• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে ক্রিকেট খেলব শুনলে হাসত সবাই, অবসর নিয়ে বললেন এই ব্যাটসম্যান

rao
অবসর নিলেন বেনুগোপাল রাও। ছবি: পিটিআই

ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন বেনুগোপাল রাও। ২০১৭ সালের পর সেই ভাবে ভারতীয় ক্রিকেটে আর দেখা যায়নি তাঁকে। অন্ধ্রপ্রদেশের হয়ে শেষ বারের জন্য খেলতে নেমেছিলেন তিনি তামিলনাড়ুর বিপক্ষে। ভারতের হয়ে ১৬টি একদিনের ম্যাচ খেলেছিলেন এই প্রতিভাবান মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তবে যুবরাজ, রায়নাদের ভিড়ে হারিয়েই গিয়েছিলেন তিনি।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭০৮১ রান, ১৭টি শতরান জোরালো দাবি জানায় রাওয়ের হয়ে ভারতের প্রতিনিধিত্বের জন্য। কিন্তু তিনি জানিয়েছেন যে, নব্বইয়ের দশকে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে কেউ ভারতের হয়ে খেলবে শুনলে নাকি হাসাহাসি চলত ক্রিকেট মহলে। বর্তমান নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ ও বেনুগোপাল রাও ভারতের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে।

২০০৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম সুযোগ আসে ভারতের হয়ে খেলার। সেই ম্যাচের আগে টেনিস এলবোর চোটে বাদ পড়েন সচিন তেন্ডুলকর। স্লো ওভার রেটের জন্য সাসপেন্ড ছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, ছিলেন না ভিভিএস লক্ষণও। ওপেন করতে হয়েছিল মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে। সে রকম এক ম্যাচে সুযোগ আসে বেনুগোপাল রাওয়ের। মুরলিধরনের বলে আউট হওয়ার আগে ৭৪ বলে ৩৮ রান করেন তিনি। স্মৃতিচারণে উঠে এসেছে সেই কথাও।

আরও পড়ুন: ইয়ান বোথাম, শেন ওয়ার্ন... ডোপ করে নির্বাসিত হয়েছিলেন এই ক্রিকেটাররাও

আরও পড়ুন: ‘পাগল নাকি?’ ওয়াহাব রিয়াজকে ধমক শাহিদ আফ্রিদির

বাড়ির কথা বলতে গিয়ে রাও ধন্যবাদ জানান তাঁর বাবাকে। “মাসে ৭০০০ টাকা মাইনেতে পাঁচ সন্তানকে মানুষ করার মতো কঠিন কাজ করতে হয়েছে তাঁকে”— বলেন অন্ধ্রপ্রদেশের জেলেদের একগ্রাম থেকে উঠে আসা বেনুগোপাল রাও। এই মুহূর্তে কোনও টি-টোয়েন্টি লিগে খেলছেন না তিনি। মাইক হাতে কমেন্ট্রি বক্সে চেষ্টা করছেন নতুন ইনিংস শুরু করতে। সুযোগ পেলে কোচিং-এ যেতেও রাজি তিনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন