×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

সন্ত্রাসের ‘আশঙ্কা’, সব বুথে বাহিনীর দাবি

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৭:২০
—ফাইল চিত্র

—ফাইল চিত্র

এখনও নির্বাচনের দিন ঘোষণা হয়নি। তার আগে যে ভাবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের তরফে ‘উস্কানিমূলক’ মন্তব্য করা শুরু হয়েছে, তাতে ভোটে সন্ত্রাসের আশঙ্কা করছেন দুর্গাপুরের ভোটকর্মীদের একাংশ। তাই সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখার দাবিতে সোমবার দুর্গাপুরের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি’র (এনআইটি) সামনে বিক্ষোভ দেখান কয়েকজন ভোটকর্মী।

এ দিন সকালে এনআইটির গেটের সামনে কয়েকজন ভোটকর্মী, মূলত শিক্ষক তাঁরা, হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। দাবি করেন, ভোটগ্রহণের সময়ে ভোটকর্মীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে হবে। সে জন্য সব বুথে একশো শতাংশ কেন্দ্রীয় বাহিনী দিতে হবে। বিক্ষোভকারীদের তরফে প্রাথমিক শিক্ষক চিরঞ্জিৎ ধীবর বলেন, ‘‘ভোটগ্রহণ করতে গিয়ে ভোটকর্মীদের বিপদে পড়তে হয়। এমন বহু নজির রয়েছে।’’ তাঁর দাবি, এ বার নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার আগেই যে ভাবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের তরফে উস্কানিমূলক মন্তব্য করা শুরু হয়েছে, তাতে ভোটে সন্ত্রাসের আশঙ্কা রয়েছে। তিনি জানান, ২৫ ফেব্রুয়ারি বঙ্গীয় নব উন্মেষ প্রাথমিক শিক্ষক সঙ্ঘের তরফে এ বিষয়ে স্মারকলিপি দেওয়া হবে মহকুমাশাসকের দফতরে।

এনআইটিতে গত কয়েকদিন ধরে প্রশিক্ষণ চলছে ভোটকর্মীদের। সোমবার প্রশিক্ষণ নিতে আসা ভোটকর্মী স্বাধীন বাউড়ি, সুদীপ চট্টোপাধ্যায়দের অভিযোগ, ‘‘অতীতে দেখা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় বাহিনী বুথে থাকলেও তাদের নিষ্ক্রিয় করে রাখা হয়েছে।’’ ভোটকর্মীরা বিপদের মুখে পড়লেও নির্বাচন কমিশনের তরফে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ ভোটকর্মীদের। তাঁরা বলেন, ‘‘ভোটগ্রহণ করতে গিয়ে বিপদের মুখে পড়তে চাই না। এ বার তেমন পরিস্থিতি যাতে না হয় তা সুনিশ্চিত করার দাবি জানাচ্ছি আমরা।’’ মহকুমাশাসক জানিয়েছেন, এ বিষয়টি নিয়ে সরাসরি তাঁর কিছু করার নেই। নির্বাচন কমিশন থেকে যেমন নির্দেশ আসবে, সে অনুযায়ী পদক্ষেপ করা হবে।

Advertisement
Advertisement