Advertisement
১৩ এপ্রিল ২০২৪
isl

ফাওলারের ফাউলে অস্তাচলের পথে লাল-হলুদের রবি

শুরু থেকে আগু-পিছু না ভেবে যা মনে হয়েছে, সেটাই বলেছেন। ভারতীয় ফুটবলকে অপমানিত করতে পিছপা হননি।

লাল-হলুদে ফাওলারের মেয়াদ আর কতদিন?

লাল-হলুদে ফাওলারের মেয়াদ আর কতদিন? ফাইল ছবি

অনির্বাণ মজুমদার
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৫:৪৫
Share: Save:

এখনও পর্যন্ত ১৫টি ম্যাচ খেলে জয় এসেছে মাত্র ২টিতে। ৬টি হার, ৭টি ড্র। ১১ দলের ইন্ডিয়ান সুপার লিগে এসসি ইস্টবেঙ্গল ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আপাতত ১০ নম্বরে। এর পরেও লিগ যত গড়িয়েছে, তত মন ভরেছে রবি ফাওলারের। যত ম্যাচের সংখ্যা কমেছে, ইস্টবেঙ্গল কোচের মনে প্লে-অফের আশা তত জোরালো হয়েছে। সর্বোপরি এবারের আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের রবি যত অস্তাচলে গিয়েছে, তত ফাউল বেড়েছে ফাওলারের। শুরু থেকে আগু-পিছু না ভেবে যা মনে হয়েছে, সেটাই বলেছেন। ভারতীয় ফুটবলকে অপমানিত করতে পিছপা হননি। তাঁর সর্বশেষ কীর্তি শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে চার ম্যাচ নির্বাসন ও পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা। ফাওলারের এই শাস্তিতে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারেন ফুটবলপ্রেমীরা। কারণ, আর একটিই মাত্র ম্যাচে সাইডলাইনের ধারে বসার সুযোগ পাবেন তিনি। ডার্বি ম্যাচেও তাঁকে পাবে না ইস্টবেঙ্গল। ফলে ফাওলারের আর ফাউল করার সম্ভাবনা প্রায় নেই।

ফাউল ১: এই দলকে এতদিন কারা কোচিং করিয়েছেন, জানি না। এত খারাপ কোচিং আগে দেখিনি। কিন্তু এখন আমার পক্ষে এই বয়সের ফুটবলারদের ফুটবল সম্পর্কে ধারণা বদলানো সম্ভব নয়।

প্রশ্ন, সর্বোচ্চ পর্যায়ে সুভাষ ভৌমিক, সুব্রত ভট্টাচার্যর মতো কোচেরা ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে কিছুদিন আগেও যুক্ত ছিলেন। তাঁদের সাফল্য সবার জানা। আর তিনি এই ফুটবলারদের নিয়ে কাজ করতে না পারলে দায়িত্ব নিলেন কেন?

ফাউল ২: ভারতীয় ফুটবলে তৃণমূল স্তরে পরিবর্তন দরকার। ছোটদের ভাল করে শেখাতে হবে, যাতে বড় হয়ে তারা যখন পেশাদার ফুটবলে খেলবে, আই লিগ বা আইএসএল খেলবে, তখন যেন ফুটবলটা ভাল করে বুঝতে পারে। অ্যাকাডেমিগুলো ঠিকঠাক ভাবে তৈরি করা দরকার। সেখানে যেন ছোটদের শেখার পরিবেশ থাকে। রাতারাতি এটা সম্ভব নয়। কিন্তু ভারতীয় ফুটবলের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ভেবে যত দ্রুত সম্ভব এটা করে ফেলা দরকার।

প্রশ্ন, সব কিছুই হাতের সামনে তৈরি করে দিলে তিনি আছেন কী করতে?

ফাউল ৩: ভারতে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার আছে। কিন্তু ফুটবল বুদ্ধি অন্য জিনিস। ভারতীয় ফুটবলের উন্নতির স্বার্থে এটা বাড়ানো দরকার। আমরা চাই, ভারতের জাতীয় দল সফল হোক। আমরা চাই, কখন পাস দিতে হবে, কীভাবে পাস দিতে হবে, সেটা উঠতি ফুটবলাররা ভাল করে বুঝুক।

প্রশ্ন, এগুলো বোঝানোর জন্যই তো তিনি আছেন। তাহলে তাঁর কাজটা কী?

ফাউল ৪: আমি সব ম্যাচ জিততে চাই। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আমাদের দলে গভীরতা নেই। সেটা জানি। হাতে যা পেয়েছি, আমাকে যা দেওয়া হয়েছে, সেটা নিয়েই তো চলতে হবে আমাকে। কিছু একটা বলে দেওয়া খুব সোজা। আমি কোনও অজুহাত দিচ্ছি না। আমি কিছু যুক্তি দিচ্ছি। আমরা নিজেদের সবটা দিচ্ছি। বসে বসে বড় বড় কথা না বলে দয়া করে আমাদের খেলার মধ্যে ইতিবাচক দিকগুলোও খোঁজার চেষ্টা করুন। সবাই আদাজল খেয়ে এই দলটার সমালোচনা করছে। আমাদের অন্য সব দলগুলোর থেকে বেশি পরিশ্রম করতে হচ্ছে। তার জন্য আমাদের অবশ্যই কৃতিত্ব প্রাপ্য।

প্রশ্ন, দায়িত্ব নেওয়ার পরে তিনি নিজে বেশ কিছু ফুটবলার নিয়েছেন। তাহলে ‘যে দল দেওয়া হয়েছে’ বলে কর্তা-ইনভেস্টরদের ঘাড়ে দোষ চাপানো কেন? এমনকী তিনি সেট পিস বিশেষজ্ঞকেও সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন। তাঁর কাজ কী, এখনও কেউ জানেন না।

ফাউল ৫: আমাকে যে দলটা দেওয়া হয়েছে, সেটা আই লিগের কথা ভেবে তৈরি হয়েছিল। এটা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। সবাই ভেবেছিল, এই দলটা মাঠে নেমেই দৌড়তে শুরু করবে। কিন্তু আমি শুরু থেকে জানতাম, সেটা কখনোই সম্ভব নয়।

প্রশ্ন, আই লিগ ভারতীয় ফুটবলের অন্যতম সেরা ফুটবল প্রতিযোগিতা। এতদিন এটাই ভারতের এক নম্বর ফুটবল প্রতিযোগিতা ছিল। ইস্টবেঙ্গল বা অন্য যেকোনও দল কোন প্রতিযোগিতায় খেলবে, তার ওপর ভিত্তি করে কি দল তৈরি করে?

ফাউল ৬: চলজলদি সাফল্য আমার লক্ষ্য নয়। আমি চাই এই ক্লাবের দীর্ঘমেয়াদী সাফল্য। মরসুম যত এগোবে, আমাদের দল তত ভাল খেলবে। এই দলের সেই ক্ষমতা আছে।

প্রশ্ন, আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের আর মাত্র পাঁচটি ম্যাচ বাকি। মরসুম আর কত এগোলে তাঁর দল ভাল খেলবে?

ফাউল ৭: রেফারির পারফরম্যান্সে আমি অত্যন্ত হতাশ। বারবার আমাদের প্রতি অবিচার হচ্ছে। আমাদের ফুটবলারদের কার্ড দেখানো হচ্ছে। কিন্তু আমাদের ফুটবলারদের যখন যত্রতত্র মারা হচ্ছে, তখন বিপক্ষকে কার্ড দেখানো হচ্ছে না। আইএসএলে ভাল ভাল ফুটবলার দরকার। কিন্তু তাদের সঙ্গে এরকম হলে কেউ তো আর খেলতেই আসবে না। রেফারিদের কিছু সিদ্ধান্ত মাঝেমাঝে সব সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। প্রতি ম্যাচে রেফারিং নিয়ে লড়াই করতে করতে আমি মানসিক ভাবে ক্লান্ত। পুরোটাই হাস্যকর। এভাবে চলতে পারে না।

প্রশ্ন, রেফারিং নিয়ে সমস্যা অবশ্যই আছে। বেশ কয়েকটি দল সরকারি ভাবে অভিযোগও করেছে। ফেডারেশন সংশ্লিষ্ট রেফারিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়েছে। কিন্তু খারাপ রেফারিংয়ের জন্য প্লেয়াররা ভবিষ্যতে আইএসএলে খেলতে আসবেন না, এটা কি যুক্তিসঙ্গত? আর বড় প্লেয়ারদের বিরুদ্ধেই ফাউল হয়। রেফারিং নিয়ে অভিযোগও ওঠে। কিন্তু মেসি, রোনাল্ডোরা কি তার জন্য ক্লাব ছেড়ে চলে যান, বা জিদান, গুয়ার্দিওলারা কি সেই আশঙ্কায় ভোগেন? শেষ পর্যন্ত নির্বাসিতই হতে হল তাঁকে।

ফাউল ৮: চাকা ঘুরছে। আশা করছি, আমরা দ্রুত জয়ে ফিরব। আমরা কয়েকটা ম্যাচে সহজেই জিততে পারতাম। কিন্তু ফুটবল এরকমই।

প্রশ্ন, চাকা ঘুরছে ঠিকই, কিন্তু হয়তো উল্টোদিকে। থেমে যাবে না তো?

ফাউল ৯: ফুটবলারদের উদ্বুদ্ধ করাটা কোনও ব্যাপারই নয়। ফুটবলটা ভালবাসে বলেই এরা খেলে। ফলে সবাই অনুপ্রাণিত হয়েই এসেছে। তাই উদ্বুদ্ধ করার দরকার নেই। আমরা খুব বেশি পিছিয়ে নেই।

প্রশ্ন, আধুনিক ফুটবলে কোচের কাজই তো ফুটবলারদের অনুপ্রাণিত করা। সেটার প্রয়োজনীয়তা তিনি উপলব্ধি করছেন না?

ফাউল ১০: দলের খেলায় আমি অত্যন্ত খুশি। বল পজেশন আমাদের কম ছিল। কিন্তু ভাল দলের বিরুদ্ধে খেলতে গেলে সেটা তো হবেই। বিপক্ষ বেশ কিছু সুযোগ পেয়েছে ঠিকই, কিন্তু সেরা সুযোগগুলো আমরাই পেয়েছি। দশ জনে হয়ে যাওয়ার পর আমাদের দল দুর্দান্ত খেলেছে। এক পয়েন্ট তুলতে পেরে আমি সত্যিই খুশি।

প্রশ্ন, দলের খেলায় খুশি হলে সত্যিই কি আর কিছু বলার থাকে?

ফাউল ১১: জিততে না পারাটা সত্যিই হতাশাজনক। কিন্তু আমাদের খেলায় অনেক ইতিবাচক দিক আছ‌ে। আমরা হারছি না।

প্রশ্ন, ইতিবাচক দিকগুলো কী, যদি বলে দেন?

ফাউল ১২: ছয় দিনে আমাদের তিনটি কঠিন ম্যাচ খেলতে হয়েছে। হয়ত সেই কারণেই আমাদের খেলা ঠিক হচ্ছে না। ফুটবলাররা অবশ্য যথেষ্ট তাদিগ নিয়ে খেলছে।

প্রশ্ন, কোভিড পরিস্থিতিতে প্রায় সব দলকেই কঠিন সূচির মধ্যে খেলতে হয়েছে। আর তো কেউ সূচি নিয়ে প্রশ্ন তোলেননি?

ফাউল ১৩: আমরা যে জায়গায় রয়েছি, সেটা একেবারেই কাঙ্খিত নয়। এরকম হবে, ভাবিনি। প্রতি ম্যাচেই আমরা নামছি বিপক্ষকে হারানোর লক্ষ্য নিয়ে। রক্ষণে প্রচুর লোক বাড়িয়ে বিপক্ষ আমাদের কাজ কঠিন করে তুলছে।

প্রশ্ন, যে কোনও দল রক্ষণে লোক বাড়িয়ে বিপক্ষের গোল করার সম্ভাবনা কমাবে। এটাই ফুটবলের প্রাথমিক নিয়ম। তাঁর অভিযোগ কি তবে বিপক্ষ দলগুলোর এই স্বাভাবিক রণনীতি নিয়ে?

ফাউল ১৪: মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে খেলায় আমি গর্বিত। ম্যাচটা জিতিনি, কিন্তু সবাইকে দেখিয়ে দিয়েছি কতটা বলের দখল রাখতে পারি আমরা। সার্বিক ভাবে ভাল খেলেছ ছেলেরা। প্রত্যেককে আরও বেশি ফিট এবং শক্তিশালী লাগছে। শেষ ৪৫ মিনিট মুম্বইকে সবথেকে বেশি চাপে রেখেছি, যা এই মরসুমে আর কেউ পারেনি। পুরো কৃতিত্ব ছেলেদের। কিন্তু হারটা হারই।

প্রশ্ন, বল দখল, সার্বিক ভাবে ভাল খেলা তিনি বোঝেন। কিন্তু সেটা যে খেলার ফলাফলে প্রতিফলিত হচ্ছে না, সেটা তিনি বুঝলেন না?

ফাউল ১৫: গত আট ম্যাচে এই প্রথমবার হারলাম। তবে জেতার জন্য যেরকম ফুটবলার দরকার, সেটা আমাদের রয়েছে। খুব শীঘ্রই জয়ের সরণিতে ফিরব।

প্রশ্ন, রাস্তা যে শেষ হয়ে যাচ্ছে, সেটা তাঁর নজরে পড়ছে না?

ফাউল ১৬: লিগ তালিকার মাঝামাঝি এবং নিচের দিকে থাকা দলগুলির ব্যবধান খুবই কম। দু-একটা ভাল ফলাফল করতে পারলেই আমরা প্লে-অফের লড়াইয়ে চলে আসব। তাই আমাদের জন্য আইএসএল এখনও শেষ হয়ে যায়নি। সামনে চ্যালেঞ্জ রয়েছে, কিন্তু আমরা তৈরি।

প্রশ্ন, এসসি ইস্টবেঙ্গল এখন যে জায়গায় রয়েছে, তাতে দু-একটা ভাল ফলফলে কী করে তারা প্লে অফে যাবে?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

isl Robbie Fowler SC East Bengal
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE