Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Suvendu Adhikari

‘অডিয়ো ক্লিপ প্রকাশ করুন, নইলে ধরে নেব গলা নকল করিয়ে তৈরি’, অভিষেককে চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

অভিষেক-কথিত ‘অডিয়ো ক্লিপ’ সংক্রান্ত দাবির বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে শুভেন্দুর মন্তব্য, সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের চিঠির মতো গলা নকল করিয়ে ওই ‘অডিয়ো ক্লিপ’ বানানো হয়নি তো?

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও শুভেন্দু অধিকারী

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও শুভেন্দু অধিকারী

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঘাটাল শেষ আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৯:৩৮
Share: Save:

কয়লা পাচার মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত ‘ফেরার’ বিনয় মিশ্রের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী ‘যোগাযোগ’ করেছেন বলে শুক্রবার দাবি করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তার প্রেক্ষিতে শনিবার পাল্টা আক্রমণ শানালেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু। অভিষেক-কথিত ‘অডিয়ো ক্লিপ’ সংক্রান্ত দাবির বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে তাঁর প্রশ্ন, সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের চিঠির মতো গলা নকল করিয়ে ওই ‘অডিয়ো ক্লিপ’ বানানো হয়নি তো? তৃণমূল যদিও পাল্টা আক্রমণ করেছে শুভেন্দুকে। দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের বক্তব্য, ফোন যে তিনি করেননি, তা শুভেন্দু অস্বীকার করলেন না!

Advertisement

শুক্রবার কয়লা পাচার মামলায় সিজিও কমপ্লেক্সে অভিষেককে প্রায় আট ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। সেখান থেকে বেরোনোর পর অভিষেক দাবি করেন, ‘পলাতক’ বিনয়ের সঙ্গে আট মাস আগেই কথা হয়েছে শুভেন্দুর। বিজেপি নেতা তাঁকে ‘আশ্বস্ত’ও করেছেন। শুধু তাই নয়, ওই কথোপকথনের অডিয়ো ক্লিপও তাঁর কাছে আছে বলে দাবি করেন ডায়মন্ড হারবারের তৃণমূল সাংসদ। তার অব্যবহিত পরেই বীরভূমের খয়রাশোলের সভা থেকে অভিষেককে আক্রমণ করেন শুভেন্দু। বিনয়ের সঙ্গে তাঁর কথোপকথনের দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘আমার ফোন থেকে এই রকম চোরেদের সঙ্গে কথা হয়েছে, তা প্রমাণ করতে দিন।’’

এর পরেই শনিবার ঘাটালের দলীয় কর্মসূচিতে হাজির হয়ে শুভেন্দু বলেন, ‘‘এত দিন কোথায় ছিলেন? অডিয়ো ক্লিপ হাতে থাকলে প্রকাশ করুন। আমার কোনও সমস্যা নেই। আমার মাথা উঁচু। আমি সিপিএমকে উৎখাত করেছি। আপনার পিসি এবং আপনাকেও উৎখাত করব। আমি মেদিনীপুরের ছেলে।’’ সুর আরও চড়িয়ে বিরোধী দলনেতা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেন, ‘‘যদি আমার ফোন নম্বর-সহ অডিয়ো ক্লিপ প্রকাশ করতে না পারেন, তা হলে ধরে নেব, সুদীপ্ত সেনের চিঠির মতো গলা নকল করিয়ে ওই অডিয়ো ক্লিপ বানানো হয়েছে শুধু মাত্র বাজার গরম করার জন্য।’’

পাচার মামলায় সিবিআই তদন্তের শুরু থেকেই মূল অভিযুক্ত হিসাবে বিনয়ের নাম উঠে এসেছে। শুভেন্দুও দাবি করে এসেছেন, দলের যুব তৃণমূলের সহ-সভাপতি পদে থাকার সুবাদে বিনয়ের সঙ্গে অভিষেকের যোগাযোগ রয়েছে। শুক্রবার সেই তিরের অভিমুখ ঘুরিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেতা। নাম না করলেও অভিষেকের কথায় স্পষ্ট যে, তিনি কয়লা পাচার মামলায় ‘ফেরার’ বিনয় মিশ্রের কথা বলেছেন। তাঁর বক্তব্য, এক সাংবাদিকের কাছে ওই কথোপকথনের রেকর্ড আছে। সেই সাংবাদিক তাঁকে ওই অডিয়ো ক্লিপ শুনিয়েছেন। অভিষেক দাবি করেন, ‘‘ওই ফেরারকে ফোনে শুভেন্দু বলেছেন, তোমার কেস আমি দেখে নেব। চিন্তা নেই।’’ শুভেন্দুর উদ্দেশে অভিষেক বলেছেন, ‘‘ক্ষমতা থাকলে মামলা করুন। সেই অডিয়ো ক্লিপ আমি আদালতে বিচারকের কাছে জমা দেব।’’

Advertisement

এর পরেই শনিবার পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন শুভেন্দু। তাঁর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে কুণাল পাল্টা বলেন, ‘‘শুভেন্দু অধিকারী আজ প্রলাপ বকেছেন। এক বছর আগে যে শুভেন্দু অধিকারীর মুখে বড় বড় কথা শোনা যেত, সেই শুভেন্দুকে আজ নাকে খত দিয়ে নিজের মোবাইল নম্বর দেখাতে হচ্ছে। এটাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ম্যাজিক এবং জয়। কই শুভেন্দু অধিকারী তো অস্বীকার করলেন না? কই বললেন না তো যে, উনি ফোনে কথা বলেননি? এক বারও অস্বীকার করেননি। পয়েন্ট টু বি নোটেড (মনে রাখতে হবে)। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, যদি মিথ্যে হয়ে থাকে (অডিয়ো ক্লিপটি), তা হলে মামলা করো। ওই অডিয়োর ফরেন্সিক হোক।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.