কর্মীদের মহার্ঘ ভাতার (ডিএ) বিষয়ে কী ভাবছে রাজ্য— হলফনামা দিয়ে জানাতে বলল রাজ্য প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল (স্যাট)। বিচারপতি আর কে বাগ এবং সুবেশকুমার দাশের বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে, আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হলফনামা দিতে হবে রাজ্য সরকারকে। তার সাত দিনের মধ্যে হলফনামা দিয়ে নিজেদের অবস্থান জানাতে বলা হয়েছে মামলাকারী সংগঠন কনফেডারেশন অব স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ-কেও।

ডিএ মামলা গড়িয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট পর্যন্ত। কলকাতা হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, ডিএ হল কর্মীদের অধিকার, তা রাজ্য সরকারের দয়ার দান নয়। তবে কী হারে ডিএ দেওয়া হবে, বছরে ক’বার ডিএ ঘোষণা করা হবে— সে সব বিষয়ে নির্দেশ হাইকোর্ট দেয়নি। স্যাটে মামলা ফেরত পাঠায় হাইকোর্ট। ওই সব বিষয়ে স্যাটকে সিদ্ধান্ত নিতে বলে।

হাইকোর্ট দ্রুত মামলাটির নিষ্পত্তির নির্দেশও দিয়েছিল। তাই গত ১০ সেপ্টেম্বরই মামলাটি স্যাটে ‘মেনশন’ হয়। আজ অর্থাৎ ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শুনানি শুরু হবে, সে দিনই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বিচারপতি আর কে বাগ এবং সুবেশকুমার দাশের বেঞ্চ এ দিন রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে, ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হলফনামা জমা দিতে। ডিএ নিয়ে হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছে, তার প্রেক্ষিতে রাজ্য সরকার কী ভাবছে, হলফনামায় তা বিশদে জানাতে হবে, বলেছে স্যাট।

আরও পড়ুন

ডিএ নিয়ে স্যাটে হাতিয়ার বাম আমলের নির্দেশিকাই 

ট্রাঙ্কে এল ভারতীর টাকা-গয়না! গোনার জন্য আনা হল  যন্ত্রও

কনফেডারেশনের তরফে সুবীর সাহা জানিয়েছেন, ‘‘রাজ্য সরকারের হলফনামা জমা পড়ার অপেক্ষায় রয়েছি আমরা। সরকার তার অবস্থান জানানোর পরে আমরা ৭ দিন সময় পাব। তার মধ্যেই আমরাও হলফনামা দিয়ে আমাদের অবস্থান জানাব।’’ দুই হলফনামা জমা পড়ার পরে আগামী ৪ অক্টোবর ফের মামলাটির শুনানি হবে।

স্যাটে অবশ্য ডিএ নিয়ে আরও একটি মামলা চলছে। বিজেপি ঘনিষ্ঠ কর্মী সংগঠন ‘সরকারি কর্মচারী পরিষদের’ সেই মামলাটিরও এ দিন ‘মেনশন’ হয়েছে স্যাটে। আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর মামলাটির শুনানি হবে। সংগঠনের রাজ্য কমিটির আহ্বায়ক দেবাশিস শীল বললেন, ‘‘যে বিষয় নিয়ে কনফেডারেশন মামলা করেছে, আমাদের মামলাও সেই একই বিষয়ে। কনফেডারেশনের মামলা হাইকোর্টে যাওয়ার আগেই আমরাও স্যাটের দ্বারস্থ হয়েছিলাম। এখন কনফেডারেশনের মামলাও স্যাটে ফেরত এসেছে। দুই মামলার শুনানি যাতে একসঙ্গেই হয়, আমরা ডিভিশন বেঞ্চের কাছে সেই আবেদনই জানাব।’’