Advertisement
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

জাতীয় দলে ফেরায় অবাক হননি সুব্রত

রেকর্ড সংখ্যক টানা ১১ বছর ভারতের জার্সি পড়ছেন ‘স্পাইডারম্যান’। শেষ দুটি ম্যাচে অবশ্য কাজাকিস্তান (এশিয়ান কাপ) ও নেপালের (ফিফা ফ্রেন্ডলি) বিরুদ্ধে জাতীয় দলে ছিলেন না সোদপুরের মিষ্টু।

আবার দেশের জার্সি পরার সুযোগ সুব্রতর। ফাইল চিত্র

আবার দেশের জার্সি পরার সুযোগ সুব্রতর। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০১ অগস্ট ২০১৭ ০৪:৩৯
Share: Save:

দীর্ঘ বিতর্কের পর ডোপ কলঙ্কমুক্ত হয়েছেন কয়েক সপ্তাহ আগে। চোট সারিয়ে অনুশীলনেও নেমে পড়েছেন। আইএসএলে চড়া দামে বিক্রি হয়েছেন গত রবিবার। এবং শেষ পর্যন্ত আলো-আধারি পেরিয়ে ফের জাতীয় দলে ফিরলেন সুব্রত পাল।

ম্যাকাওতে এএফসি এশিয়ান কাপের যোগ্যতা নির্ণায়ক ম্যাচ খেলার জন্য প্রস্তুতি শিবিরের ডাক পাওয়ার পর সুব্রত-র প্রতিক্রিয়া, ‘‘দেশের জার্সিতে খেলাটা সবসময়ই গর্বের। আমি যে টিমে ফিরব সেটা জানতাম। কারণ চোটের জন্য কোচের সঙ্গে কথা বলেই টিমের বাইরে গেছিলাম। এই বাদের সঙ্গে ডোপ বিতর্কের কোনও সম্পর্ক নেই। কয়েকদিন আগেও তো কোচের সঙ্গে কথা হয়েছে।’’

রেকর্ড সংখ্যক টানা ১১ বছর ভারতের জার্সি পড়ছেন ‘স্পাইডারম্যান’। শেষ দুটি ম্যাচে অবশ্য কাজাকিস্তান (এশিয়ান কাপ) ও নেপালের (ফিফা ফ্রেন্ডলি) বিরুদ্ধে জাতীয় দলে ছিলেন না সোদপুরের মিষ্টু। তাতে অবশ্য তাঁর কোনও হাহুতাশ নেই। বলছিলেন, ‘‘চুয়াত্তরটা ম্যাচ ভারতের জার্সিতে খেলে ফেলেছি আমি। আর একটা ম্যাচ খেললে ৭৫টা হবে। যতদূর শুনেছি দেশের কোনও কিপারের এই রেকর্ড নেই। চোটের জন্য শেষ দুটি ম্যাচ বসে যেতে হয়েছিল। চোট তো খেলার অঙ্গ। এ জন্য কোনও হতাশা নেই।’’

জাতীয় দলের সবথেকে সিনিয়র ফুটবলার সুব্রত এ দিনও দু’বেলা অনুশীলন করেছেন পাড়ার মাঠে। কথা প্রসঙ্গে বলছিলেন, ‘‘ফুটবল ছাড়া আমার জীবনে কিছু নেই। যতদিন ফিট থাকব খেলব।’’

ম্যাকাওয়ের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ হবে ৫ সেপ্টেম্বর। চেন্নাইতে শিবির শুরু হচ্ছে ১১ অগস্ট। ৩৪ জনের দলে অবশ্য গত মরসুমে দেশের অন্যতম সেরা কিপার দেবজিৎ মজুমদারের নাম নেই। তবে দেবজিতের নাম না থাকলেও টিপি রেহেনেশ এবং অ্যালবিনো গোমসদের নেওয়া হয়েছে শিবিরে। এ ছাড়া যুব দলের দশ ফুটবলারকে ডাকা হয়েছে। সার্থক গলুই, নিখিল পুজারি, দাভিন্দর সিংহরা প্রথমবার সিনিয়র দলের শিবিরে ডাক পেয়েছেন।

যোগ্যতানির্ণায়ক গ্রুপ লিগের ম্যাচে ভারত প্রথম দুটি লড়াই জিতেছে মায়ানমার ও কাজাকিস্তানের বিরুদ্ধে। ফলে পরের রাউন্ডে ওঠার জন্য তিন নম্বর ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। দেশের প্রায় সব তারকাই চলে গিয়েছেন ইন্ডিয়ান সুপার লিগে। ফলে শিবিরে সুনীল ছেত্রী, জেজে লালপেখলুয়া, বলবন্ত সিংহ, ইউজিন লিংডোদের সবাইকে পাবেন ব্রিটিশ কোচ। পাশাপাশি আইএসএলের দশ ফ্র্যাঞ্চাইজির কেউই এই সময় অনুশীলন শুরু করছে না। তা হলেও কলকাতা লিগে সমস্যায় পড়বে ইস্টবেঙ্গল। কারণ ঘরোয়া লিগ শুরুর পরে প্রায় এক মাস অর্ণব মণ্ডল, মহম্মদ রফিক, নিখিল পুজারিদের টিমে পাবে না তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE