Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ওয়ার্নার, তুমি নায়ার হয়ে ওঠো, আবেদন স্মিথের

সংবাদ সংস্থা
মেলবোর্ন ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ ০৩:৩৮
অ্যালান বর্ডার পদক নিতে এসে স্ত্রীর সঙ্গে ওয়ার্নার। ছবি: এএফপি

অ্যালান বর্ডার পদক নিতে এসে স্ত্রীর সঙ্গে ওয়ার্নার। ছবি: এএফপি

মাসখানেক পরেই তাঁর ক্যাপ্টেন্সির সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা। যখন দলবল নিয়ে ভারতে আসবেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। চার টেস্টের সিরিজে তাঁর উপর কড়া নজর থাকবে অস্ট্রেলিয়া-সহ গোটা ক্রিকেটবিশ্বের।

এবং যে সিরিজের আগে নিজের সহকারীকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে রাখছেন স্টিভ স্মিথ। ডেভিড ওয়ার্নারকে তাঁর চ্যালেঞ্জ— করুণ নায়ারের মতো বড় রান করো। না হলে ঘরের মাঠে বিরাট কোহালিদের হারানো যাবে না। এক সাক্ষাৎকারে স্মিথ বলেছেন যে, উপমহাদেশে হালফিলে তাঁর টিম যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে ব্যাট করেছে, সেটা স্রেফ ‘রাবিশ’।

কিন্তু স্মিথ মনে করেন, ওয়ার্নারের ক্ষেত্রে এই তত্ত্বটা খাটে না। ‘‘ডেভির ব্যাপারটা আলাদা। কারও সহজাত খেলা নষ্ট করা ঠিক নয়। কিন্তু ও যদি সেঞ্চুরি পায়, তা হলে ওকে নতুন করে যুদ্ধে নামতে হবে। দুশো বা তিনশো করার যুদ্ধে। করুণ নায়ারের মতো। ও রকম বড় স্কোর হলেই আমরা দাঁড়ানোর জায়গা পাব,’’ বলে দিয়েছেন স্মিথ।

Advertisement

ঘাতক কোনও বলে ব্যাটসম্যানের নাম লেখা আছে, প্রাণঘাতী সেই বল আসার আগে সব বল উড়িয়ে দাও—এই অতি-আগ্রাসী মনোভাব স্মিথের কাছে ‘রাবিশ’। ‘‘এই ব্যাপারটা মাথা থেকে বের করে ডিফেন্সের উপর জোর দিতে হবে। যত বেশিক্ষণ সম্ভব ব্যাট করতে হবে। আমাদের সবার হাতে শট আছে। কিন্তু ক্রিজে নেমে অপেক্ষা করতে হবে। তার পর বড় স্কোরের লক্ষ্যে লড়ে যেতে হবে।’’ অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক এটাও চান, যে ম্যাচটা জেতা যাবে না, সেটা যেন ড্র করতে লড়ে তাঁর টিম। বেশি কিছু চেষ্টা করতে গিয়ে যেন না হেরে বসে। ‘‘হারের চেয়ে ড্র অনেক ভাল। যদি আমরা জিততে না পারি, তা হলে অন্তত যেন টিম সহজাত আগ্রাসন বাদ দিয়ে ড্রয়ের জন্য পড়ে থাকে। অতীতে এটা আমরা খুব ভাল ভাবে করতে পারিনি,’’ বলছেন স্মিথ। ভারত সফরে তাঁর সেরা বাজি বাঁ-হাতি স্পিনার স্টিভ ও’কিফ। এশিয়ায় যিনি যথেষ্ট সফল। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে বিপজ্জনক দেখানো ও’কিফ যদিও হ্যামস্ট্রিং চোটের জন্য বাকি ম্যাচ আর সিরিজ থেকেও বাদ পড়ে যান। ‘‘উপমহাদেশে ও’কিফ আমাদের জন্য বড় প্লেয়ার হয়ে উঠতে পারে। ও জানে ওখানে কী ভাবে বল করা উচিত। ভারতে ‘এ’ টিমের সফরে ও বেশ ভাল বল করেছিল,’’ বলেছেন স্মিথ। অস্ট্রেলিয়ার বোলিং পরামর্শদাতা এবং প্রাক্তন ভারতীয় অলরাউন্ডার শ্রীধরন শ্রীরামের ক্লাস করছেন ও’কিফও। ‘‘এটা খুব বড় প্লাস। ভারতের পিচে খেলা নিয়ে অনেক কিছু শেখাচ্ছে শ্রী। আমরা সফল হলে ও’কিফের তাতে বড় ভূমিকা থাকবে,’’ বলেছেন স্মিথ।

আরও পড়ুন

Advertisement