরিবার থাকে। ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ আটকাতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে ফ্রান্সে। কী হবে জানি না।’’

দিল্লির খবর, করোনাভাইরাস যেভাবে ভারতে প্রত্যেক দিন ছড়িয়ে পড়ছে তাতে আই লিগ বাতিল করে দিতে পারে ফেডারেশন। সেটা হলে পরের মরসুমে ভবিষ্যৎ কী তা নিয়ে চিন্তিত খেতাবজয়ী ফুটবলাররা। এটিকের সঙ্গে সংযুক্তিকরণে পর মোহনবাগানের জনা চারেক ফুটবলারকে হয়তো দলে নেবেন হাবাস। আন্তোনিয়ো হাবাসের যে দল আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তাদের প্রায় সব ফুটবলারের সঙ্গেই চুক্তি রয়েছে দু’বছরের। এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নিলেও হাবাসের যা মনোভাব তাতে চোট পেয়ে পুরো মরসুম বসে থাকা জন জনসনের জায়গায় একজন বিদেশি হয়তো নিতে পারেন তিনি। বিদেশিদের মধ্যে মোহনবাগানের সঙ্গে দু’বছরের চুক্তি আছে শুধু ফ্রান গঞ্জালেসের। সেটা জানানো হয়েছে হাবাসকে। কিবুর দলের মাঝমাঠের ‘বস’ গঞ্জালেসকে পরের মরসুমে এটিকে মোহনবাগান জার্সি পরে তাই খেলতে দেখার সম্ভবনা বেশি। ভারতীয়দের মধ্যে শেখ সাহিল, শুভ ঘোষকে হয়তো নেবেন হাবাস। 

ন’ম্যাচে ১০ গোল করা পাপা বাবাকর দিয়োহারা সৌদি আরবের এক ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি করেছেন বলে খবর। কিবু ভিকুনা দুই সহকারী থোমাস ও ফিজিক্যাল ট্রেনার পাওলাসকে নিয়ে কেরল ব্লাস্টার্সে যাচ্ছেন। কোচির খবর, মোহনবাগানের তুলনায় দ্বিগুণ টাকায় কেরলের সঙ্গে চুক্তি করেছেন স্পেনীয় কোচ। তাঁর সঙ্গে কেরলে যেতে পারেন জোসেবা বেইতিয়া এবং ফ্রান মোরান্তে। ননগোম্বা নওরেম আবার কেরলে ফিরে যাচ্ছেন। কিবু নিতে পারেন কেরলের সুহের ভিপি এবং ব্রিটো পি এমকে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন