• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নতুন বছরেই বাড়ছে বেতন, ঘোষণা মমতার, বকেয়া নিয়ে সংশয়

Mamata Banerjee
তৃণমূলের কর্মমচারী ফেডারেশনের সমাবেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই

রাজ্য সরকারি কর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নতুন বেতন কাঠামো নিয়ে প্রতীক্ষা ও জল্পনার অবসান হল বটে, কিন্তু তার পরেও রয়ে গেল ধোঁয়াশা।

শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোরে তৃণমূলের কর্মচারী ফেডারেশনের সাংগঠনিক সমাবেশ ছিল। সেই সমাবেশে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি বলেন, ‘‘বেতন কমিশনের সুপারিশের প্রথম ভাগটা আজই হাতে পেয়েছি। কমিশন যা সুপারিশ করেছে, আমরা সেটাই মানব।’’ মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণায় হাততালিতে ফেটে পড়ে গোটা স্টেডিয়াম। ২.৫৭ ফিটমেন্ট ফ্যাক্টর পদ্ধতি প্রয়োগ করেই যে বেতন বাড়ছে, মুখ্যমন্ত্রী সে কথা জানাতেই ফের হাততালি। কিন্তু বকেয়া বেতন কতটা মিলবে, তা নিয়ে একটি শব্দও খরচ করলেন না মমতা। ফলে আশঙ্কাও তৈরি হল সরকারি কর্মীদের মধ্যে।

আগের যে বেতন কাঠামো চালু ছিল, নতুন পে কমিশন তা তুলে দেওয়ার সুপারিশ করেছে বলেও জানিয়েছেন মমতা। সেই সঙ্গে পে কমিশন যে ফিটমেন্ট পদ্ধতি প্রয়োগ করে বেতন কাঠামোয় পরিবর্তন এনেছে, তা-ও এ দিন জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, কেমন হতে পারে বেতন বৃদ্ধির হার, দেখে নিন:

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

আরও পড়ুন: রক্ষাকবচ উঠতেই রাজীব কুমারের বাড়িতে নোটিস নিয়ে হাজির সিবিআই, শনিবার হাজির হওয়ার নির্দেশ​

আর্থিক টানাটানির মধ্যেও রাজ্য সরকার কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি করছে বলে এ দিন দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্রের পেনশন স্কিমের পাশাপাশি ডিএ বৃদ্ধি নিয়ে নাম না করে বাম সরকারের সমালোচনা করেন মমতা। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘সরকারের উপর ভরসা রাখুন। আপনারা যত এই সরকারকে দেবেন, ততই সরকার আপনাদের ঢেলে দেবে।’’

এ বার থেকে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ন্যূনতম বেতন ৭ হাজার টাকা থেকে বেড়ে ১৭ হাজার ৯৯০ টাকা হবে। একই সঙ্গে গ্র্যাচুইটির সর্বোচ্চ সীমা ৬ লক্ষ থেকে বেড়ে ১০ লক্ষ। এ দিন এমনটাই ঘোষণা করেন মমতা। তিনি বলেন, ‘‘রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির বিষয়টি সরকার সহানুভূতির সঙ্গে বিচার করবে। ২৩ সেপ্টেম্বর এ নিয়ে আলোচনা হবে মন্ত্রিসভার বৈঠকে। তার পর বেতন বৃদ্ধির প্রক্রিয়া শুরু হবে।’’ অর্থাৎ, সরকারি কর্মচারীদের হাতে এই বর্ধিত হারে বেতন পৌঁছতে পৌঁছতে আগামী বছর অর্থাৎ ২০২০-র জানুয়ারি মাস হয়ে যাবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

২০১৫ সালের শেষ লগ্নে বসেছিল রাজ্য সরকারের এই পে কমিশন। তা নিয়ে দীর্ঘ টানাপড়েনের পর অবশেষে পৌনে চার বছর বাদে শুক্রবার বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা। কিন্তু, এত দিনের বকেয়া এরিয়ারের কী হবে? এ দিন তুমুল হাততালির মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা করলেও এই বিপুল অঙ্কের বকেয়া নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েই গিয়েছে। তা নিয়ে আশঙ্কায় রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা।

আরও পড়ুন: রক্ষাকবচ প্রত্যাহার করল হাইকোর্ট, রাজীবের গ্রেফতারিতে আর কোনও বাধা নেই সিবিআইয়ের

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন