Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

খেলা

মেলবোর্ন টেস্টে ভারতের ঐতিহাসিক জয়ের কারণ

নিজস্ব প্রতিবেদন
৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৯:৪৯
অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্ট জিতে নিল বিরাট কোহালির ভারত। জয়ের ফলে ২-১ হল সিরিজ এবং বর্ডার-গাওস্কর ট্রফি দখলে রাখল ভারত। এর পর দেখা হবে সিডনিতে। এই টেস্ট জয়ের পিছনে মূল কারণগুলি ঠিক কী?

মায়াঙ্ক আগরওয়াল অভিষেক টেস্টে প্রথম ইনিংসে দলকে দিলেন নির্ভরতা। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অভিষেকে কোনও ভারতীয়ের সবচেয়ে বেশি রানের (৭৬) রেকর্ড গড়েন তিনি। ভাঙলেন ৭১ বছরের পুরনো রেকর্ড। ওপেনার না হয়েও দুরন্ত লড়াই করেন হনুমা বিহারী। ৮ রান করলেও ৬৬ বল খেলে আউট হন তিনি।
Advertisement
দ্বিতীয় উইকেটে চেতেশ্বর পূজারার সঙ্গে ৮৩ রান যোগ করেন মায়াঙ্ক। দুই ওপেনারকে হারিয়ে প্রথম দিনের শেষে দুই উইকেটে ২১৫ তুলে নেয় ভারত।

টস জিতে কোহালির ব্যাট করার সিদ্ধান্ত ভারতকে বাড়তি সুবিধা দিয়েছিল। এই টেস্ট জয়ের পর সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের রেকর্ড ছুঁলেন কোহালি। অধিনায়ক হিসাবে ১১টি অ্যাওয়ে ম্যাচ জেতার সুবাদে এল এই রেকর্ড।
Advertisement
মিচেল স্টার্কের বলে ৪৭ রানে বিরাট কোহালির ক্যাচ ফেলে দেন অজি অধিনায়ক টিম পেন। ৮২ রান করে দলকে অনেকটা এগিয়ে দেন বিরাট। সেই সময় কোহালি আউট হয়ে গেলে ম্যাচের রং পাল্টে যেত।

নাথান লায়নের বলে অসাধারণ ড্রাইভ করে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে কেরিয়ারের ১৭ তম সেঞ্চুরি করেন পূজারা। ৩১৯ বলে ১০৬ রান করেন তিনি। জয়ের অন্যতম কারণ ব্যাটিংয়ে তাঁর এই সাফল্য।

সহ-অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে ও এই টেস্টে দলে ফেরা রোহিত শর্মাও বেশ ভাল ব্যাট করলেন। রাহানে ৭৬ বলে ৩৪ রান করে লায়নের বলে ফিরে যান। রোহিত অপরাজিত রইলেন ৬৩ রান করে।

অস্ট্রেলীয় বোলাররা প্রথম ইনিংসে একেবারেই সুবিধা করে উঠতে পারেননি। ব্যতিক্রম প্যাট কামিন্স। ৩ উইকেট নেন তিনি। ব্যাটিংটাও বেশ ভাল করেছিলেন যদিও।

মেলবোর্নের বাইশ গজে প্রথম ইনিংসে যেখানে ৪৪৩ রান করেছে ভারত, সেই পিচেই ১৫১ রানে শেষ হয়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংস।

অজিদের প্রায় একাই শেষ করে দেন বুমরা। ৬ উইকেট নেন তিনি। ম্যাচে মোট ৯ উইকেট নিয়ে তিনিই হলেন ম্যাচের সেরা।

যশপ্রীত বুমরার তীব্র গতি ভুগিয়েছে অস্ট্রেলীয়দের। টেস্ট অভিষেকের পর মাত্র ৯টি ম্যাচেই ৪৮ উইকেট নিয়ে ফেলেছেন। ১৯৭৯-এ প্রথম বার টেস্ট খেলতে নেমে এক বছরে ৪০ উইকেট নিয়েছিলেন দিলীপ দোশি। সেই রেকর্ড ভাঙলেন প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ।

দলে ফিরে বল হাতে ছাপ রাখলেন রবীন্দ্র জাদেজাও। দুই ইনিংস মিলিয়ে ৫ উইকেট নিলেন, নাগাড়ে চাপে রেখে গেলেন অজি ব্যাটসম্যানদের।

তবে ম্যাচে আলাদা করে নজর কাড়ল ভারতের পেস ব্যাটারি। বুমরা-ইশান্ত-শামিরা নিলেন ১৫ উইকেট।

ঋষভ পন্থও এই টেস্টে রেকর্ড গড়লেন। ভারতের হয়ে টেস্ট সিরিজে সবচেয়ে বেশি শিকার ধরার রেকর্ডটি এই উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের দখলে।