রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে উপার্জিত সমস্ত অর্থই দান করলেন কিলিয়ান এমবাপে। বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্সের স্ট্রাইকার তিনি। বিশ্বকাপের সেরা যুব ফুটবলারও হয়েছেন। এমবাপে দেখালেন, শুধু মাঠেই নয়, মাঠের বাইরেও তিনি আলাদা। 

ফুটবলমহল বলছে, এবারের বিশ্বকাপে তারকা হিসেবে জন্ম নিয়েছেন ফ্রান্সের দশ নম্বর জার্সির মালিক। ১৯ বছর বয়সি বিশ্বকাপে করেছেন চার গোল। তার মধ্যে ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে গোলও রয়েছে। ১৯৫৮ সালে পেলে শেষবার কোনও টিনএজার হিসেবে বিশ্বকাপ ফাইনালে গোল করেছিলেন। তার পর এমবাপে করলেন। প্যারিস সাঁ জাঁ ক্লাবের ফুটবলারকে এখন বলা হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে প্রতিশ্রুতিবান ফুটবলারের অন্যতম।

‘স্পোর্টস ইলাসট্রেটেড’ অনুসারে রাশিয়া বিশ্বকাপে ম্যাচ প্রতি ১৭ হাজার পাউন্ড পেয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলের সদস্য হিসেবে পেয়েছেন আরও ২,৬৫,০০০ পাউন্ড। সেই হিসেবে এমবাপের মোট প্রাপ্তি দাঁড়ায় ৩,৮৪,০০০ পাউন্ড। এই অর্থের পুরোটাই তিনি দান করেছেন এক চ্যারিটি সংস্থাকে। সেই সংস্থার নাম প্রিমিয়ার ডি করডি। এই সংস্থা প্রতিবন্ধী শিশু ও হাসপাতালে ভর্তি শিশুদের নিয়ে কাজ করে। সংস্থার মুখপাত্র সেবাস্তিয়ান রাফিন বলেছেন, “কিলিয়ান দুর্দান্ত মানুষ। যখনই সুযোগ পান, উনি আমাদের সাহায্য করেন আনন্দের সঙ্গে।”

আরও পড়ুন: ইংল্যান্ডে গ্যালারিতে জনগণমন

আরও পড়ুন: মত্ত প্যারিসে বলি দুই, চলল অবাধ লুটপাট​