• শুভজিৎ মজুমদার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চার্চিল-ঝড় থামিয়ে জয়ের সরণিতে ফেরার স্বপ্ন কিবুর

Mohun Bagan's Kibu trying to fetch victory ceasing Churchil's success
উদ্বিগ্ন: অনুশীলনে ফ্রান গঞ্জালেসের সঙ্গে কিবু। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

Advertisement

শনিবার দুপুরে চার্চিল ব্রাদার্স ম্যাচের প্রস্তুতিতে নামার আগে ড্রেসিংরুমে ফুটবলারদের ক্লাস নিচ্ছিলেন মোহনবাগান কোচ কিবু ভিকুনা। হঠাৎ গ্যালারিতে কয়েক জন সবুজ-মেরুন সমর্থক আনন্দে লাফিয়ে উঠলেন! কী ব্যাপার? লুধিয়ানায় ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে গোল করে পঞ্জাব এফসিকে এগিয়ে দিয়েছেন দানিলো আগুস্তো। 

 ব্যতিক্রম এক সবুজ-মেরুন সমর্থক। সঙ্গীদের সতর্ক করে তিনি বললেন, ‘‘চার্চিল এ বার দারুণ দল গড়েছে। আর উইলিস প্লাজ়া যে রকম ছন্দে রয়েছে, তাতে স্বস্তি থাকার উপায় নেই।’’

মোহনবাগানের ওই সমর্থকের সঙ্গে কোচ কিবুর ভিকুনার আশ্চর্য মিল। এ দিন ঘণ্টা দেড়েকের অনুশীলনে অধিকাংশ সময় তিনি কাটালেন ড্যানিয়েল সাইরাস, গুরজিন্দর কুমার, ফ্রান মোরান্তে, লালরাম চুলোভাদের নিয়ে। অর্থাৎ, রক্ষণ শক্তিশালী করতেই সব চেয়ে বেশি জোর দিলেন স্পেনীয় কোচ। অনুশীলন ম্যাচে জোসেবা বেইতিয়া, ভি পি সুহের, সালভা চামোরোদের বিরুদ্ধে রাখলেন প্রথম দলের ডিফেন্ডারদের। ড্যানিয়েলরা ভুল করলেই বাঁশি বাজিয়ে ম্যাচ থামিয়ে ভুলত্রুটি শুধরে দিচ্ছিলেন কিবু। 

মাঠে নামার আগেই সাংবাদিক বৈঠকে মোহনবাগান কোচ বলছিলেন, ‘‘চার্চিল দারুণ শক্তিশালী দল। ওদের দুই স্ট্রাইকারই ভয়ঙ্কর। শারীরিক ভাবেও চার্চিল শক্তিশালী। কঠিন একটা ম্যাচ খেলতে চলেছি আমরা।’’ সবুজ-মেরুন অধিনায়ক গুরজিন্দর কুমার অবশ্য প্রতিপক্ষকে নিয়ে ভাবতে চান না। বললেন, ‘‘প্লাজ়াকে নিয়ে ভাবছি না। আমাদের দলেও অনেক ভাল ফুটবলার আছে। চার্চিল বরং ভাবুক আমাদের কী ভাবে আটকাবে।’’ রক্ষণ মজবুত করার অনুশীলনেই মাথায় চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লেন গোলরক্ষক দেবজিৎ মজুমদার। যদিও তিনি দাবি করলেন, আঘাত গুরুতর নয়।  

কিবু চিন্তিত স্ট্রাইকারদের ব্যর্থতাতেও। তিনি বললেন, ‘‘আমরা প্রচুর সুযোগ তৈরি করেও গোল করতে পারিনি। এটাই আমাকে ভাবাচ্ছে। তবে অনুশীলনে ভুলত্রুটি অনেকটাই শুধরে নিয়েছি। এখন ম্যাচে তা কার্যকর করতে হবে।’’ 

চার্চিলকে নিয়ে সবুজ-মেরুন শিবিরে উদ্বেগ বাড়ার কারণ অমূলক নয়। প্রথম ম্যাচে পঞ্জাবকে ৩-০ বিধ্বস্ত করে কলকাতায় এসেছেন প্লাজ়ারা। শুধু তাই নয়। গত দু’দিন ধরে মোহনবাগান মাঠে তাঁরা শুধু গোল করার মহড়াই দিয়েছেন!

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর দেশ পর্তুগালের বের্নার্দো তাবেজ এ বার চার্চিলের কোচ। মাত্র দিন চারেক তিনি দায়িত্ব নিয়েছেন। এখনও পর্যন্ত ফুটবলারদের সবার নাম মুখস্থ হয়নি তাঁর। কিন্তু দায়িত্ব নিয়েই বেনফিকার যুব দলের প্রাক্তন কোচ বের্নার্দো বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁর দর্শনে রক্ষণাত্মক ফুটবলের কোনও স্থান নেই। গত দু’দিনের অনুশীলনে এক বারের জন্যও বের্নার্দোকে দেখা যায়নি, ডিফেন্ডারদের নিয়ে বেইতিয়া- চামোরোদের আটকানোর মহড়া দিচ্ছেন। তিনি শুধুই জোর দিলেন আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ানোর। বের্নার্দো বললেন, ‘‘চার দিনের মধ্যে সব ফুটবলারকে চেনা সম্ভব নয়। তবে ফুটবলটা খেলতে হয় মস্তিষ্ক দিয়ে। অ্যাওয়ে ম্যাচ হলেও মোহনবাগানের বিরুদ্ধে জয় ছাড়া কিছুই ভাবছি না। কোনও দলই এক পয়েন্টের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামে না।’’

ভারতীয় ফুটবল ও মোহনবাগান সম্পর্কে কোচকে তথ্য জোগাচ্ছেন প্লাজ়া। চার্চিল অধিনায়ক নিজেও মরিয়া গোল করতে। প্লাজ়া বললেন, ‘‘প্রথম ম্যাচ থেকেই আমি নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য তৈরি। তাই জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।’’ 

রবিবার আই লিগে: মোহনবাগান বনাম চার্চিল ব্রাদার্স (কল্যাণী, বিকেল ৫.০০)।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন