অলিম্পিক্স যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভারত-পাক মুখোমুখি হলে সে ম্যাচ হবে নিরপেক্ষ মাঠে। সম্ভবত ইউরোপে হোম ও অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলতে হবে দুই দেশকে। 

বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের বৈঠকে দুই দেশকে আলাদা গ্রুপে রাখার কথাও হয়। কিন্তু একান্তই যদি দুই দেশের ম্যাচ পড়ে, তা হলে অবশ্যই তা ভারত বা পাকিস্তানে আয়োজন করার সম্ভাবনা কম। 

পাকিস্তান হকি ফেডারেশনের এক কর্তা জানিয়েছেন, যোগ্যতা অর্জন পর্বের সূচি দ্রুতই প্রকাশ করা হবে। শনিবার সংবাদ সংস্থাকে তিনি বলেন, ‘‘সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের যোগ্যতা অর্জন পর্বে র‌্যাঙ্কিংয়ে উপরের দিকের দলগুলোকে নীচের দিকের দলের বিরুদ্ধে খেলতে হবে। সে ক্ষেত্রে পাকিস্তান ও ভারতের মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ অনেকটাই বেশি।’’ ভারত, পাকিস্তান, মিশর, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নিউজ়িল্যান্ডের সঙ্গে আরও সাতটি দল খেলবে যোগ্যতা অর্জন পর্বে। তবে সেই পাক বোর্ড-কর্তা নিশ্চিত যে, ভারত পাক ম্যাচ পড়লে তা কখনওই উভয় দেশে হওয়া সম্ভব নয়। এরই মধ্যে শনিবার ৩৩ জনের প্রাথমিক ভারতীয় দল ঘোষণা করা হল। ৩১ বছর বয়সি গোলকিপার পি আর সৃজেশকে রেখেই দল গড়ল ভারতীয় হকি ফেডারেশন। রয়েছেন তরুণ গোলকিপার কৃষাণ পাঠকও। রক্ষণে রাখা হয়েছে কোঠাজিত সিংহ, হরমনপ্রীত সিংহ, বীরেন্দ্র লাকরা, অমিত রোহিদাসদের। মাঝমাঠে রয়েছেন মনপ্রীত সিংহের মতো তারকা। ফরোয়ার্ডে আক্রমণ ভাগে রয়েছেন মনদীপ সিংহ, ললিত কুমার উপাধ্যায়, সিমরনজিৎ সিংহরা। 

আপাতত এই ৩৩জনকে নিয়ে ২ সেপ্টেম্বর থেকে চলবে আবাসিক শিবির বেঙ্গালুরুর সাই-তে কোচ গ্রাহাম রিডের প্রশিক্ষণে। শিবির শেষেই বেলজিয়াম সফর ও অলিম্পিক্স যোগ্যতা অর্জন পর্বের দল ঘোষণা করা হবে। এ দিন দল ঘোষণার শেষে কোচ গ্রাহাম রিড বলেন, ‘‘গত কয়েক মাসে দলের গতি বাড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে। আগের চেয়ে দলের গতি যে বেড়েছে তা উপলব্ধি করা যাচ্ছে।’’