Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

তামিলনাড়ুর দুর্গতদের জন্য অশ্বিনের পরশ

রবিচন্দ্রন অশ্বিন তাঁর ক্রিকেটজীবনের প্রথম দিন থেকেই ব্যতিক্রমী। তা তাঁর ব্যতিক্রমের ধরনটা কার কেমন লাগল তার তোয়াক্কা না করেই। সম্ভবত এই জন্

গৌতম ভট্টাচার্য
ঢাকা ০১ মার্চ ২০১৬ ০৩:০৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

রবিচন্দ্রন অশ্বিন তাঁর ক্রিকেটজীবনের প্রথম দিন থেকেই ব্যতিক্রমী। তা তাঁর ব্যতিক্রমের ধরনটা কার কেমন লাগল তার তোয়াক্কা না করেই। সম্ভবত এই জন্যই পেশাদার ক্রিকেটারের আবরণ ভেদ করে চরিত্র হিসেবে তিনি এত আকর্ষণীয় এবং যাঁর প্রভাব ক্রিকেট মাঠেই শেষ হয়ে যাওয়া উচিত নয়।

তামিলনাডুর সাম্প্রতিক ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে যখন দেশজুড়ে প্রতিশ্রুতির বাণ ছুটছিল অনেকে অশ্বিনকে নিজেদের সঙ্গে জড়িয়ে নিতে চেয়েছিলেন। দীর্ঘকায় অফস্পিনার রাজি হননি। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে জানিয়ে দেন, যা করবেন তিনি একা করবেন। আর সেই পরিকল্পনার কথা জানাবেন পরে।

সোমবার তাঁকে জিজ্ঞেস করে জানা গেল বহির্জগতের উদ্যোগ যখন তামিলনাড়ুর ব্যাপারে স্তিমিত হয়ে এসেছে তখন তিনি নিজের ক্রিয়া-কর্ম আরও জোরদার ভাবে শুরু করেছেন। দু’-একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছাড়াও চেন্নাইয়ের এক রেডিও জকি তাঁর সঙ্গে এই প্রকল্পে গভীর ভাবে জড়িয়ে। নইলে ভারতের হয়ে ক্রমাগত খেলতে খেলতে তিনি একা এটা করার সুযোগ পেতেন না।

Advertisement

চেন্নাইয়ের বন্যাপ্লাবিত কিছু এলাকাকে এঁরা নির্দিষ্ট করেছেন যেখানে ছাত্র-ছাত্রীদের বই ভেসে গিয়েছে। এমন কয়েক হাজারকে পাঠ্যপুস্তক কিনে দিয়েছেন। বাড়ির কাছে ফল বিক্রেতার ফলের ঝুড়ি ভেসে গিয়েছিল। লন্ড্রিওয়ালার দোকান-সহ সব বিধ্বস্ত হয়ে যায়। এঁদের পুনর্বাসন করে দিয়েছেন কাজের জিনিস-সহ। কুড়ি-পঁচিশ লক্ষ টাকা শুধু এতেই গিয়েছে।

এই টাকা অবশ্যই যথেষ্ট নয়। তাই আইপিএল শেষ হওয়ার পর জুনে অশ্বিন পরিকল্পনা করছেন মুরলী বিজয়কে নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উড়ে যাবেন। সেখানে তামিল ইউনিয়নের উদ্যোগে চ্যারিটি ম্যাচ খেলবেন। টক শো করে টাকা তুলবেন। পুরোটাই চেন্নাই-দুর্গতদের জন্য।

ভারতের হয়ে একশোর বেশি টেস্ট উইকেট নিয়েছেন এমন বোলারদের মধ্যে অশ্বিনের বোলিং গড় সবচেয়ে ভাল। ১৭৬ উইকেট মাত্র ২৫.৩৯ গড় নিয়ে। ওয়ান ডে উইকেটের সংখ্যা ১৪২, টি-টোয়েন্টিতে ৪৩। টি-টোয়েন্টি বোলিং অ্যাভারেজও চমকপ্রদ— ২২.১৩। ভারতের এক নম্বর বোলিং ভরসা আপাতত তিনি। সব দেশে সব রকমের উইকেটে।

কিন্তু নিজের শহরবাসীর জন্য প্রচারের আড়ালে থেকে এই উদ্যোগ নেওয়াটা বোধহয় অদ্যাবধি তাঁর সেরা বোলিং পারফরম্যান্স! অনেকেই টাকা দেয়, দিয়ে চলে যায়। তাৎক্ষণিক প্রচার পায় বা পায় না কিন্তু সাহায্যের পর বাড়তি সময় নষ্ট করে না। এক সময় চ্যারিটির জন্য বিখ্যাত মিঠুন চক্রবর্তী বারবার বলতেন, ‘‘সে-ই প্রকৃত চ্যারিটি করে যে দাঁড়িয়ে থেকে দেখে, চ্যারিটির টাকাটা ঠিক হাতে পৌঁছচ্ছে কি না?’’

অশ্বিনের সঙ্গে সোমবার কথা বলতে গিয়ে মনে হল একটা লম্বা স্পেল করতে নেমেছেন। কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত বলটা হাতেই রাখবেন।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement