• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ইতিহাস গড়েও সেই বিতর্কেই জোকোভিচ

joker
নোভাক জোকোভিচ। ছবি রয়টার্স।

এটিপি টুরে মাস্টার্স ১০০০ পর্যায়ে সর্বাধিক ৩৬ নম্বর ট্রফি জিতে নিলেন নোভাক জোকোভিচ। ইতিহাস গড়ে একই সঙ্গে তিনি টপকে গেলেন রাফায়েল নাদালকে। স্প্যানিশ তারকার রয়েছে ৩৫টি ট্রফি। সোমবার রোম ওপেনের ফাইনালে জোকোভিচ দিয়েগো সোয়াৎর্জম্যানকে ৭-৫, ৬-৩ হারাতেই মুঠোয় চলে আসে এই নজির। তবে খেতাব জিতলেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না জোকোভিচের।

আগের ম্যাচেই ফের কোর্টে মেজাজ হারিয়ে ‘অশ্লীল’ কথা বলার জন্য রোম ওপেনে সতর্কিত হন জোকোভিচ। দু’সপ্তাহ আগেই যুক্তরাষ্ট্র ওপেন থেকে বহিষ্কৃত হন বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে থাকা সার্বিয়ান তারকা। রোম ওপেনেরই কোয়ার্টার ফাইনালে কোর্টে আছড়ে র‌্যাকেট ভাঙার জন্যও চেয়ার আম্পায়ার সতর্ক করেছিলেন তাঁকে। তার পরে আবার সেমিফাইনালে এই ঘটনা ঘটে। পাশাপাশি মেয়েদের বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হলেন সিমোনা হালেপ।

শীর্ষবাছাই হালেপকে প্রথম রোম ওপেন খেতাব জয়ের জন্য পুরো ম্যাচ খেলতেই হল না। দ্বিতীয় বাছাই ক্যারোলিনা প্লিসকোভার বিরুদ্ধে তিনি ৬-০, ২-১ এগিয়ে থাকার সময় চেক প্রজাতন্ত্রের তারকা চোটের জন্য ম্যাচ ছেড়ে দেন। দুবাই ও প্রাগ ওপেনের পরে এই নিয়ে টানা তিনটি প্রতিযোগিতা জিতলেন হালেপ। শেষ ১৪টি ম্যাচেও তিনি অপরাজিত। 

রবিবার সেমিফাইনালে জোকোভিচের প্রতিপক্ষ ছিলেন ক্যাসপার রুড। তাঁর বিরুদ্ধে ম্যাচ জেতার মাঝপথে রবিবার জোকোভিচকে সতর্ক করা হয়। দ্বিতীয় সেটের তৃতীয় গেমে কয়েকটি লাইন কলের বিরুদ্ধে ছিলেন জোকোভিচ। এই নিয়ে চেয়ার আম্পায়ারের সঙ্গে বাক্য বিনিময় হয় তাঁর। ‘‘এ ভাবে সতর্ক করাটা প্রাপ্য ছিল আমার। যা তখন বলেছি, সেগুলো ভাল কথা নয়। চেয়ার আম্পায়ারের সঙ্গে কয়েকটা কল নিয়ে মতবিরোধ হয়,’’ বলেছেন জোকোভিচ। এ দিকে আবার ফরসি ওপেনের যোগ্যতা অর্জনের জন্য লড়াই করতে আসা খেলোয়াড়দের মধ্যে দু’জনের শরীরে করোনা পাওয়া গিয়েছে। ফরাসি ওপেন কর্তৃপক্ষ অবশ্য কারও নাম প্রকাশ্যে বলেনি। তবে কে কে আক্রান্ত হয়েছেন তা নিয়ে জল্পনা চলছেই।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন