• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মুখ্যমন্ত্রীর কথাবার্তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন: আরও কড়া বিবৃতি রাজ্যপালের

Governor Of West Bengal
—ফাইল চিত্র।

Advertisement

আরও কড়া প্রতিক্রিয়া এল রাজ ভবন থেকে। মুখ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার রাজ্যপালের বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তোলায় প্রেস বিবৃতি দিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছিলেন রাজ্যপাল। বুধবার সুর আরও চড়িয়ে রাজ ভবনের তরফে বলা হল, ‘‘সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন কথা বলছেন মুখ্যমন্ত্রী এবং তিনি পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে ইমোশনালি ব্ল্যাকমেল করতে চাইছেন।’’ তৃণমূল মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ দিন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে যে সব মন্তব্য করেছেন, তারও জবাব দেওয়া হয়েছে রাজ ভবন থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে। রাজ্যপালকে শিক্ষা দেওয়ার চেষ্টা না করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় মন দিক সরকার, বিবৃতির মাধ্যমে এমন পরামর্শই দিয়েছেন কেশরীনাথ ত্রিপাঠী।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় নিজেদের অসাফল্যকে ঢাকতেই মানুষের নজর ঘোরাতে চাইছে রাজ্য সরকার। লেখা হয়েছে রাজ্যপালের বিবৃতিতে। ‘‘নিজের সাংবিধানিক অধিকারের সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে রাজ্যপাল পূর্ণ মাত্রায় সচেতন এবং অন্য কারও কাছ থেকে সে বিষয়ে শিক্ষা নেওয়ার প্রয়োজন রাজ্যপালের নেই।’’ এমন কথাও সেখানে লেখা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী নিজেই গতকাল রাজ্যপালের এক্তিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। রাজ্যপাল যে ভাবে তাঁর সঙ্গে কথা বলেছেন, সে ভাবে কথা বলার অধিকার তাঁর নেই বলে মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করেছিলেন। বুধবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও একই ধরনের কথাই বলেন। তার জেরেই রাজ ভবন থেকে এ দিন ফের বিবৃতি দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: এ বার তোপ কেন্দ্র থেকে, মমতাকে তীব্র আক্রমণ মুখতার আব্বাস নকভির

 

‘‘এ কথা ঠিক যে মুখ্যমন্ত্রী গণতান্ত্রিক ভাবে মানুষের দ্বারা নির্বাচিত, কিন্তু এ কথাও ভুললে চলবে না যে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচিত কেন্দ্রীয় সরকারের সুপারিশেই রাজ্যপালকে নিয়োগ করেন রাষ্ট্রপতি।’’ রাজ ভবনের বিবৃতিতে এ দিন এমন কথাই লেখা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী যে সব মন্তব্য রাজ্যপাল সম্পর্কে করেছেন, তা রাজ্যপালের জন্য অপমানজনক এবং অসম্মানজনক বলেও সেখানে লেখা হয়েছে। রাজ ভবনের তরফে রাজ্য সরকারকে তীব্র কটাক্ষ করা হয়েছে এ দিন। বিবৃতিতে লেখা হয়েছে, ‘‘রাজ ভবন রাজ্য সরকারের কোনও দফতর নয় এবং যে কেউ রাজ্যপালের কাছে নিজের অভিযোগ নিয়ে আসতেই পারেন।’’ রাজ ভবন বিজেপির আস্তানা হয়ে উঠেছে বলে যে মন্তব্য পার্থ চট্টোপাধ্যায় করেছেন, তার বিরোধিতা করেই রাজ্যপাল এই বিবৃতি দিয়েছেন বলে রাজনৈতিক শিবিরের মত। বিবৃতিতে লেখা হয়েছে, ‘‘রাজ ভবন বিজেপি বা আরএসএস-এর দফতর হয়ে উঠেছে, এ কথা বলা ভুল।’’ রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে রাজ ভবনের তরফে বলা হয়েছে, কেউ নিজের অভিযোগ নিয়ে রাজ্যপালের দফতরে এলে, সেই অভিযোগপত্রকে ছিড়ে বাতিল কাগজের ঝুড়িতে ফেলে দেওয়া রাজ্যপালের পক্ষে সম্ভব নয়।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন