Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

এখনই কেন মাঠে ফেরা, প্রশ্ন সতর্ক স্টার্লিংয়ের

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আয়োজকেরা এই মুহূর্তে সব কিছু নতুন করে শুরুর উদ্যোগই নিচ্ছেন। এমনও হতে পারে যে, লিগের বাকি সব ম্যাচই হবে নিরপেক্ষ কেন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৩ মে ২০২০ ০৩:২৯
উদ্বেগ: করোনা-আবহে খেলা নিয়ে সতর্ক স্টার্লিং। ফাইল চিত্র

উদ্বেগ: করোনা-আবহে খেলা নিয়ে সতর্ক স্টার্লিং। ফাইল চিত্র

করোনাভাইরাসের দাপটে ইউরোপের বেশির ভাগ দেশের মতো দিশেহারা অবস্থা ইংল্যান্ডেরও। তার মধ্যেই প্রিমিয়ার লিগ আবার শুরু করতে উঠে পড়ে লেগেছে ক্লাবগুলি। এমনকি ১ জুনের পর থেকে দর্শকহীন গ্যালারিতে টুর্নামেন্ট শুরুর সবুজ সঙ্কেত মিলেছে সরকারের তরফে। কিন্তু ম্যাঞ্চেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড রাহিম স্টার্লিং সিঁদুরে মেঘ দেখছেন। এই পরিস্থিতিতে আবার ফুটবল শুরু হলে তার পরিণতি কতটা খারাপ হতে পারে, তা ভেবেই তিনি আতঙ্কিত।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে স্টার্লিং বলেছেন, ‘‘আমাদের মাঠে ফেরার মুহূর্তটা যেন শুধু ফুটবলের কারণেই গুরুত্বপূর্ণ না হয়ে ওঠে। শুধু ফুটবলারেরা নিরাপদ থাকলেই চলবে না। সমস্ত মেডিক্যাল কর্মী ও রেফারিদের জন্যও যেন ঝুঁকিহীন পরিমণ্ডল থাকে।’’ পেপ গুয়ার্দিওলার অন্যতম প্রিয় ফুটবলার যোগ করেছেন, ‘‘আমি নিজেই বুঝতে পারছি না, এই মুহূর্তে কী ভাবে ফের ফুটবল শুরুর প্রচেষ্টা সফল হতে পারে। আমার ব্যক্তিগত মত, ফুটবলার এবং ফুটবলের সঙ্গে জড়িত দর্শক-সহ সবার জন্য পরিস্থিতি নিরাপদ হলেই লিগ শুরু করা কাম্য। তার আগে নয়। আর সেটা যত দিন না হচ্ছে, তত দিন কী ভাবে বলি যে আমি ভয় পাচ্ছি না। বরং এখনই লিগ শুরু করা হলে তার কী কী ভয়ঙ্কর পরিণতি হতে পারে, সেটাই সারাক্ষণ ভাবছি।’’

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের আয়োজকেরা এই মুহূর্তে সব কিছু নতুন করে শুরুর উদ্যোগই নিচ্ছেন। এমনও হতে পারে যে, লিগের বাকি সব ম্যাচই হবে নিরপেক্ষ কেন্দ্রে। করোনাভাইরাস অতিমারির জেরে ইপিএল মার্চ থেকে বন্ধ আছে। লিগ বন্ধ হয়ে যাওয়ার সময় লিভারপুল নিশ্চিতভাবে খেতাব জিততে চলেছিল। মাত্র তিনটি ম্যাচ জিতলেই ট্রফি মুঠোয় চলে আসত।

Advertisement

আরও পড়ুন: পাঁচ পরিবর্তের পরীক্ষাকে স্বাগত ভাইচুং, বিজয়নদের

সতর্ক ফেডারেশন: বুন্দেশলিগা শুরু হতে চলেছে এই সপ্তাহে। ফাঁকা স্টেডিয়ামে খেলা হলেও সমর্থকদের নিয়ে চিন্তায় রয়েছে জার্মান ফুটবল ফেডারেশন। তাদের তরফে জানানো হয়েছে, ভুলেও যেন সমর্থকেরা স্টেডিয়ামের বাইরে ভিড় না করেন। তাতে বিপদ আরও বাড়বে। ইউরোপের সব দেশের মধ্যে ফুটবল ম্যাচে দর্শকদের গড় হাজিরা সব চেয়ে বেশি র্জামান বুন্দশলিগায়।

আরও পড়ুন

Advertisement