Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
Food Department

চাল উৎপাদনে রাইস মিল বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সাবধানী পদক্ষেপ করবে খাদ্য দফতর

আগামী খরিফ মরশুমে সরকারি উদ্যোগে রাজ্যের কৃষকদের থেকে কেনা ধান থেকে চাল উৎপাদনের জন্য রাইস মিল বাছাই নিয়ে বিশেষ ভাবে সচেতন থাকতে চাইছে খাদ্য দফতর।

Symbolic Image.

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৪:৩৮
Share: Save:

সরকারি উদ্যোগে ধান থেকে চাল উৎপাদনের ক্ষেত্রে সাবধানী পদক্ষেপ করছে খাদ্য দফতর। সম্প্রতি খাদ্য দফতরে এই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ, পঞ্চায়েত ও সমবায় মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার-সহ খাদ্য দফতরের শীর্ষ আধিকারিকরা। সেই বৈঠকের পরেই খাদ্য দফতরের তরফে রাইস মিল নথিভুক্তকরণের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

সেই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী খরিফ মরশুমে সরকারি উদ্যোগে রাজ্যের কৃষকদের কাছ থেকে কেনা ধান থেকে চাল উৎপাদনের জন্য রাইস মিল বাছাই নিয়ে বিশেষ ভাবে সচেতন থাকতে হবে। নতুন করে কোনও রা‌ইস মিল এই কাজে নথিভুক্ত হতে চাইলে তার পুরনো রেকর্ড খতিয়ে দেখা বাধ্যতামূলক। নথিভুক্তকরণের ব্যাপারে আবেদন করতে হবে খাদ্য দফতরের একটি নির্দিষ্ট পোর্টালে। কখনও কোনও সরকারি সংস্থায় এই ধরনের কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকার পূর্ব অভিজ্ঞতা রয়েছে কি না, তা-ও জানাতে হবে ওই পোর্টালেই। অনলাইনে এই ধরনের আবেদনের পর তা খতিয়ে দেখবে খাদ্য দফতর। যাচাই করা অভিজ্ঞতার ভিত্তিতেই নতুন রাইস মিলকে দায়িত্ব দেওয়া যেতে পারে। ইতিমধ্যে খাদ্য দফতরে যে সব রা‌ইস মিল নথিভুক্ত, তাদের রেজিস্ট্রেশন করাতে আর নতুন করে আবেদন জানাতে হবে না।

রাইস মিলগুলির কাজকর্ম খতিয়ে দেখতে জেলা স্তরে একটি করে বিশেষ কমিটি তৈরি হবে। তবে আগামী মরশুমে ওই মিলগুলি চাল উৎপাদনের দায়িত্ব পাবে কি না, তা ঠিক করবে জেলা পর্যায়ের সেই বিশেষ কমিটি। সরকারি ধান নিয়ে চাল ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে অতীতে কোনও গাফিলতি রাইস মিল করেছিল কি না, সে বিষয়ে কমিটি খতিয়ে দেখবে। রাইস মিলের বিরুদ্ধে কোনও ফৌজদারি মামলা রয়েছে কি না, তা-ও খতিয়ে দেখবে ওই কমিটিই।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE