আইপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে মহেন্দ্র সিংহ ধোনি বনাম কেন উইলিয়ামসন দ্বৈরথ তো থাকছেই। কিন্তু তার আগে নজর কাড়তে চলেছে স্মৃতি মানধানা বনাম হরমনপ্রীত কৌরের দ্বৈরথ। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে আইপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচের আগেই ইতিহাস ঘটতে চলেছে মেয়েদের ক্রিকেটে। এই ম্যাচকেই মেয়েদের আইপিএলের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে দেখছেন স্মৃতি ও হরমনপ্রীতরা।

আইপিএলের দলগুলোর মতোই প্রদর্শনী ম্যাচের দু’টি দলেরও নামকরণ করা  হয়েছে। স্মৃতি মানধানার দলের নাম ট্রেলব্লেজার্স। অন্য দিকে সুপারনোভাসকে নেতৃত্ব দেবেন হরমনপ্রীত কৌর। ভারতীয় ক্রিকেটারদের পাশাপাশি এই দু’টি দলেই খেলবেন বিখ্যাত বিদেশি ক্রিকেটারেরা। অস্ট্রেলিয়ার  এলিসা পেরি, বেথ মুনির পাশাপাশি রয়েছেন ইংল্যান্ডের ড্যানিয়েল ওয়াটের মতো ক্রিকেটারেরা। ট্রেলব্লেজার্সের অধিনায়কের মতে, এই ম্যাচই হতে চলেছে মেয়েদের আইপিএলের প্রথম পদক্ষেপ। স্মৃতি বলেছেন, ‘‘প্রদর্শনী ম্যাচ হলেও প্রত্যেকে এই ম্যাচটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত। সবাই নিজের সেরাটা দিতে চাইবে। আমার মনে হয়, এই ম্যাচে ভাল ফল করতে পারলে আগামী দিনে আমাদের আইপিএল শুরু কতরা নিয়েও ভাবনা চিন্তা করা হবে।’’

স্মৃতি অবশ্য মনে করেন, আট দল না হলেও প্রাথমিক ভাবে চারটি দলকে নিয়ে শুরু করা যেতে পারে মেয়েদের আইপিএল। স্মৃতি বলছেন, ‘‘আইপিএলের পর থেকেই ভারতীয় দল আরও শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। আসলে এই প্রতিযোগিতা থেকে নতুন প্রজন্মের প্রচুর ক্রিকেটার উঠে আসে। আমি মনে করি, আট জনের দল পাওয়া না গেলেও প্রাথমিক ভাবে চার অথবা পাঁচটি দল নিয়ে মেয়েদের আইপিএল করা যেতেই পারে।’’

প্রতিপক্ষ অধিনায়কের কথায় সায় দিয়েছেন হরমনপ্রীত কৌরও। তাঁর বক্তব্য, ‘‘ভারতীয় দলে ২০ জন এমন ক্রিকেটার আছে যাদের এই ফর্ম্যাটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে বেশি পরিশ্রম করতে হবে না। পাশাপাশি ভারতীয় ‘এ’ দলের হয়েও বেশ প্রতিভাবান ক্রিকেটারেরা রয়েছে। আইপিএল শুরু হলে নিঃসন্দেহে ৩০ থেকে ৩৫ জন ভাল ক্রিকেটার আমরা পাব।’’

স্মৃতি, হরমনপ্রীতদের এই আশা পূরণ হয় কি না সেটাই দেখার।