×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মে ২০২১ ই-পেপার

স্টার্ক ও ঢুঁসোয় বিপর্যস্ত ইংল্যান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৭ নভেম্বর ২০১৭ ০৪:০২
ব্রিসবেনে অস্ট্রেলীয় উল্লাস।

ব্রিসবেনে অস্ট্রেলীয় উল্লাস।

ব্রিসবেনে হারের চোখ রাঙানি। আর পারথে জনি বেয়ারস্টো-র ঢুঁসো।

রবিবার সারা দিন এই জোড়া ধাক্কায় বিপর্যস্ত হয়ে থাকল ইংল্যান্ড। অ্যাশেজে প্রথম টেস্টে হারটা প্রায় নিশ্চিত জো রুটদের। ব্রিসবেনে রবিবার ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয়ে যায় মাত্র ১৯৫ রানে। জয়ের জন্য ১৭০ রান তাড়া করতে নেমে দিনের শেষে অস্ট্রেলিয়ার রান বিনা উইকেটে ১১৪। যার অর্থ শেষ দিনে আর মাত্র ৫৬ রান করলেই সিরিজে ১-০ এগিয়ে যাবে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম তিন দিন লড়াইটা সমানে সমানে চললেও চতুর্থ দিন অস্ট্রেলীয় বোলিং আক্রমণ আর সামলাতে পারেননি ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যানরা। মিচেল স্টার্ক, জস হেজেলউড আর নাথান লায়ন তিনটে করে উইকেট তুলে নেন। ইংল্যান্ডের শেষ ছ’টি উইকেট পড়ে যায় মাত্র ৮২ রানে। স্টার্ক, হেজেলউডের পেস বা লায়নের স্পিন— কিছুই সামলাতে পারেননি জো রুটরা। দিনের শেষে শেন ওয়ার্নের টুইট, ‘আমরা কাল ১-০ এগিয়ে যেতে চলেছি অ্যাশেজে।’

Advertisement

এ তো গেল বাইশ গজে হেনস্থা। এর বাইরেও আরও একটা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ল ইংল্যান্ড। যার কেন্দ্রে ইংল্যান্ডের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো। শোনা যাচ্ছে, সফরের শুরুতে পারথে এক নাইট ক্লাবে অস্ট্রেলিয়ার ওপেনিং ব্যাটসম্যান ক্যামেরন ব্যানক্রফ্ট-কে ঢুঁসো মারেন বেয়ারস্টো। যা জানাজানি হয়ে যায় রবিবার। এমনকী বেয়ারস্টো যখন ব্যাট করতে নামেন, ইংরেজ ব্যাটসম্যানকে এই নিয়ে স্লেজিংও করে অস্ট্রেলিয়া।

ঘটনাটা কী? মাস খানেক আগে পারথে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে যখন খেলছিলেন ব্যানক্রফ্ট, তখনই নাইট ক্লাবে ঘটনাটা ঘটে। বিনা প্ররোচনায় নাকি ঢুঁসো মারেন বেয়ারস্টো। তবে পুলিশকে এই নিয়ে কোনও অভিযোগ করা হয়নি। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই নিয়ে তারা তদন্ত করে দেখছে।

বেয়ারস্টো-র ভাগ্যে কী আছে, তা এখনও পরিষ্কার না হলেও ইংল্যান্ডের ভাগ্যরেখা আপাতত পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনারই এখনও ক্রিজে। ব্যাট করছেন ডেভিড ওয়ার্নার (৬০) এবং ব্যানক্রফ্ট (৫১)। আজ, সোমবার কত তাড়াতাড়ি রানটা ওঠে, সেটাই দেখার।

Advertisement