আইপিএলে এত দিন যা হয়নি, শশাঙ্ক মনোহরের বোর্ড সেটা করে ফেলল। গত আটটা আইপিএলে ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের থেকে পাওয়া বিভিন্ন ক্রিকেটারদের টাকার অঙ্ক যেটা প্রকাশ পেত, আসলে তার চেয়ে বেশি পেমেন্ট পেয়ে এসেছেন অনেক তারকা প্লেয়ার। কিন্তু এ দিন বিসিসিআই ওয়েবসাইটে সরকারি ভাবে জানিয়ে দেওয়া হল, আইপিএলে ক্রিকেটারদের আসল পেমেন্টের অঙ্কটা কী!

আবার এর উল্টো নজিরও কয়েক জন ক্রিকেটারের আইপিএল বেতনের ক্ষেত্রে আছে। যে টাকা তাঁকে দেওয়া হয়েছে বলে এত দিন প্রকাশ পেয়েছে, আসলে সেই ক্রিকেটার তার চেয়ে কম অঙ্ক পেয়েছেন। আবার এ ব্যাপারে তিন নম্বর দলও একটা আছে। যাঁদের প্রকাশ পাওয়া পেমেন্ট আর আসল পেমেন্ট, দুটোই  সমান।

দেখুন গ্যালারি: আইপিএল-এর দামি ১০

বোর্ডের ওয়েবসাইটে এ দিন বের করে দেওয়া আইপিএলে ক্রিকেটারদের আসল পেমেন্টের তালিকায় দেখা গিয়েছে, ভারতের টেস্ট অধিনায়ক বিরাট কোহলি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু থেকে আসলে ১৫ কোটি পেলেও সেটা দেখানো হয়েছে সাড়ে বারো কোটি। আবার ভারতের ওয়ান ডে ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, যাঁকে আইপিএল নাইনে পুণের হয়ে খেলতে দেখা যাবে, তাঁর এত বছর চেন্নাই সুপার কিঙ্গসে দেখানো পেমেন্ট আর আসল পেমেন্ট একই। সাড়ে বারো কোটি। আবার কেকেআর অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের ক্ষেত্রে প্রকাশিত পেমেন্ট সাড়ে বারো কোটি হলেও আসলে তাঁর মাইনে আড়াই কোটি কম। দশ কোটি টাকা।

তাৎপর্যের যে, আর তিন দিন পরেই আগামী ৪ জানুয়ারি লোঢা কমিটির সংশোধনী রিপোর্ট দেওয়া নির্দিষ্ট আছে। তার ঠিক আগেই আইপিএলে ক্রিকেটারদের প্রকাশ পাওয়া পেমেন্ট আর আসল পেমেন্টের মধ্যে ফারাক নিজেদের ওয়েবসাইটে বের করে দিয়ে শশাঙ্কর বোর্ড নিজেদের স্বচ্ছতা বোঝাতে চাইল বলে মনে করছে ক্রিকেটমহল। যেটা শ্রীনি জমানা-উত্তর বোর্ড প্রেসি়ডেন্টের চেয়ারে বসে কার্যত শপথ নিয়েছিলেন শশাঙ্ক। বোর্ডের ব্যালান্স শিট-ও এখন বিসিসিআইয়ের ওয়েবসাইটে দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এ দিকে, ভারতের যুব দলের কোচ রাহুল দ্রাবিড়কে আইপিএলে কোচিংয়ের প্রস্তাব দিল দিল্লি ডেয়ারডেভিলস।