• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আইএসএল-এর সম্ভাবনা ক্ষীণ ইস্টবেঙ্গলের, অন্য ক্লাব খুঁজছেন ওমিদ

Omid Singh
আইএসএল-এর একাধিক ক্লাবের সঙ্গে কথা চলছে ওমিদের। —নিজস্ব চিত্র।

বছর চল্লিশ আগে মজিদ বাসকর খেলে গিয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলে। সব ঠিকঠাক থাকলে এ বার তাঁর দেশের আরও এক ফুটবলারকে খেলতে দেখা যেত লাল-হলুদ জার্সিতে। তিনি ওমিদ সিংহ। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে তাঁর ইস্টবেঙ্গলে খেলার সম্ভাবনা ক্রমশ কমছে। ওমিদের জন্য অন্য ক্লাবের খোঁজ করা হচ্ছে।

চলতি মরসুমে আইএসএল খেলবে ইস্টবেঙ্গল, এমনটা ধরে নিয়েই কথাবার্তা এগিয়েছিল দু’ পক্ষের। ইরানি উইংগার ইস্টবেঙ্গলে খেলার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন। শতবর্ষে পা রাখা ক্লাব ও ওমিদের  মধ্যে কথাবার্তা প্রায় চূড়ান্তই হয়ে গিয়েছিল। ইস্টবেঙ্গলে খেলতে আসা ছিল কেবল সময়ের অপেক্ষা। কিন্তু  আইএসএল-এ খেলার সম্ভাবনা ক্রমশ কমছে লাল-হলুদের। কর্তারা মরিয়া চেষ্টা করলেও মেগা টুর্নামেন্টে খেলা এখন কঠিনই মনে হচ্ছে।

আইএসএল পরিচালনার দায়িত্বে থাকা ফুটবল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড (এফএসডিএল) কর্তৃপক্ষও দলের সংখ্যা আর বাড়াতে চাইছে না। এ রকম পরিস্থিতিতে সূত্রের খবর, ওমিদ আইএসএল-এরই অন্য ক্লাবগুলোর সঙ্গে কথাবার্তা বলা শুরু করেছেন। জামশেদপুর, মুম্বই ও কেরল ব্লাস্টার্সের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে বলে জানা গিয়েছে। ৩১ অগস্ট পর্যন্ত ওমিদ অপেক্ষা করবেন।

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টি টোয়েন্টি সিরিজ স্থগিত, আইপিএল-এ বাধা নেই রাসেল-ওয়ার্নারদের

ইস্টবেঙ্গল যদি শেষ মুহূর্তে আইএসএল-এ নেমে পড়ে, তা হলে লাল-হলুদের হয়েই মেগা টুর্নামেন্টে নামবেন মজিদের দেশের ফুটবলার। আইএসএল না খেললে শতবর্ষের ক্লাবে দেখা যাবে না ওমিদকে। সেই কারণেই প্ল্যান বি তৈরি করছেন ওমিদ। আইএসএল-এর একাধিক ক্লাবের সঙ্গে কথাবার্তা বলছেন। ক্লাবগুলোও তাঁর ব্যাপারে পর্যালোচনার জন্য কিছু সময় চেয়ে নিয়েছে। 

ওমিদের বাবা ভারতীয়। পিতৃভূমির হয়ে খেলার ইচ্ছা প্রকাশ আগেই করেছেন তিনি। ভারতের কোচ ইগর স্টিমাচের সঙ্গেও তাঁর কথাবার্তা হয়েছে বলে খবর।

ভারতের হয়ে খেলার সঙ্গে সঙ্গে ইস্টবেঙ্গলের হয়েও খেলতে চেয়েছিলেন ওমিদ। কারণ, পরিচিত মহলের কাছ থেকে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের ব্যাপারে শুনেছিলেন। কিন্তু আইএসএল-এ ইস্টবেঙ্গলের খেলার সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে যাওয়ার ফলে ওমিদ এখন আইএসএল-এরই অন্য ক্লাবের দিকে তাকিয়ে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন