প্যারা এশিয়ান গেমসের পঞ্চম দিনে রিকার্ভ তিরন্দাজিতে দেশের জন্য সোনা আনলেন হরবিন্দর সিংহ। একই দিনে, যুব অলিম্পিক্সের এয়ার পিস্তল বিভাগে সোনা জিতল ভারতের সৌরভ চৌধরি।

প্যারা এশিয়ান গেমসের রিকার্ভ তিরন্দাজির ডব্লিউ২ বিভাগের প্রত্যেককেই হুইলচেয়ার ব্যবহার করেত হয়। প্যারাপ্লেজিয়া (কোমরের নীচের দিকে অক্ষমতা), ডাইপ্লেজিয়া (হাঁটার অক্ষমতা)-এ আক্রান্ত অ্যাথলিটেরা এই বিভাগে লড়েন। অন্য দিকে এসটি বিভাগের অ্যাথলিটেরা হুইলচেয়ার ছাড়াও লড়তে পারেন। যেখানে ২৭ বছর বয়সি হরবিন্দর শারীরিক অক্ষমতাকে জয় করে ভারতকে পদক এনে দিয়েছেন।  

অন্য দিকে, যুব অলিম্পিক্সে মেয়েদের শুটিংয়ে মনু ভাকের সোনা জেতার পরের দিনই ১০ মিটার এয়ার পিস্তল বিভাগের সেরা হল মেরঠের ১৬ বছর বয়সি শুটার। ফাইনালে ২৪৪.২ পয়েন্ট পায় সৌরভ। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় হয় দক্ষিণ কোরিয়ার সুং ইউনহো। তার প্রাপ্তি ২৩৬.৭ পয়েন্ট।

যুব অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জন পর্বেও ৫৮০ পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে ছিল সৌরভ। সেই ছন্দই ধরে রেখেছে যুব অলিম্পিক্সে। বুধবার প্রথম চার শটের একটিও দশের কাঁটা ছোঁয়েনি সৌরভের। যে ঘাটতি পরের চারটি শটে (১০.৭, ১০.৪, ১০.৪, ১০.০) পূরণ করে দেয় তরুণ। 

ভারতীয় শুটারের কাছাকাছিই ছিলেন সুইৎজারল্যান্ডের সোলারি জেসন। শেষ শটে ৮.৫ মেরে পিছিয়ে পড়তে হয় তাকে। তরুণ শুটারের সোনা জয়ের পরে শুটিংয়ের চার দিনে চার পদক পেল ভারত। শাহু মানে, মেহুলি ঘোষ, মনু ভাকের ও সৌরভ দেশের জন্য পদক এনেছে।

প্যারা এশিয়ান গেমসে হরবিন্দরের সোনা জেতার দিনই প্যারা অ্যাথলেটিক্স, দাবা ও টেবল টেনিসে পদক পেয়েছে ভারত। দিনের শুরুতেই ভারতকে পদক এনে দিয়েছেন মনু ঘাঙ্গাস। পরুষদের ডিসকাস থ্রোয়ে এফ১১ বিভাগে রুপো পেয়েছেন তিনি। ৩৫.৮৯ মিটার ছুড়েছেন মনু। এফ১১ বিভাগের অ্যাথলিটদের সমস্যা চোখে।

দিনের দ্বিতীয় পদকটি আসে বিজয় কুমারের হাত থেকে। লং জাম্পে টি৪২-টু৬১-টি৬৩ বিভাগে ৫.০৫ মিটার অতিক্রম করে রুপো পেলেন। শ্রীলঙ্কার চরিতা নির্মলা বুদ্দিকার বিরুদ্ধে হারতে হয় তাঁকে। তিনি ৫.২২ মিটার পার করতে পেরেছেন। বিজয়ের সমস্যা, দু’পায়ে সমান জোর পান না। 

রুপো আসে টেবল টেনিসেও। মেয়েদের ডাবলসের ফাইনালে ইন্দোনেশিয়ার আসায়ুত দরারত ও পাত্তারবাদি ওয়ারারিদামরোংকুলের বিরুদ্ধে ৪-১১, ১২-১৪ হারে ভারতের ভবানীবেন পটেল ও সোনালবেন পটেলের জুটি। দাবাতেও পিছিয়ে নেই ভারত। বুধবার একটি রুপোর পাশাপাশি দু’টি ব্রোঞ্জও জেতে। মেয়েদের ব্যক্তিগত পি১ বিভাগে রুপো পেলেন ভারতের জেনিতা অ্যান্টো। পাশাপাশি দলগত বিভাগে প্রেম কণিশ্রীর সঙ্গে ব্রোঞ্জও জেতেন তিনি। মেয়েদের দলগত বি২বি৩ বিভাগে দেশকে ব্রোঞ্জ এনে দিলেন ম্রুনালি প্রকাশ, মেঘা চক্রবর্তী ও তিজন পুণরাম।