চার্জশিটের পর শুক্রবার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হল কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে। পুলিশের আবেদনের ভিত্তিতে আলিপুর আদালতের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন বলে আদালত সূত্রের খবর।

বৃহস্পতিবারই তৃণমূল বিধায়ক মহুয়া মৈত্রকে কটূক্তি করার অভিযোগে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে আলিপুর আদালতে চার্জশিট জমা দিয়েছিলেন আলিপুর থানার তদন্তকারীরা। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৯ ধারায় (মহিলার উদ্দেশে অশালীন শব্দ ব্যবহার বা অঙ্গভঙ্গি) সাংসদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই মামলায় নোটিস দিয়ে দু’বার ডেকে পাঠানো হয়েছিল কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীকে।

আরও পড়ুন: তদন্তে দোষী অ্যাপোলোই

কিন্তু তিনি যে পুলিশের তদন্তকারীদের সামনে হাজিরা দেননি, আদালতকে সেটা জানানো হয়েছিল। সরকারি আইনজীবী সৌরিন ঘোষাল বলেন, ‘‘পুলিশের সমন পেয়েও তাতে সাড়া না দেওয়ার মানে তিনি পলাতক। আদালতকে সেটাই বলা হয়েছিল।’’ যা শুনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলছেন, ‘‘কলকাতায় পুলিশই আমাকে নিরাপত্তা দেয়। তার পরেও আমি পলাতক!’’ বাবুল বলেন, ‘‘আইন আইনের পথে চলবে। বাবুলও আইনের পথে চলবে।’’

চলতি বছরের ৩ জানুয়ারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের ‘লাইভ’ অনুষ্ঠানে তৃণমূল বিধায়ক মহুয়া মৈত্রকে ‘কটূক্তি’ করার অভিযোগ ওঠে বাবুলের বিরুদ্ধে। পরের দিনই আলিপুর থানায় বাবুলের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছিলেন মহুয়া।