শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শুধু বাইশ গজে দাপট দেখিয়েই দর্শকদের মন জিতে নেননি ডেভিড ওয়ার্নার। মাঠের বাইরেও তাঁর আচরণ ভক্তদের মন কেড়ে নিয়েছে।

কী করেছিলেন ওয়ার্নার? রবিবার অ্যাডিলেড ওভালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ম্যাচের আগে ওয়ার্ম আপ সেরে ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে এক খুদে দর্শককে নিজের গ্লাভস উপহার দেন এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। না চাইতেই হঠাৎ করে ওয়ার্নারের কাছ থেকে ও রকম একটা উপহার পেয়ে হাঁ হয়ে যায় বাচ্চাটি। যে ঘটনার ভিডিয়ো আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইট। সঙ্গে একটি বার্তা: ‘‘এই ঘটনা খুদে ভক্তটি কখনও ভুলবে না। দারুণ, ডেভিড ওয়ার্নার।’’

সদ্য সমাপ্ত অ্যাশেজ সিরিজে যত বার ওয়ার্নার ব্যাট হাতে মাঠে নেমেছেন, তত বার তাঁকে সামলাতে হয়েছে দর্শক বিদ্রুপ। কিন্তু ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমে দর্শকদের থেকে করতালিই উপহার পেয়েছেন এই বাঁ-হাতি ওপেনার। গত কাল ছিল ওয়ার্নারের ৩৩তম জন্মদিন। যে জন্মদিনেই ম্যাচ জেতানো সেঞ্চুরি পাওয়া গিয়েছিল তাঁর ব্যাট থেকে। 

ম্যাচের পরে ওয়ার্নার বলেছিলেন, ‘‘দেশের মাঠে খেলতে নেমে এ রকম ভালবাসা পাওয়ার তৃপ্তিই আলাদা। আপনি অনেক দিন মাঠের বাইরে থাকলে ভুলে যাবেন বাইশ গজে নামার অনুভূতিটা কী রকম।’’ শ্রীলঙ্কার সঙ্গে নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরি করে একটি কৃতিত্বও স্পর্শ করেছিলেন ওয়ার্নার। শেন ওয়াটসন এবং গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের পরে তিনিই হলেন তৃতীয় অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার, যিনি তিন ফর্ম্যাটের ক্রিকেটেই দেশের হয়ে সেঞ্চুরি করলেন। 

এমন একটা নজির যে আপনি ছুঁলেন, সেটা কি মাথায় ছিল? ওয়ার্নার বলছেন, ‘‘এ সব ব্যাপার মাথায় থাকে না। আমি ভুলেই গিয়েছিলাম যে, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে আমার কোনও টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরি নেই।’’ ওয়ার্নারকে অবশ্য ব্যাপারটা মনে করিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর ব্যাটিং-সঙ্গী ম্যাক্সওয়েল। অস্ট্রেলীয় ওপেনার বলেছেন, ‘‘সেঞ্চুরির পরে ম্যাক্সি এসে বলে, আমাদের ক্লাবে স্বাগত।’’ 

ম্যাক্সওয়েলের গোটা দুয়েক শট নিয়ে আবার জোর আলোচনা চলছে। কারণ, ম্যাক্সওয়েলের হাত থেকে পাওয়া গিয়েছিল হেলিকপ্টার শট। যে শটের ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেটে।