ভারতের স্পিন জুটি ‘কুল-চা’র প্রশংসা শোনা যাচ্ছে তাঁর মুখেও। কিন্তু পাশাপাশি কিংবদন্তি স্পিনার মুথাইয়া মুরলীধরন এও মনে করছেন, বিশ্বকাপে কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চহাল সফল হবেন কি না, তা অনেকটাই নির্ভর করবে ইংল্যান্ডের পরিবেশের উপরে।

শনিবার চেন্নাইয়ে মুরলী বলেছেন, ‘‘ভারতের হাতে দু’জন খুব ভাল রিস্ট স্পিনার আছে। যাদের ওপর এখন নির্বাচকেরা ভরসা রাখছেন। অন্যান্য দেশের হাতে কোনও ভাল রিস্ট স্পিনার নেই। ফলে ভারতের বোলিং আক্রমণকে অনুকরণ করতে পারবে না কেউ। কিন্তু বিশ্বকাপে কুলদীপ, চহাল সফল হবে কি না, তা নির্ভর করবে জুন-জুলাইয়ে ইংল্যান্ডের পরিবেশ কী রকম থাকবে, তার ওপর।’’ এর পরেই সতর্ক করে দিয়েছেন ৮০০ টেস্ট উইকেটের মালিক। মুরলী বলেছেন, ‘‘ওই সময় কিন্তু সাধারণত ইংল্যান্ডে সুইং বোলাররা বেশি সাহায্য পায়।’’ বিশ্বকাপের অন্য দুই দল, ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে মুরলী বলেছেন, ‘‘ওয়ান ডে ক্রিকেটে ইংল্যান্ড খুব ভাল করছে। তবে অস্ট্রেলিয়া এখন অনেক দুর্বল হয়ে গিয়েছে। আগের মতো আর নেই।’’

তবে তাঁর দেশের ক্রিকেটের রেখচিত্র যে ভাবে নিম্নগামী হচ্ছে, তাতে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অফস্পিনার। মাঠের পারফরম্যান্স যেমন খারাপ হয়েছে, মাঠের বাইরেও নানা বিতর্কে জড়িয়েছে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট। মুরলীর মন্তব্য, ‘‘শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটে এখন কোনও প্রতিভা উঠে আসছে না। এটা অত্যন্ত চিন্তার বিষয়। এক জন কোচ বড় জোর রাস্তাটা দেখিয়ে দিতে পারে। কিন্তু সাফল্য পেতে গেলে নিজেকেই লড়াই করতে হবে।’’

তাঁদের সময়ের প্রসঙ্গ টেনে এনে মুরলী বলেছেন, ‘‘আমাদের সময় ক্রিকেটে এত বেশি অর্থ ছিল না। কিন্তু খেলাটা নিয়ে আবেগ ছিল। উইকেট নেওয়ার, রান করার একটা তাগিদ ছিল। এখন এই আবেগটা বদলে গিয়েছে। ক্রিকেটারেরা যদি অর্থের পিছনে ছোটে, তা হলে খেলার মান পড়ে যায়। ক্রিকেটারদের বুঝতে হবে, অর্থের পিছনে ছুটে লাভ নেই। সাফল্য এলে অর্থ, নাম— এ সবই আসবে।’’

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের এই ডামাডোলে তিনি কি কোচিংয়ের দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত? মুরলী খুব একটা আগ্রহী নন। বিশ্বসেরা প্রাক্তন অফস্পিনারের মন্তব্য, ‘‘শ্রীলঙ্কার কোচ বা পরামর্শদাতা হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার মতো সময় আমার হাতে নেই। আমি এখন আইপিএলের সঙ্গে যুক্ত। তা ছাড়া আমি এখন বেশি করে পরিবারকে সময় দিতে চাই।’’