×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৪ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

গত ২৪ ঘণ্টায় কমেছে মৃত্যুর সংখ্যা, কমলো দৈনিক সংক্রমণও

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ নভেম্বর ২০২০ ২২:০৫
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

কিছুটা কমলো দৈনিক সংক্রমণ। কমেছে দৈনিক সুস্থতাও। গত কয়েক দিন ধরে করোনার সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি চিন্তা বাড়িয়েছিল রাজ্য প্রশাসনের। তবে রবিবার দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা কিছুটা কমায় আপাত স্বস্তি ফিরেছে। এ দিন স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৫৯১ জন। এ নিয়ে রাজ্য়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ৫৬ হাজার ৩৬১।

গত ১৫ নভেম্বর দৈনিক সংক্রমণ এক লাফে অনেকটা নেমে আসে। কিন্তু এক দিন যেতে না যেতেই ফের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। ১৬ নভেম্বর দৈনিক সংক্রমণ ছিল সবচেয়ে কম, ৩ হাজার ১২। ১৭ নভেম্বর থেকে ফের সংক্রমণ বাড়ে। গত কয়েক দিন ধরে এ ভাবে সংক্রমণের ওঠানামার প্রবণতা লক্ষ করা যাচ্ছে।

দৈনিক সংক্রমণ কমায় যেমন কিছুটা স্বস্তি মিলেছে, তেমনই দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা কমতে থাকায় উদ্বেগ বাড়ছে। যদিও দৈনিক আক্রান্তের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি— এই প্রবণতাটা টানা বজায় রয়েছে। তবে নভেম্বরের গোড়া থেকে যে ভাবে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যাটা টানা ১৮ দিন ধরে ৪ হাজারের উপরে ছিল, ১৯ নভেম্বর থেকে সেই সংখ্যাটা ৪ হাজারের নীচে নেমে গিয়েছে।

কিছুটা কমলো দৈনিক সংক্রমণ। কমেছে দৈনিক সুস্থতাও। গত কয়েক দিন ধরে করোনার সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি চিন্তা বাড়িয়েছিল রাজ্য প্রশাসনের। তবে রবিবার দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা কিছুটা কমায় আপাত স্বস্তি ফিরেছে। এ দিন স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৫৯১ জন। এ নিয়ে রাজ্য়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ৫৬ হাজার ৩৬১।

গত ১৫ নভেম্বর দৈনিক সংক্রমণ এক লাফে অনেকটা নেমে আসে। কিন্তু এক দিন যেতে না যেতেই ফের সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। ১৬ নভেম্বর দৈনিক সংক্রমণ ছিল সবচেয়ে কম, ৩ হাজার ১২। ১৭ নভেম্বর থেকে ফের সংক্রমণ বাড়ে। গত কয়েক দিন ধরে এ ভাবে সংক্রমণের ওঠানামার প্রবণতা লক্ষ করা যাচ্ছে।

দৈনিক সংক্রমণ কমায় যেমন কিছুটা স্বস্তি মিলেছে, তেমনই দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা কমতে থাকায় উদ্বেগ বাড়ছে। যদিও দৈনিক আক্রান্তের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি— এই প্রবণতাটা টানা বজায় রয়েছে। তবে নভেম্বরের গোড়া থেকে যে ভাবে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যাটা টানা ১৮ দিন ধরে ৪ হাজারের উপরে ছিল, ১৯ নভেম্বর থেকে সেই সংখ্যাটা ৪ হাজারের নীচে নেমে গিয়েছে।

(গ্রাফে হোভার টাচ করলে দিনের পরিসংখ্যান দেখা যাবে)

Advertisement

স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৭২৬ জন। ফলে মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ২৩ হাজার ১২৯। এ দিন সুস্থতার হার ৯২.৭২ শতাংশ।
 

স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৭২৬ জন। ফলে মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ২৩ হাজার ১২৯। এ দিন সুস্থতার হার ৯২.৭২ শতাংশ।

দৈনিক সংক্রমণের দিক থেকে কলকাতা শীর্ষে। সেখানে ৮৭৯ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। দৈনিক সংক্রমণে তার পরই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। ৮২৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এই জেলায়। মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের।  
 

দৈনিক সংক্রমণের দিক থেকে কলকাতা শীর্ষে। সেখানে ৮৭৯ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। দৈনিক সংক্রমণে তার পরই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। ৮২৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এই জেলায়। মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের।

রাজ্যে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাটাও রবিবার ৫০-এর নীচে নেমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪৯ জনের। ফলে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ২৫।

Advertisement