আইএসএল ড্রাফটিং শেষ। এ বারের মতো দল পেয়ে গেলেন অনেকেই। অনেকেই ফিরলেন খালি হাতে। যদিও তাঁদের জন্য জাল ফেলে বসে রয়েছে আই লিগ ক্লাবগুলো। তাই খেলোয়াড়দের ফুটবলের বাইরে থাকতে হবে, এমনটা হয়তো নয়।

এই তালিকায় এমন অনেকেই ছিলেন, যাঁরা আইএসএল খেলবেন বলে নাম লেখাননি আই লিগ ক্লাবে। তাই সকাল থেকেই ফুটবলাররা দুরু দুরু বুকে চোখ রেখেছিলেন মোবাইল স্ক্রিনে বা টেলিভিশনের পর্দায়। কী খবর আসছে তাঁদের জন্য? কোন জার্সি পরতে চলেছেন তাঁরা? রবিবার দিনের শেষে সবটা পরিষ্কার হয়ে গেল। ড্রাফট শেষে কারও বাড়িতে উৎসব তো কারও কেরিয়ারে নেমে এল হতাশা। দল পেলেন না নবি, সৌমিকরা। সুব্রত পালরা ফিরলেন ছোটবেলার জামশেদপুরে। আনাসেরও জায়গা হল সেখানেই। কলকাতায় এ বার এই মুহূর্তের সেরা মিডিও ইউজিনসন লিংদো।

আরও খবর: ভারতীয় ফুটবলের আকাশে নবি, অভ্রদের হঠাৎ প্রত্যাবর্তন

আইএসএল-এর নিয়ম অনুযায়ী এ দিন মোট ১৫ রাউন্ডে শেষ হয় ড্রাফট প্রক্রিয়া। সেখান থেকে দেশি ফুটবলারদের বেছে নেয় ক্লাবগুলো। প্রতি দলের মোট স্যালারি ক্যাপ ১৮ কোটি। যার মধ্যে সাড়ে ১২ কোটি বিদেশিদের জন্য। দলে মোট ২৫ জন ফুটবলার থাকতে পারবেন। তার মধ্যে সর্বাধিক ১৮ জনকে এ দেশের প্লেয়ার হতে হবে। সব মিলে জমজমাট ছিল এ দিনের আইএসএল ড্রাফটিং। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক কার জায়গা হল কোন দলে।

জামশেদপুর এফপি

আবির্ভাবেই দারুণ দল বানিয়ে ফেলল জামশেদপুর এফসি। প্রাক্তন ছাত্রদের সঙ্গে তুলে নিল এই মুহূর্তে দেশের সেরা ও সব থেকে দামি ডিফেন্ডারকে। ৮৭ লাখে সুব্রত পালের মতো প্রাক্তন ছাত্র যেমন গেলেন সঙ্গে থাকলেন আনাসও। সেই তালিকায় নাম লিখিয়ে ফেললেন মেহতাব থেকে বাংলার দুই সৌভিকও।

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
1 আনাস এদাথোডিকা ১.১ কোটি ডিফেন্ডার
সুব্রত পাল ৮৭ লাখ গোলকিপার
মেহতাব হোসেন ৫০ লাখ মিডফিল্ডার
সৌভিক চক্রবর্তী ৪৫ লাখ মিডফিল্ডার
রবিন গুরুং ৩১ লাখ ডিফেন্ডার
বিকাশ জাইরু ৫৫ লাখ মিডফিল্ডার
জেরি ৫৫ লাখ ডিফেন্ডার
সৌভিক ঘোষ ১৮ লাখ ডিফেন্ডার
সাইরুয়াত কিমা ১০ লাখ ডিফেন্ডার
১০ সঞ্জীবন ঘোষ ৮ লাখ গোলকিপার
১১ ফারুখ চৌধুরী ৭ লাখ  স্ট্রাইকার
১১২ সুমিত পাসি ১৫ লাখ স্ট্রাইকার
১৩ য়ুমনাম রাজু ১২ লাখ ডিফেন্ডার
১৪ অসীম বিশ্বাস ১০ লাখ  স্ট্রাইকার
১৫ সিদ্ধার্থ সিংহ ৫ লাখ  

