রবিবারই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। কিন্তু খেতাব জয়ের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই সমস্যার মুখে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। 

ইউরোপের ফুটবলের আর্থিক নিয়ন্ত্রক কমিটির একটা বড় অংশ ইতিমধ্যেই প্রস্তাব রেখেছে, ফুটবলার কেনাবেচা করতে গিয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা বজায় রাখেনি ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। তাই এই দলটিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে নির্বাসিত করা হোক। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইংল্যান্ডের এই ফুটবল ক্লাবটি। তাদের পাল্টা বক্তব্য, কলুষিত করতেই এই অভিযোগ চাপানো হয়েছে ক্লাবের উপর।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত চলছে। তদন্ত কমিটি খতিয়ে দেখছে, আদৌ ম্যান সিটি ইউরোপের ফুটবলের আর্থিক নিয়ন্ত্রক কমিটিকে অন্ধকারে রেখে নির্ধারিত অর্থের চেয়ে বেশি ব্যয় করে দল গড়েছে কি না। তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন উয়েফা ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আয়োজকদের প্রতিনিধিও। এ ছাড়াও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের তরফেও তদন্ত চলছে বিষয়টি নিয়ে। 

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

সম্প্রতি জার্মান পত্রিকা  ‘দেয়ার স্পিগেল’ এক অনুসন্ধানভিত্তিক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ম্যাঞ্চেস্টার সিটি দলগঠন করতে গিয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা বা ‘ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’-র নিয়ম লঙ্ঘন করেছে। ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছিল, উয়েফার আর্থিক নিয়ন্ত্রক বোর্ডের তদন্তকারীরা ম্যাঞ্চেস্টার সিটির অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য দু’সপ্তাহ আগেই সুইৎজ়ারল্যান্ডে বৈঠকে বসেছিলেন। তবে ম্যান সিটিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে নির্বাসিত করার কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। 

নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, তদন্তকারী এই দলের নেতা বেলজিয়ামের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইভে লোতারমা।