Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২
Horse

Horse Race: ট্রেনে চেপে ঘোড়া যায় দৌড়তে

এলাকার বাসিন্দারা জানান, বছরের এই সময়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নানা এলাকায় ঘোড়দৌড়ের আয়োজন হয়।

জমজমাট: ঘোড়দৌড়ের আসর ভরে ওঠে বহু মানুষের ভিড়ে।

জমজমাট: ঘোড়দৌড়ের আসর ভরে ওঠে বহু মানুষের ভিড়ে। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
ডায়মন্ড হারবার শেষ আপডেট: ০৯ এপ্রিল ২০২২ ০৭:০০
Share: Save:

ডাউন শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার লোকালের কামরায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একটি ঘোড়া নিয়ে উঠেছিলেন তার মালিক। ভিড় কামরায় ঘোড়ার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। শুরু হয় শোরগোল।

Advertisement

স্থানীয় সূত্রের খবর, ডায়মন্ড হারবার শাখার দক্ষিণ দুর্গাপুর স্টেশন থেকে ঘোড়াটিকে নিয়ে ওঠেন তার মালিক। নেতরা স্টেশনে নেমে যান। নিত্যযাত্রীরা অবশ্য জানাচ্ছেন, ট্রেনের কামরায় ঘোড়া ওঠার ঘটনা এই লাইনে নতুন নয়। গত কয়েকদিন ধরেই দক্ষিণ শাখার বিভিন্ন স্টেশনে এ ভাবে ঘোড়া নিয়ে ট্রেনের কামরায় উঠতে দেখা যাচ্ছে।
কিন্তু কেন ট্রেনে চড়ছে ঘোড়া?

এলাকার বাসিন্দারা জানান, বছরের এই সময়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নানা এলাকায় ঘোড়দৌড়ের আয়োজন হয়। মূলত চৈত্রমাসের বিভিন্ন মেলায় এই ধরনের প্রতিযোগিতায় যোগ দিতে ঘোড়া নিয়ে যাতায়াত করেন মালিকেরা। তবে দূরবর্তী এলাকায় ঘোড়ার পিঠে না উঠে ঘোড়াকে তোলা হয় ট্রেনে।

এক-একটি প্রতিযোগিতায় যোগ দেয় ৩০-৪০টি পুরুষ ঘোড়া। দিন দু’য়েক আগেই বারুইপুর ব্লকের শিখরবালি ২ পঞ্চায়েতের ইন্দ্রপালা গ্রামে মনসা মেলা উপলক্ষে ঘোড়দৌড়ের আয়োজন করা হয়েছিল। বিজয়ী ঘোড়ার মালিকদের জন্য ছিল নগদ পুরস্কার। তা ছাড়া, প্রতিযোগিতায় যোগদান করলেই কিছু না কিছু পুরস্কারের ব্যবস্থা ছিল বলে জানালেন উদ্যোক্তারা। বহু মানুষ প্রতিযোগিতা দেখতে ভিড় করেন।

Advertisement

মেলার কাছাকাছি স্টেশন দক্ষিণ দুর্গাপুর। অনেক ঘোড়ার মালিকই পোষ্যকে ট্রেনে চাপিয়ে এনেছিলেন বলে স্থানীয় সূত্রের খবর। বৃহস্পতিবার ট্রেনে যে ঘোড়াটিকে দেখা গিয়েছে, সেটি সম্ভবত ওই প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়েই ফিরছিল বলে অনুমান অনেকের।

মেলা উদ্যোক্তারা জানালেন, সাধারণত ছোট ম্যাটাডর বা অন্য গাড়ি ভাড়া করে ঘোড়া আনেন মালিকেরা। তবে খরচ বাঁচাতে কেউ ট্রেনে আসতে পারেন। এক উদ্যোক্তার কথায়, “আমরা প্রতিযোগিতার আয়োজন করি। কে কী ভাবে ঘোড়া আনল, সেটা দেখা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।”

রেলের আইন অনুযায়ী, যাত্রীবাহী ট্রেনে পশু পরিবহণ করা যায় না। ট্রেনে ওঠা তো দূরের কথা, রেল চত্বরের মধ্যেই কোনও রকম জন্তু-জানোয়ার নিয়ে ঢোকা বেআইনি বলে রেল সূত্রে জানানো হয়েছে। এক আধিকারিক জানান, বড় কোনও স্টেশন থেকে এরা ওঠে না। সাধারণত ছোট স্টেশন থেকে উঠে কিছুক্ষণের মধ্যেই অন্য ছোট স্টেশনে নেমে যায়। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই জিআরপি বা আরপিএফের চোখ এড়িয়ে যায়।

তবে বৃহস্পতিবারের ঘটনার পরে শুক্রবার এ নিয়ে বেশ কড়াকড়ি চলে। এ দিন ঘোড়া নিয়ে ট্রেনে ওঠার জন্য নেতরা স্টেশনে আসেন এক ব্যক্তি। তাঁকে আটকে দেয় রেলপুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.