×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

দুঃস্থ শিশুদের জন্য নিলামে লিয়োর সেই বুট

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৭ এপ্রিল ২০২১ ০৫:৩৯
 আগমন: কোপা দেল রে ফাইনালের জন্য সেভিয়ায় পৌঁছলেন মেসিরা।

আগমন: কোপা দেল রে ফাইনালের জন্য সেভিয়ায় পৌঁছলেন মেসিরা।
ছবি টুইটার।

নতুন মরসুমে তাঁর বার্সেলোনায় থাকা নিয়ে এখনও রয়েছে সংশয়। তবে সেই জল্পনাকে দূরে সরিয়ে দুঃস্থ শিশুদের সহায়তার জন্য আবার এগিয়ে এলেন লিয়োনেল মেসি। গত বছর যে বুট পরে তিনি পেলের রেকর্ড ম্লান করে দিয়েছিলেন ৬৪৪ নম্বর গোল করে, তা নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

২২ ডিসেম্বর ২০২০। লা লিগায় রিয়াল ভায়াদোলিদের বিরুদ্ধে সেই অভিনব কীর্তির অধিকারী হয়েছিলেন মেসি। স্যান্টোস ক্লাবের জার্সিতে কিংবদন্তি পেলের ৬৪৩ গোলের রেকর্ড ভেঙে দেন তিনি। যা নিয়ে পরে আর্জেন্টিনীয় তারকাকে অভিনন্দনও জানিয়েছিলেন পেলে।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে মেসি বলেছেন, “একটি ক্লাবের হয়ে ৬৪৪ গোল করার বিশেষ একটা তৃপ্তি রয়েছে। এবং সেই কীর্তি যদি পেলের মতো কিংবদন্তির নামের সঙ্গে যুক্ত থাকে, তা হলে তার আনন্দটাই সম্পূর্ণ অন্য ধরনের।” সেখানেই না থেমে মেসি আরও বলেছেন, “তবে আমি মনে করি, নিজের এই কীর্তির চেয়ে অসুস্থ শিশুদের পাশে থাকা অনেক বেশি প্রয়োজনীয়। বিশেষ করে, এই মুহূর্তে যে কঠিন অবস্থার মধ্যে দিয়ে এগোতে হচ্ছে বিশ্বকে, তার পরে দুঃস্থ শিশুদের সুস্থ করে তোলা আমার কাছে সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব বলে মনে করি।”

Advertisement

মেসি নিজের সংস্থার মাধ্যমে সেই বুট জোড়া তুলে দিয়েছেন বার্সেলোনার একটি হাসপাতালে। সেই সময়েই হাসপাতালের আধিকারিকেরা মেসিকে প্রস্তাব দেন সেই বিশেষ বুট জোড়া নিলামে তোলার জন্য। তিনি সেই প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছেন। বার্সা তারকার কথায়, “এই নিলামে সমস্ত ধরনের মানুষকে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করছি। এই নিলাম থেকে যত বেশি পরিমাণ অর্থ সংগৃহীত হবে, তাতে অনেক বেশি সংখ্যক অসুস্থ শিশু সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার সুযোগ পাবে। আমার বিশ্বাস, কেউ এমন একটা মহৎ উদ্দেশে অর্থ ব্যয় করতে অস্বীকার করবেন না।”

তবে সেখানেই থেমে থাকেননি তিনি। এ বার কলম্বিয়ার সঙ্গে যৌথ ভাবে কোপা আমেরিকার আয়োজন করবে তাঁর দেশ আর্জেন্টিনা। করোনা ভাইরাসের নতুন সংক্রমণে তাঁর দেশের পরিস্থিতি নতুন করে আবার উদ্বেগজনক হয়ে উঠেছে। তাই দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলারদের কোভিডের প্রতিষেধক নেওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন মেসি। এই বিষয়ে তিনি নিজে যোগাযোগ করেন চিনের সিনোভ্যাক নামক একটি ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থার সঙ্গে, যারা এখন কোভিডের প্রতিষেধক তৈরি করছে। সেই সংস্থাকে নিজের সই সংবলিত তিনটি জার্সি পাঠিয়েছেন মেসি। তাঁর সেই উদ্যোগে অভিভূত সিনোভ্যাক সংস্থা জানিয়েছে, কোপা আমেরিকা শুরু হওয়ার আগে দক্ষিণ আমেরিকার সমস্ত দেশের ফুটবলারদের কোভিডের প্রতিষেধক দেওয়া হবে।

এ দিকে, আজ, শনিবার কোপা দেল রে ফাইনালে বার্সেলোনা খেলবে অ্যাথলেটিক বিলবাও-এর বিরুদ্ধে। তার আগে শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে বার্সেলোনা ম্যানেজার রোনাল্ড কোমান বলেছেন, “বিলবাও বেশ ভাল দল। গতিশীল ফুটবল খেলে। তাই আমাদের ট্রফি নিশ্চিত করতে হলে প্রথম মিনিট থেকে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। আমাদের দলে এ বার তরুণ ফুটবলারের সংখ্যা বেশি। আশা করি, তারা নিজেদের সেরা ফুটবল উপহার দেবে।”

Advertisement