দিল্লি ডায়নামোস

বাংলার প্রতিশ্রুতিমান রাইটব্যাককে তুলে নিল দিল্লি। প্রীতম কোটালকে তারা দলে নিল ৭৫ লাখে। সেই তালিকায় থাকলেন তিন গোলকিপার। অর্ণব দাশশর্মা দিল্লিতে গেলেন ১২ লাখে। বড় নাম বলতে অবশ্যঅ রোমিও ফার্নান্ডেজ, রোউইলসন রডরিগেজরা।

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
আলবিনো গোমস ৫০ লাখ গোলকিপার
প্রীতম কোটাল ৭৫ লাখ ডিফেন্ডার
লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে ১৫ লাখ মিডফিল্ডার
সেনা রালতে ২৭ লাখ ডিফেন্ডার
সেত্যাসেন সিংহ ৫০ লাখ ডিফেন্ডার
প্রতীক চৌধুরী ৩০ লাখ  ডিফেন্ডার
বিনীত রাই ১২ লাখ মিডফিল্ডার
রোমিও ফার্নান্ডেজ ৫০ লাখ মিডফিল্ডার
ডেভিড নাইতে ১২ লাখ মিডফিল্ডার
১০ সুখদেব পাতিল ১০ লাখ গোলকিপার
১১ সাজিত ধোত ১০ লাখ ডিফেন্ডার
১২ রোলিনসন রডরিগেজ ২০ লাখ মিডফিল্ডার
১৩ মুনমুন লুগুন ১০ লাখ ডিফেন্ডার
১৪ অর্ণব দাশশর্মা ১২ লাখ  গোলকিপার
১৫ সিমরানজিৎ সিংহ জানা যায়নি  

কেরল ব্লাস্টার্স

বেঙ্গালুরু ও কেরলের হয়ে সাফল্যের সঙ্গে আই লিগ ও আইএসএল খেলা সিকে বিনিথ এ বারও থেকে গেলেন কেরল ব্লাস্টার্সে। এই দলের একমাত্র বাঙালি মুখ অবশ্য গোলকিপার শুভাশিষ রায়চৌধুরী। ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়া জাপানি মিডিও আরাতা ইজুমিকেও নিল সচিনের দল। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  সিকে বিনিথ ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
  সন্দেশঝিঙ্গান ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
  প্রশান্থ কারুথাডাথকুনি ধরে রাখা প্লেয়ার স্ট্রাইকার
রিনো অ্যান্টো ৬৩ লাখ ডিফেন্ডার
লালরুয়াথারা ২৫ লাখ ডিফেন্ডার
মিলন সিংহ ৪৫ লাখ মিডফিল্ডার
ইজুমি আরাতা ৪০ লাখ মিডফিল্ডার
শুভাশিস রায় চৌধুরী ৩৭ লাখ গোলকিপার
জ্যাকিচাঁদ সিংহ ৫৫ লাখ  মিডফিল্ডার
সিয়াম হাঙ্গাল ৩১ লাখ মিডফিল্ডার
১০ লালথাকিমা ১০ লাখ ডিফেন্ডার
১১ প্রীতম কুমার সিংহ জানা যায়নি ডিফেন্ডার
১২ স্যামুয়েল সাদাপ ১০ লাখ ডিফেন্ডার
১৩ লোকেন মিতেই ৬ লাখ মিডফিল্ডার
১৪ করণ সাওনি ৮ লাখ  স্ট্রাইকার
১৫ অজিথ সিভান ৬ লাখ মিডফিল্ডার

নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড এফসি

নর্থ-ইস্টে গেলেন নির্মল ছেত্রী। এ বার বেশ ভাল দল বানাল উত্তর-পূর্ব ভারতের এই দল। রোলিন বর্জেস ও টিপি রহেনেশকে ধরে রাখার সঙ্গেই তুলে নিল লালরিনডিকা রালতে, রবার্ট, দঙ্গেলদের। ড্রাফটে নর্থ-ইস্টের সব থেকে দামি ফুটবলার ডিকার দাম উঠল ৫০ লাখ। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  রোলিন বর্জেস ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
  টিপি রেহনেশ ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
হোলিচরণ নার্জারি ৪৫ লাখ মিডফিল্ডার
নির্মল ছেত্রী ৩৫ লাখ ডিফেন্ডার
লালরিনডিকা রালতে ৫০ লাখ মিডফিল্ডার
রবার্ট ২৫ লাখ ডিফেন্ডার
মেমিনলেন দঙ্গেল ৩৭.৫ লাখ স্ট্রাইকার
রেগান সিংহ ২৫ লাখ ডিফেন্ডার
রবি কুমার ১৫ লাখ গোলকিপার
১০ গুরসিমরাত গিল ৬ লাখ ডিফেন্ডার
১১ মালেমগানবা মিতেই ১৬ লাখ মিডফিল্ডার
১২ আবদুল হাক্কু ১২ লাখ ডিফেন্ডার
১৩ লালরিমপুঁইয়া ফানাই ৮ লাখ মিডফিল্ডার
১৪  সুশীল মিতেই ৬ লাখ  
১৫ গুরপ্রীত সিংহ ৭ লাখ স্ট্রাইকার

এফসি গোয়া

লক্ষ্মীকান্ত কাট্টিমনী ও মান্দার রাও দেশাইকে ধরে রাখার সঙ্গে সঙ্গেই এফসি গোয়া তুলে নিল গোয়ায় নিয়মিত খেলা দুই বঙ্গ সন্তানকে। নারায়ন দাসও প্রণয় হালদারকে তারা কিনল ৫৮ লাখে। এ ছাড়া বেশির ভাগই স্থানীয় প্লেয়ার। শে ব্রেন্ডন হোক বা ব্রুনো গোলাসো। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  লক্ষ্মীকান্ত কাট্টিমনী ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
  মন্দার রাও দেশাই ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
নারায়ন দাস ৫৮ লাখ ডিফেন্ডার
প্রণয় হালদার ৫৮ লাখ মিডফিল্ডার
চিংলেনসেনা সিংহ ১৯ লাখ ডিফেন্ডার
ব্রেন্ডন ফার্নান্ডেজ ২৭.৫ লাখ মিডফিল্ডার
সেরিটন ফার্নান্ডেজ ১৫ লাখ মিডফিল্ডার
প্রতেশ শিরোদকার ২৪ লাখ মিডফিল্ডার
নবীন কুমার ৬ লাখ  গোলকিপার
১০ মহম্মদ আলি ১লাখ ডিফেন্ডার
১১ জোভেল মার্টিন্স   মিডফিল্ডার
১২ অ্যামি রানাওয়াদে ৬ লাখ ডিফেন্ডার
১৩ অ্যান্থনী ডি’সুজা ১৬ লাখ মিডফিল্ডার
১৪ মহম্মদ ইয়াসির ৭ লাখ  
১৫ ব্রুনো কোলাসো  ১০ লাখ  গোলকিপার

বেঙ্গালুরু এফসি

সুনীল ছেত্রী, উদান্ত সিংহরা তো ছিলেনই আই লিগ দল থেকে। ড্রাফটে বেঙ্গালুরু এফসির সব থেকে দামি প্লেয়ার প্রাক্তন ইস্টবেঙ্গল মিডিও হরমনজ্যোৎ সিংহ খাবরা। যে শুভাশিস বোসের আইএসএল-এ নাম লেখানো মানতে পারেননি মোহনবাগান কোচ সঞ্জয় সেন তিনিও গেলেন বেঙ্গালুরুতে।

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  সুনীল ছেত্রী ধরে রাখা প্লেয়ার স্ট্রাইকার
  উদান্ত সিংহ ধরে রাখা প্লেয়ার স্ট্রাইকার
  নিশু কুমার ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
  মালসোয়ামজুলা ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
লালথুয়ামমাউইয়া রালতে ৩৭ লাখ গোলকিপার
রাহুল ভেকে ৪৩ লাখ  ডিফেন্ডার
হরমনজ্যোত খাবরা ৫৩ লাখ মিডফিল্ডার
শুভাশিস বসু ১৭ লাখ ডিফেন্ডার
অলউইন জর্জ ১৫ লাখ মিডফিল্ডার
লেনি রডরিগেজ ৬০ লাখ মিডফিল্ডার
জোমিংলিয়ানা রালতে ২৫ লাখ ডিফেন্ডার
১০ থংকোসিয়েম হাওকিপ ৩০ লাখ স্ট্রাইকার
১১ অভ্র মণ্ডল ১০ লাখ গোলকিপার
১২ বইথাং হাওকিপ ২০ লাখ  মিডফিল্ডার
১৩ কলিন আব্রাঞ্চেজ ১৩ লাখ ডিফেন্ডার
১৪ জনের লোরেঙ্কো ৮ লাখ ডিফেন্ডার
১৫  কেলভিন অভিষেক ৪ লাখ মিডফিল্ডার

অ্যাটলেটিকো কলকাতা

কলকাতা আগেই দেবজিৎ মজুমদার ও প্রবীর দাসকে দলে নিয়েছিলেন। এ বার সব থেকে দামি একজনকে জামশেদপুর নিলেও অন্য জন ইউজিনসন লিংদোকে তুলে নিল সৌরভের দল। এলেন রবিন সিংহ। অনুশীলনে অসুস্থ হয়ে পরার পর আবার ফিরছেন আনোয়ার আলি। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  দেবজিৎ মজুমদার ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
  প্রবীর দাস ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
ইউজিনসন লিংদো ১.১ কোটি মিডফিল্ডার
জয়েশ রানে ৪৯ লাখ মিডফিল্ডার
কেগান পেরেরা ২৮ লাখ ডিফেন্ডার
শঙ্কর সাম্পিংগিরাজ ২৫ লাখ মিডফিল্ডার
আনোয়ার আলি ৩৫ লাখ ডিফেন্ডার
হিতেশ শর্মা ১০ লাখ মিডফিল্ডার
রবিন সিংহ ৬৫ লাখ  স্ট্রাইকার
১০ রুপার্ট ননগ্রুম ৪৯ লাখ মিডফিল্ডার
১১ আসুতোষ মেহতা ৪৫ লাখ ডিফেন্ডার
১২ অগাস্টিন ফার্নান্ডেজ ৩০ লাখ ডিফেন্ডার
১৩ রোনাল্ড সিংহ ১০ লাখ ফরোয়ার্ড
১৪ কুনজাং ভুটিয়া ১০ লাখ গোলকিপার
১৫ বিপিন সিংহ   স্ট্রাইকার

চেন্নাইয়ান এফসি

একদল বড় নাম জেজে, করনজিৎ, জেরিদের ধরেই রেখেছিল চেন্নাইয়ান। এ বার তুলে নিলেন বিক্রমজিৎ সিংহ, ধনাচন্দ্রা সিংহ, সঞ্জয় বালমুচুদের। অভিষেক বচ্চনের দল এ বারও কোমর বেঁধেই নামতে চলেছে। এই দলের সব থেকে কম দাম পেলেন স্ট্রাইকার মহম্মদ রফি।

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  জেজে লালপেখলুয়া ধরে রাখা প্লেয়ার স্ট্রাইকার
  করনজিৎ সিংহ ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
  জেরি লালরিনজুয়ালা ধরে রাখা প্লেয়ার ডিফেন্ডার
  অনিরুদ্ধ থাপা ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
থই সিংহ ৫৭ লাখ মিডফিল্ডার
বিক্রমজিৎ সিংহ ৫২ লাখ মিডফিল্ডার
ধনচন্দ্র সিংহ ৫০ লাখ ডিফেন্ডার
জার্মানপ্রীত সিংহ ১২ লাখ মিডফিল্ডার
ফুলগানকো কার্ডোজো ৩০ লাখ ডিফেন্ডার
পবন কুমার ২৫ লাখ গোলকিপার
১০ কেনান আলমিরা ২০ লাখ ডিফেন্ডার
১১ মহম্মদ রফি ৩ লাখ স্ট্রাইকার
১২ ধনপাল গনেশ ৪৪ লাখ মিডফিল্ডার
১৩ সঞ্জয় বালমুচু ৮ লাখ ডিফেন্ডার
১৪ ফ্রান্সিসকো ফার্নান্ডেজ ২০ লাখ মিডফিল্ডার
১৫ শাহিনলাল ৮ লাখ গোলকিপার

মুম্বই সিটি এফসি

মুম্বই সব থেকে বেশি দামে কিনল স্ট্রাইকার বলবন্ত সিংহকে। তাঁর দাম উঠল ৬৫ লাখে। তার পরই থাকলেন বাংলার গোলকিপার অরিন্দম ভট্টাচার্য। গত মরসুমে দারুণ খেলেছিলেন। এ ছাড়া বিতর্কীত অবিনাশ রুইদাসকেও তুলে নিল মুম্বই। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  অমরিন্দর সিংহ ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
  শেহনাজ সিংহ ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
  রাকেশ ওরাম ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
বলবন্ত সিংহ ৬৫ লাখ স্ট্রাইকার
অরিন্দম ভট্টাচার্য ৬৪ লাখ গোলকিপার
রাজু গায়কোয়াড় ৪৭ লাখ ডিফেন্ডার
অবিনাশ রুইদাস ১৮ লাখ মিডফিল্ডার
সাহিল তাভোরা ৬ লাখ মিডফিল্ডার
আইবরলাং খোনজি ৩৫ লাখ ডিফেন্ডার
সঞ্জু প্রধান ৩০ লাখ মিডফিল্ডার
১০ জাকির মুন্ডামপারা ১৮ লাখ মিডফিল্ডার
১১ বিশ্বজিৎ সাহা ৬ লাখ ডিফেন্ডার
১২ প্রাঞ্জল ভুমজি ৬ লাখ স্ট্রাইকার
১৪ লালচাওনকিমা ২০ লাখ ডিফেন্ডার
১৫ কুনাল সাওয়ন্ত ১৫ লাখ গোলকিপার

এফসি পুণে সিটি

পুণে সিটিতে জায়গা করে নিলেন বাংলার জুয়েল রাজা। অনেকদিন পর আবার দেখা যাবে পঞ্জাবী স্ট্রাইকার বলজিৎ সিংহকেও। পুণের সব থেকে দামি ফুটবলার কেন লুইস। তাঁর দাম ৪০ লাখ। তবে পুণে দলে রয়েছে বেশ কিছু অনামী মুখ। যাঁর যে কোনও সময় বদলে দিতে পারে ম্যাচের ভাগ্য। 

রাউন্ড প্লেয়ার মূল্য পজিশন
  বিশাল কেইথ ধরে রাখা প্লেয়ার গোলকিপার
  আশিক কুরুনিয়ান ধরে রাখা প্লেয়ার মিডফিল্ডার
আদিল খান ৩২ লাখ মিডফিল্ডার
কেন লুইস ৪০ লাখ মিডফিল্ডার
লালচুয়ানমুইয়া ফানাই ৪৫ লাখ ডিফেন্ডার
জুয়েল রাজা ২৬ লাখ মিডফিল্ডার
নিম দর্জি তামাং ১৫ লাখ ডিফেন্ডার
ইসাক ভানমালসোয়ামা ১৫ লাখ মিডফিল্ডার
হরপ্রীত সিংহ ৬ লাখ মিডফিল্ডার
ওয়েন ভাজ ৮ লাখ ডিফেন্ডার
১০ কমলজিৎ সিংহ ১ লাখ ডিফেন্ডার
১১ বলজিৎ সাইনি ৩৭ লাখ স্ট্রাইকার
১২ রোহিত কুমার জানা যায়নি মিডফিল্ডার
১৩ অজয় সিংহ ৮ লাখ স্ট্রাইকার
১৪ গুরতেজ সিংহ ১২ লাখ  ডিফেন্ডার
১৫ পবন কুমার ২৫ লাখ ডিফেন্ডার