Advertisement
২০ জুন ২০২৪
Illegal Sand Mining

Arrest: বেআইনি বালি কারবারে জড়িত তিনজন ধৃত মিনখাঁয়

মুখ্যমন্ত্রী এ সবের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করার কথা জানান। তারপরেও বালি মাফিয়ারা কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল বলে অভিযোগ। পুলিশের উপরেও চাপ বাড়ছিল।

ধৃত: অভিযুক্তেরা।

ধৃত: অভিযুক্তেরা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বসিরহাট শেষ আপডেট: ১৯ মে ২০২২ ০৫:৪৯
Share: Save:

নদী থেকে বেআইনি ভাবে সাদা বালি তোলার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

মিনাখাঁ থানার বিদ্যাধরী নদীর নেড়ুলি বৈদ্যবাটি এলাকায় বালি তোলা হচ্ছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খবর পেয়ে হাজির হয় পুলিশ। তিনজনকে ধরা হয়। একটি বালি ভর্তি গাড়িও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েক মাস ধরে নেড়ুলি বৈদ্যবাটি-সহ বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যাধরী থেকে অবৈধ ভাবে বালি কাটা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছিল। বালি কেটে রাতের অন্ধকারে নৌকো ভর্তি করে পাড়ে তোলার পরে তা ছোট চার চাকার গাড়িতে করে কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় চড়া দামে বিক্রি হয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় মানুষ। পরিকল্পনাবিহীন ভাবে যেখান সেখান থেকে বালি কাটায় নদীর গতিপথ বদলে নোনা জলের চাপ বাড়ায় হয় বাঁধ দুর্বল হয়ে পড়ছে, নয় তা ভেঙে লোকালয় প্লাবিত হচ্ছে বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ বহুদিনের।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী এ সবের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করার কথা জানান। তারপরেও বালি মাফিয়ারা কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল বলে অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে পুলিশের উপরেও চাপ বাড়ছিল।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নেড়ুলি বৈদ্যবাটি এলাকায় বালি কাটা হচ্ছে জানতে পেরে মিনাখাঁ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। পুলিশকে দেখে বালি কারবারিরা পালায়। ধাওয়া করে সাইফুল মোল্লা, আবুল হোসেন মোল্লা এবং সাদ্দাম মোল্লাকে ধরে পুলিশ। তাদের বাড়ি হাসনাবাদের মুরারিশাহ এলাকায়। নদীর সাদা বালি ভর্তি একটি মিনি ট্রাক বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এই কারবারে জড়িত বাকিদের খোঁজ চলছে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Illegal Sand Mining arrested
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE