অঁতোয়ান গ্রিজম্যানকে সই করানোয় বার্সেলোনায় ফিলিপে কুতিনহোর ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা তীব্র হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, তিনি পুরনো ক্লাব লিভারপুলে ফিরে যাচ্ছেন। এমনকি সই করতে পারেন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডেও। ব্রাজিলীয় তারকা কুতিনহোর এজেন্ট অবশ্য ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের জন্য কোনও আশার খবর শোনাননি। বরং পরিষ্কার বলেছেন, তাঁর ম্যান ইউয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। 

২০১৮-র জানুয়ারিতে কুতিনহো অ্যানফিল্ডের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টেনেছিলেন। কিন্তু লিভারপুলে দু’শোর উপর ম্যাচ খেলা এই ফুটবলার ইংল্যান্ডে পুরনো ক্লাবে তাঁর চেনা পরিবেশে ফিরবেন বলে মনে করছে স্পেনের প্রচারমাধ্যম। কুতিনহোর এজেন্ট কিয়া জুরাচিয়ান বলেছেন, ‘‘ম্যান ইউ বিরাট ক্লাব। আমার অনেক ফুটবলার ওখানে আছে। কিন্তু কুতিনহোর যাওয়ার সম্ভাবনা নেই।’’ কেন নেই, তার ব্যাখ্যা করে এজেন্ট বলেছেন, ‘‘কুতিনহো আজও লিভারপুলকে ভালবাসে। তাই ওর পুরনো ক্লাবের শত্রু কোনও ক্লাবে খেলতে চাইবে না। লিভারপুলে যে ক’বছর ছিল, সুখেই কাটিয়েছে। ইংল্যান্ডের এই ক্লাবটাকেই কুতিনহো আজও ভালবাসে।’’

অনেক আশা নিয়ে লুইস সুয়ারেস ও লিয়োনেল মেসির সঙ্গে খেলতে কুতিনহো সই করেন বার্সায়। কিন্তু সেখানে সাফল্য পাননি। চোটও তাঁকে ভুগিয়েছে। তার উপরে আতলেতিকো দে মাদ্রিদ থেকে গ্রিজম্যান বার্সায় আসায় ধরেই নেওয়া হচ্ছে, আর্নেস্তো ভালভার্দে প্রথম দলে তাঁকে রাখবেন না। এমনকি তাঁর প্রিয় সাত নম্বর জার্সিও দিয়ে দেওয়া হতে পারে ফরাসি তারকাকে। এমন অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে কোপাজয়ী ব্রাজিলের সফল ফুটবলার ক্লাব বদলাতে পারেন মনে করছে স্পেনের প্রচারমাধ্যম। কুতিনহোর এজেন্ট যদিও বলেছেন, ‘‘আমার সঙ্গে বার্সা প্রেসিডেন্টের কথা হয়েছে। উনি বলেছেন, কুতিনহো চলে যাক, তিনি চান না। এখনও মনে করেন মেসি, সুয়ারেসেদের পাশে ওর ভবিষ্যৎ আগের মতোই উজ্জ্বল। তা ছাড়া ওরা লিভারপুল থেকে অনেক কষ্ট করে কুতিনহোকে নিয়েছিল। মনে হয় না, এত তাড়াতাড়ি ওকে ছাড়া হবে।’’ এজেন্ট যা-ই বলুন, স্পেনের প্রচারমাধ্যম দাবি করছে, নিয়মিত সুযোগ পাবে না বুঝে যাওয়ায় ফিলিপে আর বার্সায় থাকতে চান না।