সুপার কাপ থেকে নাম তুলে নেওয়ার পরেও দুই প্রধানের অনুশীলন আপাতত বন্ধ হচ্ছে না।  এই মরসুমে আর কোনও ফুটবল প্রতিযোগিতা নেই। তাই মোহনবাগান এবং ইস্টবেঙ্গল চেষ্টা চালাচ্ছে কিছু প্রদর্শনী ম্যাচ অথবা বিদেশে প্রতিযোগিতা খেলার। সুপার কাপ বয়কট করা আই লিগের আটটি দলও নিজেদের মধ্যে কিছু ম্যাচ খেলতে পারে বলে খবর।   

কাশ্মীরে প্রদর্শনী ম্যাচ খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছে মোহনবাগান। এপ্রিলের মাঝামাঝি তিন দিনের জন্য সনি নর্দেদের তাদের রাজ্যে গিয়ে খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছে কাশ্মীর রাজ্য ক্রীড়া পর্ষদ। মোহনবাগানের এক শীর্ষ কর্তা শুক্রবার বললেন, ‘‘কাশ্মীরে ম্যাচ খেলা নিয়ে আলোচনা চলছে। সরকারি পর্যায়ে আমন্ত্রণ ও দেশের স্বার্থে এই ম্যাচটা খেলতে পারি আমরা। নিরাপত্তা-সহ বিভিন্ন বিষয় নিশ্চিত হলে ব্যাপারটি চূড়ান্ত হবে। প্রথম দলই চাইছে ওরা। জম্মু বা শ্রীনগরে হতে পারে খেলা।’’  খালিদ জামিলের দলের কাছে উত্তর-পূর্বের দুটি জায়গা থেকে দুটি ম্যাচ খেলারও আমন্ত্রণ এসেছে। 

বিদেশে কোনও প্রতিযোগিতা খেলার সুযোগ আছে কি না, তাও খোঁজখবর নিয়ে দেখছে ইস্টবেঙ্গল। সূত্রের খবর, দলের স্পেনীয় কোচের উপরই এই দায়িত্ব দিয়েছেন বিনিয়োগকারী কর্তারা। আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস শুক্রবার সাইতে অনুশীলনের পরে বলেছেন, ‘‘সুপার কাপ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। ওটা কোম্পানির সিদ্ধান্ত। তবে সবাইকে ফিট রাখার জন্য আমাদের অনুশীলন চলবে।  রবিবার ছুটি দিয়ে সোমবার থেকে আবার অনুশীলন হবে। নিজেদের তৈরি রাখছি আমরা।’’ তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, অনুশীলনের পাশাপাশি কোনও ম্যাচ বা প্রতিযোগিতা খেলার জন্য কি চেষ্টা চালাচ্ছেন? জবি জাস্টিনদের কোচ সরাসরি উত্তর না দিয়ে মন্তব্য করেন, ‘‘খেলতে হলে তো ফুটবলারদের ফিট থাকতে হবে। সেটাই হচ্ছে।’’