Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Babul Supriyo: মানুষের টাকায় মানুষের কাজ, ইস্তফার আগেই সাংসদ তহবিলের অবশিষ্ট টাকা বরাদ্দ বাবুলের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০০:০৭
সাংসদ উন্নয়ন তহবিলের অবশিষ্ট অর্থ মঞ্জুর বাবুল সুপ্রিয়র।

সাংসদ উন্নয়ন তহবিলের অবশিষ্ট অর্থ মঞ্জুর বাবুল সুপ্রিয়র।

তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সময় জানিয়েছিলেন, সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেবেন। ইস্তফা দেওয়ার আগে সাংসদ তহবিলের বাকি টাকা বরাদ্দও করে ফেললেন বাবুল সুপ্রিয়। ফেসবুকে এই সংক্রান্ত পোস্টে বাবুল লিখেছেন, ‘যেখানেই থাকি না কেন, আসানসোল আমার জন্য সব সময়ই ভীষণ স্পেশাল। আসানসোলের জন্য যতটা করতে পারি, তার থেকে বেশি করে যাব।’

এলাকা উন্নয়ন তহবিলে প্রত্যেক সাংসদ বছরে ৫ কোটি টাকা করে পান। কিন্তু করোনা আবহে সেই টাকা সাময়িক ভাবে বরাদ্দ করা স্থগিত ছিল প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশে। সম্প্রতি তা ফের শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বাবুল। সাংসদ পদ থেকেও ইস্তফা দেবেন। ইস্তফা দেওয়ার আগে নিজের তহবিলের অবশিষ্ট টাকা মঞ্জুর করে দিলেন। তিনি জানিয়েছেন, ৩ কোটি ৮৮ লক্ষ টাকা আগেই মঞ্জুর করেছিলেন। এ বার অবশিষ্ট ২ কোটি ২০ লক্ষ টাকাও মঞ্জুর করলেন। এই টাকায় চলবে আসানসোল লোকসভা এলাকার উন্নয়নের কাজ।

ফেসবুকে বাবুল যে পোস্ট করেছেন তাতে দেখা যাচ্ছে, আসানসোল লোকসভা এলাকার কুলটির ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে দুর্গামন্দির নির্মাণের জন্য ১৫ লক্ষ টাকা, কুলটির চিনাকুড়িতে দামোদরের উপর কংক্রিটের প্ল্যাটফর্মের জন্য ১৫ লক্ষ টাকা, কুলটির হরিমন্দির ও শ্মশান ঘাট এলাকায় ‘হাই মাস্ট’ আলোর জন্য ৫ লক্ষ টাকা করে মোট ১০ লক্ষ টাকা, কুলটির খ্রিস্টান সমাধিস্থলের জন্য ১৫ লক্ষ টাকা, পাণ্ডবেশ্বরে কমিউনিটি হল তৈরির জন্য ১৫ লক্ষ টাকা-সহ আরও অনেক প্রকল্পের জন্য অর্থ মঞ্জুর করেছেন তিনি।

আসানসোলের সাংসদের দেওয়া তালিকায় দেখা যাচ্ছে, মোট ১৫ টি প্রকল্পের জন্য তিনি ২ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা মঞ্জুর করেছেন। এই পোস্টেই বাবুল দাবি করেছেন, সাংসদ উন্নয়ন তহবিলের অর্থ বরাদ্দ ফের শুরু হওয়ার পর তিনি নিজের তহবিলের ৩ কোটি ৮৮ লক্ষ টাকা মঞ্জুর করেছিলেন। এ বার অবশিষ্ট টাকাও মঞ্জুর করলেন।

Advertisement

পাশাপাশি, আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রে গুরুতর অসুস্থ রোগীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে ৩ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা ইতিমধ্যেই মঞ্জুর করেছেন বাবুল। নেটমাধ্যম থেকে সদ্য পাওয়া আরও ৩টি এমন আবেদনও ইস্তফার আগে মঞ্জুর করে দিয়ে যাচ্ছেন, এমনই দাবি করেছেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলের বরাদ্দ অর্থ চেয়ে চিঠি।

প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলের বরাদ্দ অর্থ চেয়ে চিঠি।


ফেসবুক পোস্টে বাবুল জানিয়েছেন, আগামী বছর মার্চ মাস পর্যন্ত এক জন সাংসদ যত টাকা উন্নয়ন তহবিলে পান, তার পুরোটাই তিনি মঞ্জুর করে দিয়ে গেলেন। নিজের পোস্টে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে বাবুল লিখেছেন, ‘মানুষের টাকায় মানুষের কাজ’। এখানেই অবশ্য থামেননি বাবুল। কমেন্ট বক্সে সরাসরি জবাব দিয়েছেন তাঁর সমালোচকদের। আর তা করতে গিয়ে বার বার বিঁধেছেন পুরনো দল বিজেপি-কে। লিখেছেন, ‘যে দলে প্রাণপাত পরিশ্রম ও দারুণ কাজ করার পরও পদোন্নতি হয় না, সেই দলে থাকব না।’

আরও পড়ুন

Advertisement