• অঞ্জন রায়
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী, স্মৃতি থাকবে অনেক দিন

Sheikh Hasina
জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে উদ্বোধন বঙ্গবন্ধু বিপিএল-এর।

Advertisement

এ বার বিপিএলের আয়োজন বিশেষ, বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীতে এই আয়োজনে উদ্বোধনীতে তাই সোনু নিগম গাইলেন সেই বিখ্যাত গানটি– ‘শোনো একটি মুজিবুরের থেকে লক্ষ মুজিবুরের কণ্ঠস্বরের ধ্বনি’। তখন বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ হাসিনা তাকিয়ে আছেন মঞ্চের দিকে। মাঠে ব্যাট আর বলের জমজমাট যুদ্ধ শুরুর আগে রবিবার রাতে উদ্ধোধন হল বিপিএল-এর।

অনুষ্ঠানের শুরু শুভ ও রেশমি মির্জার গানে। তার পরেই এলেন জেমস। জেমসের শেষ গানের সময়ে স্টেডিয়ামে উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সন্ধ্যা ৭টা বাজার মাত্র কয়েক মিনিট আগে মাঠের প্রেসিডেন্ট বক্সের সামনের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্ধোধন করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বিশেষ এই ক্রিকেট উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণায় কোন বক্তৃতা না করলেও, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপভোগের জন্য সবাইকে আমন্ত্রণ জানান। তিনি আশা করেন, জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে শুরু হওয়া বঙ্গবন্ধু বিপিএল ক্রিকেটপ্রেমীদের আনন্দ দেবে।

এর পর আর কয়েকটি গান গেয়ে জেমস শেষ করতেই এলেন সোনু নিগম। অনেকটা চোখের পলকেই পার হলো প্রায় দেড় ঘণ্টা সময়। এর মাঝে গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের লেখা ‘শোনো একটি মুজিবুরের  থেকে’ ও  ডি এল রায়ের ‘ধনধান্য পুষ্পে ভরা’ সহ এক ডজন গান শোনালেন সোনু। তার গানের শেষে ছিলো চোখ ধাঁধানো ১০ মিনিটের লেজার শো।

আরও পড়ুন: সিরিজ জিততে হলে মুম্বইয়ে ফেরাতে হবে কুল-চা জুটিকে

এক ডজন গান শোনালেন সোনু নিগম।

ধন ধান্য পুষ্প ভরা আমাদের এই বসুন্ধরা— সোনু নিগম গাইছেন। তার সঙ্গে কন্ঠ মিলিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও। পুরো স্টেডিয়ামের গ্যালারি থেকে একই সুর। উপস্থিত দর্শকদের অধিকাংশের স্বর মিলে গানটি হয়ে উঠল সমবেত সংগীত। গাইলেন। দুটো বাংলা গান শেষ করে সোনু দর্শকদের জানালেন, ‘এ গান আপনাদের জন্য আমার ভালবাসার প্রকাশ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাজির জন্য শ্রদ্ধা।’

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সূচনায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনা যখন মিরপুর শের-ই বাংলার স্টেডিয়ামের প্রেসিডেন্ট বক্সে বসে সোনু নিগমের গান শুনছেন, সেই সময়েই  মাঠে এলেন সলমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। তারা এসেই সোজা চলে গেলেন প্রেসিডেন্ট বক্সে– বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ছবি তুললেন আগে।

সোনুর পরের শিল্পী ছিলেন কৈলাশ খের। তিনিও গাইলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় গান– ‘ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে, রইবো না আর বেশি দিন তোদের মাজারে’।

পালকিতে এলেন ক্যাটরিনা কাইফ।

এর পরই মাঠের থেকে পালকিতে চেপে মঞ্চের সামনে আসেন ক্যাটরিনা কাইফ। মাঠময় উল্লাসিত দর্শকরা বরণ করে নিলেন তাঁকে। বলিউডি এই তারকার কয়েকটি নাচের পরে মঞ্চে উঠেছেন জনপ্রিয় নায়ক সলমন খান। তার জনপ্রিয় নাচে জমে ওঠে পুরো স্টেডিয়াম।

আরও পড়ুন: রোহিতের চেয়ে মাত্র ১ রানে এগিয়ে আছেন কোহালি!

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মজে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বাংলাদেশ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেলকে নিয়ে কথা বলেন বলিউডের দুই জনপ্রিয় নায়ক-নায়িকা। এই পর্ব শেষ হতেই একটি ডুয়েট গানের মাধ্যমে সমাপ্তি হয় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল ও সঙ্গীতা। বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনীঅনুষ্ঠানে এই চাঁদের হাট অনেক বছর মনে থাকবে বাংলাদেশের।

ছবি: সংগৃহীত।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন