রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলিকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার ‘চক্রান্ত’ করছে কেন্দ্র। এই অভিযোগে, কলকাতায় গাঁধী মূর্তির পাদদেশে তৃণমূলের অনশন ষষ্ঠ দিনে পড়ল। তৃণমূলনেত্রী তথা সাংসদ দোলা সেনের বক্তব্য, ‘‘কেন্দ্র দাবি না মানা পর্যন্ত অনশন চলবে।’’

বহু দিন ধরেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের অর্থনীতি নিয়ে অভিযোগ করছে তৃণমূল। অভিযোগ, প্রায় ৪২টি রাষ্ট্রায়ত্ত এবং কেন্দ্রীয় সংস্থাকে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার কর্পোরেটের হাতে তুলে দিতে চাইছে। করা হচ্ছে বিকেন্দ্রীকরণ। এর মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়া যেমন রয়েছে, তেমনই আছে একাধিক রেলের লোকোমোটিভ কারখানা। দোলার অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই এই সংস্থাগুলির বিলগ্নিকরণ করার চেষ্টা করছে বিজেপি। গত বাজেটেও তার ইঙ্গিত আছে। একই সঙ্গে তাঁদের অভিযোগ, বেঙ্গল কেমিক্যালসের মতো সংস্থাকেও কর্পোরেটের হাতে তুলে দেওয়ার ‘চক্রান্ত’ করছে কেন্দ্র। সরাসরি বিকেন্দ্রীকরণের কথা না বললেও অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিগুলিকেও কর্পোরেটের হাতে তুলে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলে তৃণমূলের আশঙ্কা।

এরই প্রতিবাদে বিভিন্ন সংস্থার ১০জন কর্মী লাগাতার অনশন চালাচ্ছেন গাঁধী মূর্তির পাদদেশে। গত ছ’দিনে একাধিক তৃণমূল নেতা এবং মন্ত্রী আন্দোলনকারীদের সমর্থনে গিয়েছেন অনশন মঞ্চে।