×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

কাল লা লিগায় মাদ্রিদ ডার্বি

রোনাল্ডোর বদলার ম্যাচ, মেসির সামনে ‘মিশন ৪০০’

নিজস্ব প্রতিবেদন
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৪:১৯
চনমনে মেজাজে মেসি।

চনমনে মেজাজে মেসি।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো- পুরনো চোট সারিয়ে আবার প্র্যাকটিসে নেমে পড়লেন। কিন্তু পুরনো ক্ষতে কি প্রলেপ দিতে পারবেন? লা লিগায় আগের ম্যাচেই রিয়াল সোসিয়েদাদের কাছে ২-৪ হারতে হয় রোনাল্ডো-বিহীন মাদ্রিদকে। তার আগে স্প্যানিশ সুপার কাপে রোনাল্ডো নিজে থেকেও হার বাঁচাতে পারেননি। প্রতিপক্ষ ছিল আটলেটিকো মাদ্রিদ। এ বার শনিবার লা লিগায় মাদ্রিদ ডার্বি অর্থাত্‌ আটলেটিকোর বিরুদ্ধে বদলার ম্যাচ।

লিওনেল মেসি- বার্সেলোনা জার্সিতে প্রায় প্রতি বছরই নতুন রেকর্ড তৈরি করছেন মেসি। এ বার যার সামনে ৪০০ গোল করার হাতছানি। প্রতিপক্ষ আটলেটিক বিলবাও। লড়াই সেই শনিবার।

গত বারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের ধুন্ধুমার রিম্যাচে এখন আর একক দাপটের যুগ নেই। এক সময় ‘মাদ্রিদ ডার্বি’ মানেই রিয়ালের জয় নিশ্চিত ছিল। এখন ছবিটা বদলে গিয়েছে। এই মুহূর্তে মাদ্রিদের হাওয়া কিন্তু আটলেটিকোর দিকেই।

Advertisement

আর সেখানেই রোনাল্ডোর প্রত্যাবর্তন ভরসা দিচ্ছে রিয়াল সমর্থকদের। যাঁর অনুশীলনে ফেরার দৃশ্য দেখে স্বস্তিতে তাঁরা। দলের ইতালীয় কোচ কার্লো আন্সেলোত্তি মনে করছেন, সিআর সেভেন ফিরে আসায় সুপার কাপের হারের বদলা নিতে পারবে রিয়াল। “রোনাল্ডো ফেরায় খুব ভাল লাগছে। মনে হচ্ছে রিয়াল দলে নতুন ইঞ্জিন যোগ হয়েছে,” বলেন ইতালীয় কোচ। রোনাল্ডো ফেরায় ফুরফুরে মেজাজে রিয়াল ফুটবলাররাও। দলের নতুন তারকা জাভিয়ার হার্নান্দেজ তো বলেই দিলেন, রোনাল্ডোই বিশ্বসেরা। “আজ অনুশীলন করেই বুঝতে পারলাম রোনাল্ডো কত বড় মাপের ফুটবলার। কেউ যদি বলে মেসি বিশ্বসেরা, তা হলে সে ঠাট্টা করছে।” তবে রোনাল্ডো চ্যালেঞ্জ সামলাতে তৈরি আটলেটিকোও। দলের অন্যতম ভরসা, মিডফিল্ডার হুয়ানফ্রান এ দিন বলেছেন, “এখন মাদ্রিদ ডার্বি মানে যে কোনও দলই জিততে পারে। আগে যেমন শুধু রিয়াল জিতত। সিমিওনে আসার পরে কিন্তু সম্পূর্ণ পাল্টে গিয়েছে ডার্বির অবস্থা।”



চোট সারিয়ে প্র্যাকটিসে রোনাল্ডো।

গুরুত্বপূর্ণ লা লিগা ম্যাচের চব্বিশ ঘণ্টা আগেও অবশ্য দলবদল বিতর্ক তাড়া করছে সিআর সেভেনকে। এত দিন রোনাল্ডোকে প্রিমিয়ার লিগে ফেরাতে মুখিয়ে ছিল তাঁর পুরনো ক্লাব ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। এ বার সেই লড়াইয়ে নেমে পড়লেন মোরিনহোও। শোনা যাচ্ছে, দি মারিয়া ও জাবি আলোন্সো ক্লাব ছেড়ে যাওয়ায় এতটাই ক্ষুব্ধ রিয়ালের ‘পোস্টার বয়’ যে তাঁর ‘শত্রু’ মোরিনহোর প্রস্তাবেও নাকি ‘হ্যা’ বলতে রাজি আছেন তিনি। তবে রোনাল্ডোর মনে যাই চলুক, রিয়াল কোনওমতেই তাঁকে বিক্রি করতে রাজি নয়। রিয়ালের এক কর্তার মতে, রোনাল্ডোর এজেন্টকে এখনই সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, পুরো চুক্তি শেষ হওয়া অবধি ক্লাবে থাকতে হবে রোনাল্ডোকে। অর্থাত্‌ ২০১৮ পর্যন্ত। আর যদি বেশি টাকা দাবি করেন রোনাল্ডো, সেটা দিতেও দ্বিধাবোধ করবেন না ফিওরেন্তিনো পেরেজ।



রোনাল্ডো যখন মাদ্রিদ ডার্বি নিয়ে ব্যস্ত, মেসির সামনে ‘মিশন ৪০০’। আটলেটিক বিলবাওর বিরুদ্ধে জোড়া গোল করতে পারলেই রোনাল্ডোর ক্লাবের নতুন সদস্য হবেন তিনি। ম্যাচের আগে যে প্রসঙ্গে বার্সা কোচ লুই এনরিকে জানিয়ে দিলেন, তিনি গর্বিত বিশ্বের সেরা ফুটবলারের কোচ হতে পেরে। “মেসির কোচ হওয়ার সুযোগ পেয়ে আমি খুবই খুশি। ও কতটা ভাল ফুটবলার তা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। মেসি মানেই শুধু গোল না। মেসি মানে সতীর্থদের আলাদা একটা ভরসা।” বার্সা জার্সিতে মেসি অপ্রতিরোধ্য হলেও, গত মরসুমে চোট-আঘাতে ভুগতে হয়েছে মহাতারকাকে। কিন্তু বার্সা কোচের বিশ্বাস, এই মরসুমে মেসি ফিরে পাবেন নিজের পুরনো ফর্ম। “আশা করছি আমার কোচিংয়ে নিজের সেরাটা ফিরে পাবে ও। কারণ গত মরসুমে অত ভাল খেলতে পারেনি,” বলেন বার্সার স্প্যানিশ কোচ।

নতুন নেইমারও বার্সায়

নেইমারকে সই করানোর মতোই, সান্তোসের আর এক উঠতি তারকা গ্যাব্রিয়েলের সঙ্গে আগাম চুক্তি করে ফেলল মেসির ক্লাব। যাঁকে বলা হচ্ছে ‘নতুন নেইমার’। গ্যাব্রিয়েল বলেন, “আমার স্বপ্ন ছিল বার্সেলোনার হয়ে খেলার।”

Advertisement