প্রশংসিত ময়াঙ্ক

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স স্কাউটরা তাঁর প্রতিভার খোঁজ পেয়ে ট্রায়ালে ডেকেছিলেন তাঁকে। সেই পরীক্ষায় পাশ করেই রোহিত শর্মার দলে ঢুকে পড়েছিলেন লেগ স্পিনার ময়াঙ্ক মার্কণ্ডে। সেই ময়াঙ্ক আইপিএল-এ তাঁর প্রথম ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্স করলেন। নতুন এই স্পিনারের প্রশংসা করছেন দলের কোচ মাহেলা জয়বর্ধনেও। সিএসকে-র বিরুদ্ধে ২৩ রানে তিন উইকেট পেয়েছেন ময়াঙ্ক। যার মধ্যে রয়েছেন বিপক্ষ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনিও। ময়াঙ্কের গুগলিতে ঠকে গিয়েছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। বিজয় হজারে এবং সৈয়দ মুস্তাক আলি টুর্নামেন্টে ১০ ম্যাচে ১৫ উইকেট পেয়েছিলেন পঞ্জাবের এই তরুণ ক্রিকেটার।

 

চমক ৪০০

আইপিএল-এর প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিলেন দুই ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কায়রন পোলার্ড এবং চেন্নাই সুপার কিংসের ডোয়েন ব্র্যাভো। শনিবার দু’জনেই আইপিএল-এর উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন ৪০০ নম্বর জার্সি গায়ে। কেন দুই ক্যারিবিয়ানের গায়ে একই নম্বরের জার্সি? সেই রহস্য ম্যাচ শেষে ফাঁস করেছেন ব্র্যাভো। বলছেন, ‘‘প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে চারশো টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে পোলার্ড। তাই ওর পিঠে চারশো নম্বর। আর আমিও ৪০০ উইকেট পেয়েছি প্রথম বোলার হিসেবে। তাই ভারতে আসার আগে দু’জনে মিলে ঠিক করলাম নতুন কোনও চমক দিতে হবে। তাই আমাদের ৪০০ নম্বর জার্সি।’’ তবে এই জার্সি কেবল প্রথম ম্যাচের জন্যই। ব্র্যাভো আরও জানিয়েছেন, ‘‘আমরা দু’জনেই আমাদের টিম ম্যানেজমেন্টকে জানিয়েছিলাম। দুই দলই আমাদের প্রস্তাব মেনে নেয়। তবে আমরা দু’জনেই আমাদের জন্য নির্দিষ্ট নম্বরের জার্সি (৪৭ ও ৫৫) পরেই খেলব এ বারের টুর্নামেন্ট।’’

 

গেল-এর বদলি

বয়স ১৭ বছর ১১ দিন। আইপিএল-এর ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠ ক্রিকেটার। আফগানিস্তানের সেই লেগব্রেক বোলার মুজিব উর রহমান-এর রবিবার অভিষেক হয়ে গেল দিল্লি ডেয়ারডেভিলস বনাম কিংস ইলেভেন প়ঞ্জাব ম্যাচে। তাও আবার ক্রিস গেলের বদলে তাঁকে শেষ মুহূর্তে প্রথম একাদশে নিয়েছিলেন প্রীতি জিন্টার দলের অধিনায়ক আর অশ্বিন। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের হয়ে আইপিএল-এ প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে অধিনায়কের পূর্ণ আস্থা রাখতে পেরেছেন মুজিব। তৃতীয় ওভারে বল করতে এসেই তৃতীয় বলেই এলবিডব্লিউ করেন দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ওপেনার কলিন মুনরো-কে।

 

হতাশ করলেন শামি

গত এক মাসে ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবনে প্রবল ঝড় বয়ে গিয়েছে তাঁর জীবনে। তার পরেই দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে মাঠে নেমে পড়েন তিনি। কিন্তু প্রথম ম্যাচে মোহালির গতিময় পিচে সুবিধে করতে পারলেন না এই ভারতীয় পেসার। ম্যাচে তাঁর দল কিংস ইলেভেন প়ঞ্জাবের কাছে হারল ছয় উইকেটে। দু’ওভার বল করে শামি কোনও উইকেট পাননি। উল্টে
দিলেন ২৬ রান।