Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩

ভারতে সুইংয়ের চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি হচ্ছেন স্টার্ক

সপ্তাহ দু’য়েকও বাকি নেই ভারত সফরের। দুবাইয়ের শিবিরে জোরকদমে প্রস্তুতি চলছে অস্ট্রেলিয়ার। প্রস্তুতি চলছে মিচেল স্টার্কেরও। বিশ্বের সেরা বাঁ-হাতি পেসারের একটা আলাদা চ্যালেঞ্জও আছে আসন্ন সফরে। এসজি চ্যালেঞ্জ।

সংবাদ সংস্থা
দুবাই শেষ আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৩:২০
Share: Save:

সপ্তাহ দু’য়েকও বাকি নেই ভারত সফরের। দুবাইয়ের শিবিরে জোরকদমে প্রস্তুতি চলছে অস্ট্রেলিয়ার। প্রস্তুতি চলছে মিচেল স্টার্কেরও। বিশ্বের সেরা বাঁ-হাতি পেসারের একটা আলাদা চ্যালেঞ্জও আছে আসন্ন সফরে। এসজি চ্যালেঞ্জ।

Advertisement

বিশ্বের বেশির ভাগ দেশই এখন টেস্টে কোকাবুরা বলে খেললেও ভারতে টেস্ট সিরিজে চলে এসজি বল। অস্ট্রেলীয় পেসার শেষ এসজি বলে খেলেছেন ২০১৩ ভারত সফরে। তাই ফের লাল এসজি বলে সুইংয়ে শান দেওয়াটাই এখন টার্গেট স্টার্কের।

‘‘চার বছর পরে এসজি বলে খেলব ভারতে। ব্যাপারটা মানিয়ে নিতে হবে দ্রুত। এটা একটা অন্য চ্যালেঞ্জ। রিভার্স সুইং করানোর চেষ্টা যেমন করতে হবে সঙ্গে দেখতে হবে নতুন বলে সুইং কতটা করানো যায় সেটাও,’’ দুবাইয়ে বলেছেন স্টার্ক।

২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে পুণেয় শুরু চার টেস্টের সিরিজে অস্ট্রেলিয়া কী ভাবে তাদের দুই পেসার স্টার্ক আর জস হ্যাজেলউডকে ব্যবহার করবে সেটা নিয়েও প্রচুর কথা হচ্ছে। আইসিসির গ্লোবাল অ্যাকাডেমিতে নিজেদের মধ্যে প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলে উঠে স্টার্ক অবশ্য বলে দিলেন, ‘‘ঘরের মাঠে আমাদের যে ভাবে ব্যবহার করা হয় সেটা সম্ভবত এখানে পাল্টাতে হবে। তবে স্পিনারদের উপরও অনেকটা নির্ভর করছে পেসারদের কী ভাবে আনা হবে। স্পিনাররা উইকেট পাচ্ছে কি না সেটা দেকে প্ল্যান করতে হবে। গোটাটাই স্মিথির (ক্যাপ্টেন) উপর। তা ছাড়া বলটার উপর কতটা প্রভাব পড়ছে, রিভার্স সুইং করছে কি না, দেখতে হবে সেটাও। হয়তো প্রচুর ছোট ছোট স্পেলে আমাদের বোলিং করতে বলা হবে।’’

Advertisement

চার বছর আগে ভারত সফরে স্টার্কের অভিজ্ঞতা মোটেই সুখের হয়নি। প্রথম টেস্টে চেন্নাইয়ে নামলেও তিনি কোনও উইকেট পাননি। দ্বিতীয় টেস্টে প্রথম একাদশ থেকে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়। তৃতীয় টেস্টে বিখ্যাত ‘হোমওয়ার্ক গেট’ কেলেঙ্কারির জন্য ফের দলে ডাকা হয় স্টার্ককে। যে বিতর্কে চার জন ক্রিকেটারকে তৃতীয় টেস্ট থেকে বের করে দেন তৎকালীন অজি কোচ মিকি আর্থার। স্টার্ক সুযোগ পান এবং দু’উইকেট নেন। তবে সিরিজের শেষ টেস্টে ফের চোটের জন্য খেলতে পারেননি তিনি। অস্ট্রেলিয়াকে দেশে ফেরত যেতে হয় ০-৪ হেরে। তবে সে বার আহামরি কিছু না করতে পারলেও গত বছর শ্রীলঙ্কা সিরিজে স্টার্ক কিন্তু দুর্ধর্ষ পারফর্ম করেছেন। অস্ট্রেলিয়া ০-৩ সিরিজ হারলেও ক্লার্ক সব মিলিয়ে নেন ২৪ উইকেট। ভেঙে দেন ডেনিস লিলি আর স্যর রিচার্ড হ্যাডলির তিন টেস্টের সিরিজে সর্বোচ্চ ২৩ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড। সেই আত্মবিশ্বাসটা নিয়েই এ বার ভারত সফরে আগুন ঝরাতে তৈরি হচ্ছেন স্টার্ক। বলছেন, ‘‘শ্রীলঙ্কা সফরে ব্যাটিং প্ল্যান যে রকম ছিল তাতে কিছু পরিবর্তন হয়তো করতে হবে। তবে বল প্রচুর স্পিন করবে। এই একটা ব্যাপারে দুটো সিরিজেই কিন্তু সামঞ্জস্য রয়েছে। আমরা এটা মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.