• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্লাজ়ার বিপজ্জনক দৌড় নিেয়ই যত উদ্বেগ কিবুর

Kibu
সতর্ক: বুধবার প্রস্তুতির ফাঁকে কোচ কিবু। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

কিবু ভিকুনা যখন যুবভারতী সংলগ্ন মাঠে অনুশীলনের পরে ড্রেসিংরুম থেকে বেরোচ্ছেন, তখন গোয়ায় চার্চিল ব্রাদার্স দু’গোল দিয়ে দিয়েছে রিয়াল কাশ্মীরকে। শেষ পর্যন্ত চার্চিল ২-১ গোলে জিতে পয়েন্ট টেবলের তিন নম্বরে উঠে এল। গোল করেন উইলিস প্লাজ়া এবং লালকাপুইমাইয়া। চূড়ান্ত পেশাদার স্পেনীয় কোচের মুখের অবয়বে অবশ্য কোনও পরিবর্তন হয়নি। বরং বলতে শোনা গেল, ‘‘কে কোথায় জিতল বা হারল, তা নিয়ে মাথা ঘামাতে রাজি নই।  আমাদের লক্ষ্য শেষ পর্যন্ত শীর্ষে থাকা।’’

আজ, বৃহস্পতিবার সকালের বিমানে মারগাও যাচ্ছে মোহনবাগান। জোসেবা বেইতিয়াদের খেলতে হবে চার্চিল ব্রাদার্সের সঙ্গেই। বুধবারের ম্যাচ জিতে খেতাবের অন্যতম দাবিদার হিসাবে উঠে এসেছে গোয়ার ক্লাব। শুধু তাই নয়, কিবু-বাহিনী এ বার একটি ম্যাচই এখনও পর্যন্ত হেরেছে এবং সেটা প্লাজ়ার দলের কাছেই। শুধু সদস্য সমর্থকরাই নন, কর্তারাও সম্ভবত ধরে নিয়েছেন চার্চিলকে হারাতে পারলেই খেতাব মুঠোয় এসে যাবে। শীর্ষ কর্তারা তাই ভিড় জমিয়েছিলেন মাঠে। কিবু অবশ্য চূড়ান্ত পেশাদার ভঙ্গীতে বললেন, ‘‘প্রথম পর্বের সঙ্গে শনিবারের ম্যাচের তুলনা করবেন না। চার্চিলও বদলেছে। দু’দলেই নতুন কিছু ফুটবলার এসেছে। আবার আমরাও আগের চেয়ে অনেক ভাল খেলছি।’’ প্লাজ়াকে যে তিনি সব চেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন, তা সবুজ-মেরুন কোচের কথাতেই স্পষ্ট। বললেন, ‘‘চার্চিলের আক্রমণভাগ শক্তিশালী। সব চেয়ে বিপজ্জনক প্লাজ়ার তিরিশ গজের দৌড়। সঙ্গে দাওদে সিসে, সক্রেটেস পেদ্রোও খুব ভাল খেলছে।’’

প্লাজ়া যে তাঁর রাতের ঘুম কেড়েছে, তা  এ দিন বিকেলের অনুশীলনে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। আশুতোষ মেহতা, ড্যানিয়েল সাইরাস, ফ্রান মোরান্তে, গুরজিন্দর কুমার— এই চারজনকে দাঁড় করিয়ে দু’দিকের উইং এবং কর্নার থেকে বল তুলে রক্ষণকে সুরক্ষিত করার অনুশীলন করিয়েছেন কিবু। বলছিলেন, ‘‘প্লাজ়া এবং সিসে খুব ভাল হেড করে। সেটা মাথায় রাখছি।’’  কত পয়েন্ট পেলে চ্যাম্পিয়ন হবেন? কিবু প্রশ্ন শুনে ক্ষুব্ধ। বললেন, ‘‘আমি অঙ্কবিদ নই যে, বলব ৪১ বা ৪৫ পয়েন্ট হলেই চ্যাম্পিয়ন হব।’’     

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন