Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

টেস্ট শুরুর আগে পিচ নিয়ে ‘ম্যাচ’

সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থার প্রধান নিরঞ্জন শাহ বহু দিন ধরে বোর্ডের উচ্চ পদে থেকেছেন। এক সময় বোর্ডের সচিবও ছিলেন। ক্রিকেট প্রশাসনে তাঁর প্রভাবও

নিজস্ব প্রতিবেদন
০২ অক্টোবর ২০১৮ ০৪:৩৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
বোর্ডের কিউরেটর পাঠানো নিয়ে সরব হয়েছেন নিরঞ্জন শাহ।

বোর্ডের কিউরেটর পাঠানো নিয়ে সরব হয়েছেন নিরঞ্জন শাহ।

Popup Close

বিরাট কোহালির ভারতের সঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট লড়াই শুরুর আগে লেগে গেল অন্য ‘যুদ্ধ’। যার এক দিকে ভারতীয় বোর্ড। অন্য দিকে প্রথম টেস্টের আয়োজক সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থা। ৪ অক্টোবর থেকে রাজকোটে শুরু হচ্ছে প্রথম টেস্ট। সেখানকার পিচের অবস্থা সরেজমিনে দেখার জন্য বোর্ড তাদের প্রধান কিউরেটর বা পিচ প্রস্তুতকারক দলজিৎ সিংহকে পাঠিয়েছে। সেটা নিয়েই অসন্তোষ তৈরি হয়েছে স্থানীয় সংস্থার মধ্যে।

সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থার প্রধান নিরঞ্জন শাহ বহু দিন ধরে বোর্ডের উচ্চ পদে থেকেছেন। এক সময় বোর্ডের সচিবও ছিলেন। ক্রিকেট প্রশাসনে তাঁর প্রভাবও ছিল যথেষ্ট। কিন্তু লোঢা কমিটির সুপারিশ এবং সুপ্রিম কোর্টের রায়ে ৭০ পেরিয়ে যাওয়া এবং বছরের পরে বছর ধরে মসনদ আগলে থাকা নিরঞ্জন শাহকে দায়িত্ব ছেড়ে চলে যেতে হচ্ছে। তাতে অবশ্য তিনি চুপ থাকছেন না। নিজের শহরে টেস্ট শুরুর আগে বোর্ডের কিউরেটর পাঠানো নিয়ে সরব হয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘‘স্থানীয় পিচ প্রস্তুতকারকেরা যথেষ্ট যোগ্য। তারা পিচ সম্পর্কে ভালই জানে। তার পরেও বোর্ডের প্রধান কিউরেটরকে আনার কী দরকার পড়ছে, কে জানে!’’ বোঝাই যাচ্ছে, স্থানীয় পিচ প্রস্তুতকারকের মাথার উপরে তদারকি করার জন্য দলজিৎকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত মোটেও ভাল ভাবে নেননি নিরঞ্জনরা। তিনি আরও বলেছেন, ‘‘স্থানীয় পিচ প্রস্তুতকারকদের স্বাধীন ভাবে কাজ করলে অনেক ভাল পিচ তৈরি হয়। কিন্তু এখন যে-হেতু বোর্ডের কিউরেটর এসে গিয়েছেন, তিনিই নিয়ন্ত্রণ হাতে তুলে নেবেন। সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থার পিচ প্রস্তুতকারকরা থাকবেন শুধু সাহায্য করার জন্য। আশা করব, তাঁদের মূল্যবান মতামত নেওয়া হবে।’’

তাঁর মন্তব্য নিয়ে টেস্ট শুরুর আগে জলঘোলা শুরু হয়ে গিয়েছে। এমনিতেই দেশের মাঠে খেলা মানে পিচ নিয়ে নানা বিতর্ক লেগেই থাকে। তার উপরে লোঢা কমিটির সুপারিশ এবং সুপ্রিম কোর্টের রায়ে পুরনো কর্তাদের সঙ্গে কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্সের (সিওএ) বিরোধ চলছেই। নিরঞ্জন শাহ যে-হেতু ক্ষমতা হারাচ্ছেন নতুন নিয়মে তিনি সিওএ-র বিরুদ্ধে অতীতেও সরব হয়েছেন। ম্যাচ শুরুর আগে বোর্ডের প্রধান কিউরেটরকে পাঠানোটা বেশ কয়েক দিন ধরেই চলছে। এটা নতুন কোনও প্রথা নয়। অনেকেই তাই বুঝতে পারছেন না, সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থায় প্রাক্তন হয়ে পড়া নিরঞ্জন শাহ কেন এ নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন।

Advertisement

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেশের অভিজ্ঞ এক পিচ প্রস্তুতকারক সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে বলেছেন, ‘‘জানি না বোর্ডের কিউরেটর পাঠানো নিয়ে সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থা কেন আপত্তি তুলছে। এটা তো নতুন কোনও ব্যাপার নয়। এখন দেশের মাঠে খেলা থাকলে প্রত্যেক কেন্দ্রেই বোর্ডের কিউরেটর যান। এমনকি, রঞ্জি ট্রফির সময়েও এমনটাই হয়।’’ বোর্ডের প্রথা অনুযায়ী, টেস্টের কেন্দ্রে গিয়ে পিচ তদারকি করার জন্য চিফ কিউরেটরের কোনও অনুমতির প্রয়োজন নেই। যত ক্ষণ না টস হচ্ছে, মাঠ চিফ খিউরেটরের অধীনে থাকে। স্থানীয় পিচ প্রস্তুতকারকেরা বোর্ডের চিফ কিউরেটরকে সাহায্য করবেন। যদিও এ ব্যাপারে লিখিত নিয়ম নেই। রাজকোটে এর আগে একটিই টেস্ট ম্যাচ হয়েছে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দু’বছর আগে। এ দিকে, শোনা যাচ্ছে রাজকোট এবং হায়দরাবাদে দু’টি টেস্ট ম্যাচের জন্য বাউন্সি পিচ চেয়েছে ভারতীয় দল। যাতে অস্ট্রেলিয়া সফরের প্রস্তুতি সেরে রাখা যায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শেষ হওয়ার পরে মাত্র দশ দিনের বিরতি পাচ্ছেন বিরাট কোহালিরা। তার পরেই তাঁদের বেরিয়ে পড়তে হবে দীর্ঘ অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ১১ নভেম্বর সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলছেন কোহালিরা। আর ২১ নভেম্বর ব্রিসবেনে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে তাঁদের অস্ট্রেলিয়া অভিযান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement