কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি অর্থাৎ দক্ষিণ থেকে উত্তরবঙ্গ— সর্বত্রই বাড়তি বাস দিচ্ছে রাজ্য সরকার। সরকারি সূত্রের খবর, উত্তরবঙ্গ, পশ্চিমাঞ্চল এবং কলকাতা সংলগ্ন জেলাগুলিতে আপাতত ১৬০টি নতুন সরকারি বাস দেওয়া হচ্ছে।

পরিবহণ দফতর সূত্রের খবর, রাজ্যের আমজনতা যাতে কম ভাড়ায় সরকারি বাসে চড়তে পারে, সেই জন্যই নতুন নন-এসি বাস দেওয়া হচ্ছে। ৫০ আসনের প্রতিটি বাসের দাম পড়ছে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা। তাতে প্রচুর যাত্রী বহন করা সম্ভব। ১৬০টি বাসের জন্য টাকা বরাদ্দ করেছে সরকার। বিরোধীদের বক্তব্য, পঞ্চায়েত ভোটকে সামনে রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

রাজ্য পরিবহণ নিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, তাদের অধীনে থাকা তিনটি সরকারি সংস্থা পাচ্ছে ১০০টি বাস। বাকি ৬০টি বাসের মধ্যে কিছু পাবে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ আর কিছু যাবে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণে। পরিবহণ নিগমের বাসগুলি চলবে হাওড়া, হুগলি, নদিয়া, দুই ২৪ পরগনার মধ্যে। কলকাতাতেও কিছু দেওয়া হবে। দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগমের বাসগুলি চলাচল করবে পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন পিছিয়ে পড়া এলাকায়। সরকারি কর্তাদের বক্তব্য, ওই সব অঞ্চলে যাতায়াতের ব্যবস্থা খুব উন্নত নয়। সরকারি বাস পরিষেবা চালু হলে বাসিন্দারা উপকৃত হবেন। সে-দিকে লক্ষ রেখেই নতুন বাস দেওয়ার পরিকল্পনা।

পরিবহণ নিগমের এক কর্তা জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯ ডিসেম্বর নবান্নে ৩০টি বাসের উদ্বোধন করবেন। সে-দিনই বাসগুলি রাস্তায় নামতে শুরু করবে। সব বাসকে একসঙ্গে নবান্নে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই মুখ্যমন্ত্রীকে দিয়ে ৩০টি বাসের উদ্বোধন করানো হবে। তবে নবান্নের অনুষ্ঠান থেকে ১৬০টি বাসের কথাই ঘোষণা করা হবে।

পঞ্চায়েত নির্বাচনকে মাথায় রেখে মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই জেলা সফর শুরু করেছেন। সরকারি পরিষেবা বেশি করে মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য তিনি প্রতিটি সভাতেই জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিচ্ছেন। জেলায় জেলায় সরকারি বাস পরিষেবা তুলনায় কম। সেটা মাথায় রেখেই জেলাগুলিতে নতুন সরকারি বাস চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে।